ঢাকা, বুধবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ১৬ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পরাজয়-হতাশা আর লাল কার্ডে জামালদের প্রাপ্তি ব্রোঞ্জ

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯ রবিবার, ০৭:২৫ পিএম
পরাজয়-হতাশা আর লাল কার্ডে জামালদের প্রাপ্তি ব্রোঞ্জ

ফুটবলে বাংলাদেশের স্বর্ণ পাওয়াটা অনেকেই ঠিক করে রেখেছিল। তবে বাস্তবতা অন্যকিছু। শক্তিশালী ভারত না থাকার পরেও ফাইনালে উঠতে ব্যর্থ বাংলাদেশ। ২০১৬ সালের মতোই ব্রোঞ্জ পদক নিয়ে বিদায় ঘণ্টা বাজল বাংলাদেশের। নেপালের কাছে আজ ১-০ গোলে হেরে সাউথ এশিয়ান গেমসের সফর সমাপ্ত করল জামাল ভূঁইয়ারা।

পরাজয়ের হতাশার সাথে বাংলাদেশের হতাশার ষোলকলা পুর্ণ হয়েছে ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে গিয়ে। কর্নার ফ্ল্যাগের কাছাকাছি সময় নষ্ট করতে থাকা নেপাল ফুটবলারকে ধাক্কা দিয়ে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছেড়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়া। এর আগেই অবশ্য বাংলাদেশের সম্ভাবনা ফুরিয়ে গিয়েছিল। 

ফাইনালে উঠতে কাঠমান্ডুর দশরথ রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে জিততেই হত বাংলাদেশকে। ৬ ডিফেন্ডার নিয়ে একাদশ সাজালেও শুরুতেই গোল হজম করে বাংলাদেশ। বামদিক থেকে নেপাল অধিনায়ক সুজলের কাটব্যাক ঠেকাতে পারেননি পাহারায় থাকা দুই বাংলাদেশ ডিফেন্ডার। সিক্স ইয়ার্ড বক্সের কোনায় ছিলেন সুনীল বাল। আড়াআড়ি দারুণ ফিনিশে গোল করে তিনি এগিয়ে নেন নেপালকে।

শুরুতে গোল হজম করার অবশ্য ভালো-মন্দ দুইদিকই আছে। ম্যাচে ফেরার জন্য যথেষ্ট সময় ছিল বাংলাদেশের হাতে। ৫ মিনিট পর দলকে সমতায় ফেরানোর সেই কাজটা প্রায় করেও ফেলেছিলেন সাদ উদ্দিন। কিন্তু সল্টলেকের মতো রঙ্গশালাকে এদিন আর স্তব্ধ করা হয়নি আবাহনী ফরোয়ার্ডের। লম্বরা থ্রো এর পর বক্সের ভেতর  থেকে নেওয়া সাদের হাফ ভলি দারুণ এক ব্লক করে বাংলাদেশকে গোলবঞ্চিত করেন নেপাল ডিফেন্ডার।

দ্বিতীয়ার্ধে ভালো কিছু সুযোগ পেয়েছিল বাংলাদেশ। আরও ৪৯ মিনিটে একবার সেটপিসই ছিল বাংলাদেশের মূল অস্ত্র। কিন্তু বাংলাদেশের নেওয়া কর্নার থেকে তখন অল্পের জন্য বেঁচে যায় নেপাল। দ্বিতীয়ার্ধে নেপাল বুঝতে পেরেছিল নিজেদের অর্ধে বেশি ব্যস্ত থাকলে বাংলাদেশকে আটকানো কঠিনই হবে তাদের জন্য। সময়ে সময়ে কাউন্টার অ্যাটাকে তাই ইয়াসিন-রাফিদের চোখ রাঙিয়েছেন সুনীলরা। ৫৫ মিনিটে সুনীলই প্রায় ব্যবধান দ্বিগুণ করে ফেলেছিলেন। কর্নারের বিনিময়ে তখন হাঁপ ছেড়ে বাঁচে বাংলাদেশ।

এরপর আর বদল হয়নি বাংলাদেশের ভাগ্য। বাজে রেফারিং এবং বাংলাদেশের হতাশাজনক পারফরমেন্স- সব মিলিয়ে ফেভারিটের তকমা নিয়ে যাওয়া বাংলাদেশকে সন্তুষ্ট থাকতে হলো ব্রোঞ্জ পদক নিয়ে। ফাইনালে স্বাগতিক নেপালের মুখোমুখি হবে অপরাজিত ভুটান।

বাংলা ইনসাইডার/এসএম