ঢাকা, শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Bangla Insider

রেকর্ডের ম্যাচে রোনালদোর গোল, তবুও হার

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ বুধবার, ১০:৫৮ এএম
রেকর্ডের ম্যাচে রোনালদোর গোল, তবুও হার

চ্যাম্পিয়নস লিগ ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড় রোনালদোকে কেন বলা হয়, সেই দাবির সপক্ষে আরও এক যুক্তি দিলেন এই পর্তুগিজ তারকা। সুইস ক্লাব ইয়ং বয়েজের বিপক্ষে ম্যাচের ১৩ মিনিটের সময়ই স্কোরশিটে নাম তোলেন রোনালদো। যার সুবাদে চ্যাম্পিয়নস লিগে তার গোলসংখ্যা বেড়ে হয় ১৩৫টি। চ্যাম্পিয়নস লিগে সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ড আগে থেকেই তার।

প্রতিপক্ষ ইয়াং বয়েজের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে দীর্ঘ ১২ বছর পর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জার্সি গায়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলতে নেমেছিলেন রোনালদো। আর এতেই হয়ে গেছে চ্যাম্পিয়নস লিগে সর্বোচ্চ ১৭৭টি ম্যাচ খেলার রেকর্ড। রিয়াল মাদ্রিদের কিংবদন্তি স্প্যানিশ গোলরক্ষক ইকার ক্যাসিয়াস অবসর নেয়ার আগে চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলেছেন ১৭৭ ম্যাচ। মঙ্গলবার সেই রেকর্ড ছুঁয়েছেন রোনালদো। পরের ম্যাচেই ক্যাসিয়াসকে ছাড়িয়ে যাবেন তিনি।

তবে রোনালদোর রেকর্ডের এই রাতে হাসিমুখে মাঠ ছাড়তে পারেনি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। উলটো ২-১ গোলে হেরে বসেছে তাঁরা। ম্যাচের ১৩ মিনিটে স্বদেশি ব্রুনো ফার্নান্দেসের সহায়তায় ইউনাইটেডের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ পুনরাভিষেকে রোনালদো গোল পেলেও ৬৬ মিনিটে গোল শোধ করে দেন ইয়ং বয়েজের ক্যামেরুনিয়ান উইঙ্গার নিকোলাস এনগামালেউ। ম্যাচের একদম শেষ মুহূর্তে এসে গোল করে পাশার দান পালটে দেন যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্রাইকার জর্ডান সিবাতচু। ফলে, এক পয়েন্টও জোটেনি রোনালদোদের কপালে।

তবে ম্যাচ হারের পেছনে নিজেকে দোষ দিতেই পারেন ইউনাইটেডের ইংলিশ রাইটব্যাক অ্যারন ওয়ান-বিসাকা। ৩৫ মিনিটে তিনি লাল কার্ড দেখে মাঠ না ছাড়লে হয়তো প্রায় এক যুগ পর ইউনাইটেডের জার্সি গায়ে চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলতে নেমে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তেন রোনালদো।

ইয়াং বয়েজের বিপক্ষে গোলটি করার মাধ্যমে প্রথম ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগের ভিন্ন দুই আসরের প্রথম গোল করার রেকর্ড গড়েছেন রোনালদো। এর আগে ২০০৯-১০ আসরে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে করেছিলেন আসরের প্রথম গোল। সেদিন এফসি জুরিখকে ৫-২ গোলে হারায় রিয়াল।