ঢাকা, শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

কেমন কাটছে টাইগারদের ঈদ আনন্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২১ জুলাই ২০২১ বুধবার, ০৯:০২ এএম
কেমন কাটছে টাইগারদের ঈদ আনন্দ

যথাযোগ্য মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে আজ সারাদেশে পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপিত হচ্ছে। মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে ঈদকে ঘিরে যে আনন্দ-উচ্ছ্বাস থাকার কথা ছিল তা এবারও ম্লান করে দিয়েছে মহামারি করোনা ভাইরাস। করোনা মোকাবিলায় ও সংক্রমণ রোধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনায় বিশ্বের প্রায় সব দেশ বিভিন্ন বিধিনিষেধ মেনে চলছে। আর সরকারি নির্দেশনায় দেশে গতবছর ঈদ জামাত বন্ধ থাকলেও এবার খোলা মাঠে ঈদের জামাতের অনুমতি দিয়েছে সরকার। সারাদেশে মসজিদের ভেতরে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

দীর্ঘ আট বছর পর জিম্বাবুয়ে সফরে তিন ফরম্যাটে খেলতে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল বর্তমানে জিম্বাবুয়েতে অবস্থান করছে। হারারেতে ঈদ আজ না আগামীকাল, গত পরশু দুপুর পর্যন্তও সেটা নিশ্চিত জানা ছিল না বাংলাদেশ দলের। পরে অবশ্য দ্বিধাদ্বন্দ্বটা দূর করে দিয়েছেন জিম্বাবুয়ে দলের মুসলিম ক্রিকেটার সিকান্দার রাজা। বাংলাদেশের মতো জিম্বাবুয়েতেও ঈদ হচ্ছে আজ। আর গতকাল জিম্বাবুয়েকে ধবলধোলাই করেই এসেছে ঈদ উৎসবের আনন্দ, ঈদের খুশি। একটি পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে এখন সে দেশেই অবস্থান করছে বাংলাদেশ দল। দেশে পরিবার পরিজন, আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব, পাড়া প্রতিবেশির সঙ্গে ঈদ করা হয়নি এর আগেও। ২০১৯ সালে গত ওয়ানডে বিশ্বকাপে টাইগার ক্রিকেটাররা ইংল্যান্ডে অবস্থান করছিলেন। অবশ্য সেসময় করোনা ছিল না। তাই তারা মসজিদেই গিয়েই নামাজ আদায় করতে পেরেছিলেন. কিন্তু খুব সম্ভবত এবার জিম্বাবুয়ে ঈদ উল আজহার নামাজ সম্ভবত মসজিদ বা ঈদগাহে গিয়ে আদায় করা হবে না ক্রিকেটারদের।

হোটেল এবং মাঠ ছাড়া কোথাও যেতে পারবেন তামিম ইকবালরা। আর সেটা সঙ্গত করোনার বিধি নিষেধের কারণেই। করোনা প্রটোকলে বাংলাদেশের আসলে টিম হোটেল ও মাঠ ছাড়া অন্য কোথাও যাওয়ার সুযোগ নেই। এছাড়া ঈদের আগের দিনই ছিল সফরের তৃতীয় ওয়ানডে। তাই সকালবেলাই মাঠে চলে যেতে হয়েছে টাইগারদের। জিম্বাবুয়ে সফরে টিম বাংলাদেশ লিডার আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি এ তথ্য জানিয়ে বলেন, এখানে (হারারেতে) জৈব সুরক্ষা বলয়ে আমাদের যেখানে সেখানে যাওয়ায় আছে কড়া নিষেধাজ্ঞা। আমরা টিম হোটেল আর মাঠের বাইরে কোথাও যেতে পারব না। তাই মসজিদে গিয়ে ঈদের নামাজ পড়ার সুযোগ নেই।

নানা বিধিনিষেধ ও শঙ্কার মধ্যে ঈদ উদযাপন করছে দেশবাসী। প্রতি বছরের মতো এবারও দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। ঈদের নামাজ পড়ে ঘরের মধ্যে থেকেই পরিবারের সঙ্গে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাও। শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীম, সাকিব আল হাসানরা।