ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

বিশ্বে করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত কমলো

প্রকাশ: ০৮:১০ এএম, ২৪ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail বিশ্বে করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত কমলো

বিশ্বজুড়ে চলমান করোনা মহামারিতে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা আরও কমেছে। একইসঙ্গে আগের দিনের তুলনায় কমেছে নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সাড়ে ৪ হাজারের বেশি মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা নেমে এসেছে পৌনে ২২ লাখের নিচে।

আজ সোমবার (২৪ জানুয়ারি) সকালে ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪ হাজার ৬২৭ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে দেড় হাজারের বেশি। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৫৬ লাখ ১৪ হাজার ৫১২ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে ফ্রান্সে। অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে রয়েছে রাশিয়া। প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি, মেক্সিকো, ব্রাজিল ও কলম্বিয়া। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩৫ কোটি ১৯ লাখের ঘর। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৫৬ লাখ ১৪ হাজার।
 
একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২১ লাখ ৬৬ হাজার ৯১৬ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে প্রায় সাড়ে ৬ লাখ। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫ কোটি ১৯ লাখ ৯১ হাজার ৯৫৯ জনে।

করোনা   মৃত্যু   শনাক্ত   বিশ্ব  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর মধ্যে নতুন মাদক সুড়ঙ্গপথের সন্ধান


Thumbnail আমেরিকা ও মেক্সিকোর মধ্যে নতুন মাদক সুড়ঙ্গপথের সন্ধান

মেক্সিকোর টিজুয়ানা থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সান দিয়েগোর পর্যন্ত ১৭৭৪ ফুট (৫৩১ মিটার) দীর্ঘ মাদক সুড়ঙ্গপথের সন্ধান পাওয়া গেছে। এই সুড়ঙ্গপথে রেললাইন, বিদ্যুৎ ব্যবস্থা এবং অবাধে বায়ু চলাচলের ব্যবস্থা রয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে বিবিসি। 

মাদক সুড়ঙ্গপথটি আবিষ্কার করার আগে থেকেই মার্কিন কর্তৃপক্ষ কোকেন চোরাচালানের জন্য আগে ব্যবহৃত একটি সম্পত্তির উপর নজরদারি চালাচ্ছিল। 

সুড়ঙ্গ পথটি আবিষ্কার করার পর মাদক পাচারের অভিযোগে ছয়জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে কোকেন, মেথামফেটামিন ও হেরোইন জব্দ করা হয়েছে। 

যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমের দক্ষিণাঞ্চল ক্যালিফর্নিয়ার  আইন প্রয়োগকারী সংস্থা থেকে জানিয়েছে সুড়ঙ্গটির গভীরতা ৬১ ফুট (১৮ মিটার) এবং ব্যাস ৪ ফুট (১ মিটার)।

মার্কিন প্রসিকিউটররা বলেছেন যে, সুড়ঙ্গটি আবিষ্কারের আগে, অফিসাররা ১৩ মে শুক্রবার টিজুয়ানা থেকে বেশ কয়েকটি গাড়ি আসতে এবং যেতে দেখেছিল। তাদের সন্দেহ হলে গাড়িগুলো থামিয়ে তল্লাশি করার পরে মাদক জব্দ করা হয় এবং পাচারকারীদের গ্রেপ্তার করা হয়।

অফিসাররা গুদামে প্রবেশ করার পরে আন্তঃসীমান্ত সুড়ঙ্গের প্রস্থান পয়েন্ট আবিষ্কার করেন। এরপরে সেখান থেকে ৭৯৯ কেজি কোকেন, ৭৪ কেজি মেথামফেটামিন, এবং ১.৫ কেজি হেরোইন জব্দ করা করা হয়।

আইনপ্রয়োগকারী কর্মকতা জানান আটককৃত মাদক চোরাচালানকারীর বয়স আনুমানিক ৩১ থেকে ৫৫। এই কাজের সাথে তার সংশ্লিষ্টা প্রমাণিত হলে তার যাবতজীবন কারাদণ্ড এবং ১ মিলয়ন ডলার জড়িমানা হবে। 

