ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Bangla Insider

কোহলিকে দলে নিতে চাননি ধোনি

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩ এপ্রিল ২০২০ শুক্রবার, ১০:০৫ পিএম
কোহলিকে দলে নিতে চাননি ধোনি

সময়টা ২০০৮। যুবদলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির নাম তখন সবার মুখে মুখে। এই কোহলিই যে ভবিষ্যতে ভারতীয় ক্রিকেটের বড় তারকা হতে যাচ্ছেন— সেটির ইঙ্গিত তত দিনে মিলে গেছে। ভারতীয় এই উঠতি তারকাকে জাতীয় দলে পেতে তাই মরিয়া হয়ে উঠেছিলেন দলের সেই সময়কার প্রধান নির্বাচক দিলীপ ভেংসরকার। তবে কোহলিকে দলে নিতে চাননি তখনকার অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ভারতের সাবেক প্রধান নির্বাচক ভেংসরকার বলেন, ২০০৮ সালের দিকে নির্বাচক কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, অনূর্ধ্ব-২৩ দল থেকে খেলোয়াড় নেওয়া হবে। ওই সময় কোহলি ছিলেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। টুর্নামেন্টে তিনি ব্যাট হাতেও বেশ ভালো করেছিলেন। তাই নির্বাচকরা চেয়েছিলেন তাকে শ্রীলঙ্কা সফরে নিয়ে যেতে।

ভেংসরকার বলেন, ‘অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জেতা দলের ছেলেদের নিয়ে অনূর্ধ্ব-২৩ দল গঠন করেছিলাম। কোহলি তখন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক ছিল। তাই সে দলে তাঁকে রাখা হয়। ওর টেকনিক তখন থেকেই দারুণ ছিল। আমার মনে হলো, ওর এখনই জাতীয় দলে খেলা উচিত। আমাদের সামনে শ্রীলঙ্কা সিরিজ ছিল, মনে হলো এটাই আদর্শ সময়। অন্যান্য নির্বাচকরাও রাজি হলেন।’

কিন্তু ভেংসরকারের ইচ্ছার পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন অধিনায়ক ধোনি। কোহলির ব্যাটিং দেখে তবেই তিনি তাঁকে দলে চাইবেন— এমন কথাই বলেছিলেন। কোচ গ্যারি কারস্টেনও পক্ষ নেন ধোনির। কিন্তু ভেংসরকার নিজের ইচ্ছায় অটল রইলেন। বলেছিলেন, ‘আমি ওর ব্যাটিং দেখেছি। ওকে এখনই দলে নেব আমি।’

বলতে গেলে জোর করেই কোহলিকে ওই সফরে নিয়ে যান ভেঙ্কসরকার। কে জানে, তিনি ওই সময় এই সিদ্ধান্ত না নিলে কোহলির মতো একজন ব্যাটসম্যান বিশ্ব ক্রিকেট পেতো কি না। যুব ক্রিকেটে ভালো করেও দলে সুযোগ না পাওয়াদের তালিকাটা তো আর কম বড় নয়!

বাংলা ইনসাইডার/এসএম