ঢাকা, রোববার, ২০ জুন ২০২১, ৬ আষাঢ় ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

সাকিব কি ক্রিকেটের ব্যাডবয়?

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১ জুন ২০২১ শুক্রবার, ১০:০০ পিএম
সাকিব কি ক্রিকেটের ব্যাডবয়?

বারবার বিতর্ক, বারবার বিতর্ক। বিতর্ক যেন সাকিবের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। এই বিতর্ক আজ থেকে নয়। ব্যাট বলের তুখোড় পারফরমার হলেও নানা সময়ে জন্ম দিয়েছেন নানা বিতর্ক। ব্যক্তিগত আচরণের জন্য হয়েছেন নিন্দিত। ক্রিকেট প্রাঙ্গনে আসার পর থেকে কোন না কোন বিতর্কে জড়িয়েছেন তিনি। আর তার সর্বশেষ বিতর্ক আজকে ডিপিএল ম্যাচকে ঘিরে। মুশফিকুর রহীমের বিপক্ষে লেগবিফোর উইকেটের জোরালো আবেদন নাকচ হয়ে যাওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে লাথি মেরে স্ট্যাম্প ভেঙে ফেলা এবং বৃষ্টি শুরুর আগেই আম্পায়ারদের খেলা বন্ধ করার সিদ্ধান্তে সাকিব আল হাসানের তিন স্ট্যাম্প তুলে আছাড় মারার ঘটনায় শেরে বাংলায় হঠাৎ উত্তেজনা। সে উত্তেজনা ডালপালা গজালো আরও।

প্রেসবক্স থেকে ঘটনা বুঝে উঠতেও সময় লাগলো। পরে জানা গেল, সাকিব যখন মাঠ ছেড়ে নিজ ড্রেসিংরুমের দিকে ফিরে যাচ্ছিলেন, তখন গ্র্যান্ডস্ট্যান্ডে থাকা আবাহনী সমর্থকদের ক’জন তাকে নিয়ে কিছু একটা মন্তব্য করেন। জবাবে সাকিবও হাত দিয়ে একটা ইঙ্গিত করেন। সেই ঘটনার জেরেই ড্রেসিংরুম থেকে বেরিয়ে সাকিবের দিকে তেড়ে যান আবাহনী কোচ সুজন। তবে দু’দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তারা তাদের জাপটে ধরে আটকান বড় বিব্রতকর পরিস্থিতি তৈরির আগে। পরে ভুল বোঝাবুঝিরও অবসান ঘটে। সুজন মনে করেছিলেন, সাকিব তাকে লক্ষ্য করে কোনো অশ্লীল ইঙ্গিত দিয়েছেন। কিন্তু সাকিব নিশ্চিত করেন- সুজনকে নয়, অপ্রীতিকর মন্তব্য করা আবাহনী সমর্থকদের উদ্দেশ্যেই হাত দিয়ে ইঙ্গিত করেছেন তিনি। এমন ঘটনার জন্য বরং সাকিব ফেসবুকে ক্ষমা চাইলেও, সাকিবের শাস্তির ব্যাপারে সিদ্ধান্তের জন্য করতে হবে ম্যাচ রেফারির রিপোর্টের অপেক্ষা।

তবে ক্রিকেটকে বলা হয় ‘জেন্টালসম্যান্স গেইম’। তবে এ বুঝি সাকিবের সজ্জন!  ২০১০ সালে প্রথমবারের মতো বিতর্কে জড়ান সাকিব। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে এক দর্শকের নড়াচড়া বিঘ্ন ঘটাচ্ছিল ব্যাটসম্যানদের। হঠাতই ক্রিজ ছেড়ে বাউন্ডারি লাইনে ছুটে যান সাকিব। বাজে ভাষা ব্যবহারের পাশাপাশি ব্যাট উঁচিয়ে ওই দর্শককে হুমকি দেন দেখে নেয়ার।

এরপর ২০১১, ২০১৩ এবং ২০১৪ সালের নানান বিতর্কে শাস্তি পেতে হয় তাকে। ২০১৪ সালের ১৬ জুন ভারতের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে চলাকালে স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত করার অভিযোগে এক দর্শককে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন সাকিব। ২০১৪ সালের ২ জুলাই ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) খেলতে চলে যান বোর্ডের কাছ থেকে লিখিত অনুমতি না নিয়েই। এ ব্যাপারে কোচ প্রশ্ন করলে সাকিব হুমকি দেন জাতীয় দল ছেড়ে দেওয়ার। ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে বোর্ডের নির্দেশে দেশে ফিরেই পুরো ঘটনার জন্য দায় দেন কোচ হাথুরুসিংহেকে। এ নিয়ে শুরু হয় আরেক বিতর্ক।

এমন তর্ক-বিতর্কের মাঝেই নিজেকে ক্রিকেট খেলার ব্যাডবয়ে রুপান্তর করেছেন ওয়ানডে সেরা অলরাউন্ডার। তবে খেলাটা তর্ক-বিতর্কের মাঝে ফুটে ওঠে নিজের আবেগ। যার নিয়ন্ত্রণ সাকিব বারবারই হারান। যদিও তিনি বাংলাদেশের সেরা খেলোয়াড়। তবে ক্রিকেট খেলাটা একটি মর্যাদার খেলা। ক্রিকেট খেলাটা একটি ধৈর্যের খেলা আর সবচেয়ে বড় ক্রিকেট খেলাটা আবেগ নিয়ন্ত্রণের যেটা সাকিবের বুঝতে হবে।