"আমাদের দেশের রাস্তায় অবৈধ মাদক যাতে না পৌঁছায় এবং আমাদের পরিবার ও সম্প্রদায়কে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে আমরা এমন প্রতিটি ভূগর্ভস্থ চোরাচালানের পথ আমরা বন্ধ করে দেব”, বলেছেন আইনপ্রয়োগকারী কর্মকর্তা রান্ডি গ্রোসম্যান। 

এর আগে, ক্যালিফোর্নিয়ায় পাওয়া শেষ টানেলটির সন্ধান মিলেছিল ২০২০ সালে। এটি এখন পর্যন্ত দীর্ঘতম, যার দৈর্ঘ্য ৪৩০৯ ফুট (১৩১৩ মিটার)। ১৯৯৩ সাল থেকে, এই ধরণের ৯০ টি গোপন পথ আবিষ্কৃত হয়েছে।

সূত্রঃ বিবিসি


যুক্তরাষ্ট্র   মেক্সিকো   মাদক সুড়ঙ্গপথ   চোরাচালান   মাদকপাচার   আম্র  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

বিশ্ব খাদ্য সংকটের জন্য রাশিয়াকে দায়ী করলো জি-৭


Thumbnail বিশ্ব খাদ্য সংকটের জন্য রাশিয়াকে দায়ী করলো জি-৭

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্বজুড়ে খাদ্য ও জ্বালানী সংকট সৃষ্টি হয়েছে বলে বিবৃতি দিয়েছে মহাশক্তিধর সাত দেশের সম্মিলিত সংঘ জি-৭। তারা জানিয়েছেন বর্তমান বিশ্বে অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল দেশগুলোতে সৃষ্ট সংকট থেকে উত্তরণের জন্য রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ করার জন্য মস্কোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। 

বর্তমান বৈশ্বিক সংকটের জন্য রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধকে দায়ী করে জার্মানীর পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালীনা বায়েরবক গত শনিবার জি-৭ এর সম্মেলনে বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, "রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ না হলে আগত দিনগুলোতে আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের প্রায় ৫০ মিলিয়ন মানুষ ভয়াবহ খাদ্য সংকটের মুখোমুখি হবে।"

জি-৭ এর তিনদিন ব্যাপী সভায় এর নেতারা আগত দিনগুলোতে বৈশ্বিক সংকটের জন্য সবাইকে প্রস্তুত হতে বলেছেন এবং তাদের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। 

"রাশিয়ার আগ্রসী মনোভাব এই বৈশ্বিক সংকটের জন্য দায়ী। যা বিগত কয়েক দশকের সকল ভয়াবহতা অতিক্রম করবে এবং খাদ্য ও জ্বালানী সংকট সৃষ্টি করবে। এতে করে অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবে বিশ্বের দুর্বল অর্থনীতির দেশগুলোর জনগণ",  দাবী জি-৭ নেতৃবৃন্দের। 

কানাডার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেলানি জলি বলেছেন, "কানাডা বিশ্বের অন্যতম কৃষিজাত পণ্য রপ্তানিকারক দেশ, এই সংকট থেকে উত্তরণের জন্য ইউরোপিয়ান বন্দরগুলোতে জাহাজ পাঠতে প্রস্তুত।" তিনি আরও বলেন, "আমাদের এখনই এইসব সংকট সমাধান করা জরুরি, নইলে বিশ্বের শত শত কোটি মানুষ দুর্ভিক্ষের সম্মুখীন হবে।"

এর আগে গত শুক্রবার ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্র কুলেবা সামরিক সহযোহিতার জন্য ইউক্রেনের বন্ধু রাষ্ট্রদের আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেছেন, "তিনি ও তার সরকার রাশিয়ার সাথে বৈঠকে বসতে আগ্রহী, কিন্তু মস্কো থেকে ইউক্রেন কোন সারা পায়নি।" 

জার্মান চ্যান্সেলর ওলফ শলয এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, "পুতিন তার সামরিক লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হয়েছেন, এবং এই যুদ্ধে যতোধিক সৈন্য নিহত হয়েছে তা রাশিয়ার আফগানিস্তান যুদ্ধের থেকেও বেশি।"

