ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

জেলগেট থেকে বেরিয়ে প্রস্তুতি কেমন হচ্ছে তাদের

মহিউদ্দিন সোয়াত
প্রকাশিত: ১৭ মার্চ ২০২১ বুধবার, ০৯:১১ এএম
জেলগেট থেকে বেরিয়ে প্রস্তুতি কেমন হচ্ছে তাদের

আর মাত্র দুইদিন পরই মাঠে গড়াবে নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশের লড়াই। এরই মাঝে বাংলাদেশ দল বেশ অনেকদিন কাটিয়ে দিয়েছে নিউজিল্যান্ডে। এখন তারা কুইন্সটাউনে। প্রস্তুতি ম্যাচও খেলেছে সেখানেই। তবে তার আগে এতো দিন কেমন কাটিয়েছে বাংলাদেশ দল ও দলের সদস্যরা তা জানিয়েছেন বাংলাদেশ দলের সাবেক খেলোয়াড় ও অধিনায়ক হাবিবুল বাশার। আর কেমন হচ্ছে প্রস্তুতি তাও জানিয়েছেন তিনি।  

প্রথমত নিউজিল্যান্ড সফরে আসার আগে কোয়ারেন্টিনের সময়টা নিয়ে সবার মধ্যে শঙ্কা ছিল। সময়টা কেমন যাবে, কত নিয়মই না মানতে হবে। জৈব সুরক্ষাবলয় আর কোয়ারেন্টিন তো ভিন্ন ব্যাপার। নিউজিল্যান্ডে পা দিয়েই বুঝতে পাড়ছিলেন সময়টা আসলেই কঠিন যাবে। করোনাবিধি বা কোয়ারেন্টিন নিয়ে যেসব বিষয় সবাই শুরু থেকে শুনে আসছে, সেখানে সেসব অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলা হয়। হোটেলে ঢোকা থেকে শুরু করে ১৪ দিনের কোয়ারেনটাইন শেষে মাঠে অনুশীলনের আগ পর্যন্ত বাংলাদেশ যেন এক ঘরবন্ধি জেলখানায় ছিলো। শুরুর দিকে শুধু সকাল ৭টা ৩০ মিনিট থেকে ৮টা পর্যন্ত রুমের জানালা খোলা রাখার অনুমতি ছিল। রুমের দরজার সামনে খাওয়া রেখে যেত, এমনকি নিজেদের থালাবাসন নিজেরাই ধুয়েছে খেলোয়াড়রা। তবে যখন দ্বিতীয় কোভিড পরীক্ষায় সবাই নেগেটিভ হল তখন পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হতে শুরু করে।   

এরপর কোয়ারেন্টিনের ১৪ দিন পর যখন হোটেল থেকে বের হয়ে, সবাই যেন জেল থেকে বের হওয়ার আনন্দ পায়। এরপর চলে কুইন্সটাউনেই একদিন ঘুরাঘুরি। তবে এই ঘুরাঘুরির পরেও বেশ ভালই প্রস্তুতি সেরেছে বাংলাদেশ দল এমনটাই জানায় বাশার।  

তিনি বলেন, “কুইন্সটাউনে এসে পরদিন থেকেই দলবদ্ধ অনুশীলন শুরু হয়েছে। পরপর দুই দিন সকাল ৯টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত খুব ভালো অনুশীলন হয়েছে। অনুশীলনের জন্য এখানেও খুব ভালো সুবিধা। মাঝ উইকেট পাচ্ছি। মূল মাঠের পাশে আরেকটা মাঠে তিনটি নেট আছে। সেখানেও অনুশীলন করা যাচ্ছে। ক্রাইস্টচাচের্র সাত দিন আমরা জিম, ফিজিক্যাল ট্রেনিং আর ফিল্ডিং অনুশীলন অনেক বেশি করেছি। কুইন্সটাউনে স্কিলের ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে বেশি। এসবের মধ্যে একটা বিরতিও দরকার ছিল। সবাই মিলে ছুটির দিনটা খুবই উপভোগ করেছি।“

এরই মাঝে গতকাল নাজমুল হোসেন একাদশ এবং তামিম ইকবাল একাদশের খেলায় ভালই প্রস্তুতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যদিও নাজমুল একাদশ তামিম একাদশকে পাত্তাই দেয় নাই। তবে প্রাকটিসের জন্য ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেয়েছে সবাই আর ব্যাটিং ও বোলিংয়ে ভালও করেছে।

তবে ফলাফল শেষ পর্যন্ত কেমন হবে, সেটা নির্ভর করবে মাঠে কেমন খেলবে বাংলাদেশ। তবে নিঃসন্দেহে প্রস্তুতি ভালো হচ্ছে এমনটাই বলেছেন বাশার। ভালো খেলার জন্য যে অনুশীলন বা সময়টা দরকার ছিল সেটা সবাই পেয়েছে নিউজিল্যান্ডে। কিন্তু সেসব তখনই সার্থক হবে, যখন মাঠের ফলাফলটা ভালো হবে।