"আশাকরি পুতিন ইতোমধ্যে বুঝতে পারছেন যে এই সংকট থেকে উত্তরণের একমাত্র উপায় ইউক্রেনের সাথে আলোচনা শুরু করে সমাধান করা", যোগ করেন শলয। 

এই যুদ্ধের সকল ক্ষয়ক্ষতির দায়ভার রাশিয়াকেই নিতে হবে জানিয়েছেন জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী বায়েরবক। তিনি আরও জানান যে, এই সকল ক্ষয়ক্ষতির জন্য রাশিয়াকে চরম মূল্য দিতে হবে।  



রাশিয়া-ইউক্রেন   জি-৭   খাদ্য সংকট   জ্বালানী   মস্কো   অর্থনীতি  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

সোমালিয়ায় ফিরছে মার্কিন সৈন্যবাহিনী

প্রকাশ: ০৪:১৮ পিএম, ১৭ মে, ২০২২


Thumbnail সোমালিয়ায় ফিরছে মার্কিন সৈন্যবাহিনী

সোমালিয়ার শান্তি রক্ষায় আবারও সৈন্য পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ২০২০ সালে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সোমালিয়া থেকে মার্কিন সৈন্য অপসরণ নীতি থেকে সরে এসে আবারও সেখানে সৈন্য পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন সরকার, এমনটাই জানানো হয়েছে পেন্টাগন থেকে। 

হাসান শেখ মাহমুদ, গত পড়শু সোমালিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হবার পর পরই এমন ঘোষণা আসে। সোমালিয়ায় দীর্ঘদিন থেকেই আল-সাবাব নামের একটি ইসলামী চরমপন্থি গোষ্ঠী দেশটির ক্ষমতা নিতে বিভিন্ন তৎপরতা চালিয়ে আসছিল। সোমালিয়ায় শান্তি ফিরিয়ে আনতেই এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।

২০২০ সালে সোমালিয়া থেকে ট্রাম্পের সৈন্য অপসারণের সময় বিশ্বের অনেক দেশই উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল। আমেরিকার নিরাপত্তা কমিশনের মুখপাত্র আদ্রিয়ানে ওয়াটসন বলেছেন, "পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে এবার নতুন করে কয়েক দফার আপাতাত ৫০০ সৈন্য মোতায়ন করা হবে।"

গত কয়েক দশক ধরেই দুর্বল রাষ্ট্রীয় কাঠামো এবং  অব্যবস্থাপনা, এবং দুর্ভিক্ষ সহ বিভিন্ন রকম সমস্যায় জর্জরিত সোমালিয়া। এখন দেখার বিষয় নতুন রাষ্ট্রপ্রধান দেশটি পুনর্গঠনে কি ভূমিকা রাখতে পারেন। 


সোমালিয়া   মার্কিন সৈন্যবাহিনী   শান্তি রক্ষা  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

রাশিয়ার সীমান্তের কাছে ন্যাটো জোটের মহড়া শুরু

প্রকাশ: ০৪:০৫ পিএম, ১৭ মে, ২০২২


Thumbnail রাশিয়ার সীমান্তের কাছে ন্যাটো জোটের মহড়া শুরু

রাশিয়া সীমান্তের কাছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো সামরিক জোটের বিশাল মহড়া শুরু হয়েছে। এস্তোনিয়ার ভূখণ্ডে শুরু হওয়া এই মহড়ায় আমেরিকা, ফিনল্যান্ড, সুইডেন, জর্জিয়া এবং ইউক্রেনসহ ১৪টি দেশ অংশ নিচ্ছে। 

সোমবার (১৬ মে) এই সামরিক মহড়া শুরু হয়। বাল্টিক দেশগুলোর ইতিহাসে এটি অন্যতম বড় সামরিক মহড়া। 

‘হেজহগ’ নামের এ মহড়ায় ন্যাটো জোটের সদস্য এবং তাদের মিত্র ১৪ দেশের ১৫ হাজার সেনা অংশ নিচ্ছে।

ফিনল্যান্ডের গণমাধ্যম জানিয়েছে, চলতি মহড়ায় সামরিক বাহিনীর সব শাখা অংশ নেবে এবং স্থল, সমুদ্র ও আকাশে মহড়া চালানো হবে। পাশাপাশি সাইবার ওয়ারফেয়ারের মহড়াও চলবে।

রুশ সীমান্ত থেকে মাত্র ৬০ কিলোমিটার দূরে এ মহড়া চলছে। তবে মহড়ার কমান্ডার ও এস্তোনিয়ার প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপপ্রধান মেজর জেনারেল ভিকো-ভেলো বলেন, ইউক্রেনে রাশিয়ার চলমান সামরিক অভিযানের সঙ্গে এই মহড়ার কোনো সম্পর্ক নেই।  

ন্যাটো জোটে যোগ দেয়ার বিষয়ে ফিনল্যান্ড ও সুইডেন আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেয়ার একদিন পর এই মহড়া শুরু হলো। সূত্র: পার্সটুডে

রাশিয়া   ইউক্রেন   ন্যাটো   যুক্তরাষ্ট্র  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ভারতে ১০ দিনের রিমান্ডে পি কে হালদার

প্রকাশ: ০৩:৫৭ পিএম, ১৭ মে, ২০২২


Thumbnail ভারতে ১০ দিনের রিমান্ডে পি কে হালদার

কয়েক হাজার কোটি টাকার আর্থিক প্রতারণা ও আত্মসাৎ ঘটনার হোতা প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পি কে হালদারের ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এখন পর্যন্ত ১৫০ কোটি টাকার সম্পত্তির সন্ধান পেয়েছে ইডি।

এর আগে তিন দিনের রিমান্ড শেষে আজ মঙ্গলবার (১৭ মে) কলকাতার ব্যাংকশাল আদালতে (স্পেশাল কোর্ট) তোলা হয় পি কে হালদারকে। এ সময় ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করে ইডি।

এদিন সকালে ইডির আঞ্চলিক দপ্তর সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্স থেকে পিকে হালদারকে নিয়ে যাওয়ার বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে। সেখানে মেডিকেল চেকআপ করে ফের ৯.৩০ নাগাদ সিজিও কমপ্লেক্স নিয়ে আসা হয়। এসময় গণমাধ্যমের কর্মীরা প্রশ্ন করলে একটি প্রশ্নেরও উত্তর দেননি পি কে।

১০ হাজার কোটি টাকা তছরুপের মামলার এই হাইপ্রোফাইল আসামি প্রায় ১০০ ঘণ্টার বেশি রয়েছেন এক পোশাকে। ইডি সূত্রে বলা হচ্ছে, তার নিকটাত্মীয় বা পরিচিত পরিচয়ে কেউ এগিয়ে এসে তার বা তার সাথীদের পোশাক দিতে আসেননি। তাই এক পোশাকেই তাদের দিন পার হচ্ছে।

গত শুক্রবার (১৩ মে) পশ্চিমবঙ্গের ১১টি জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালিয়ে পি কেসহ মোট ৬ জনকে আটক করা হয়। শনিবার দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের পরে তাদের হেফাজতে নেয় ইডি।

২০০২ সালের ‘প্রিভেনশন অফ মানি লন্ডারিং অ্যাক্ট’ (পিএমএলএ) এর অধীন গ্রেপ্তার হওয়া পি কে হালদার ছাড়াও অন্য নাগরিকরা হলেন প্রাণেশ কুমার হালদার, স্বপন মিত্র ওরফে স্বপন মিস্ত্রি, উত্তম মৈত্র ওরফে উত্তম মিস্ত্রি, ইমাম হোসেন ওরফে ইমন হালদার এবং আমানা সুলতানা ওরফে শারমিন হালদার। গ্রেপ্তারকৃত ৬ জনকেই রোববার পিএমএলএ' এর আওতাধীন বিশেষ আদালতে তোলা হলে ৫ জনকে ইডির রিমান্ডে নেয়া হয় একজনকে জেল হেফাজতে পাঠানো হয়। 


ভারতে ১০ দিনের রিমান্ডে পি কে হালদার  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন