ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ক্ষমতাসীনদের মধ্যে বাড়ছে মতবিরোধ, শাহবাজের জোটে ভাঙনের সুর

প্রকাশ: ১১:০০ এএম, ২৪ এপ্রিল, ২০২২


Thumbnail ক্ষমতাসীনদের মধ্যে বাড়ছে মতবিরোধ, শাহবাজের জোটে ভাঙনের সুর

পাকিস্তানের সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে এক প্রকার টেনেহিঁচড়েই তার প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে নামানো হয়। আলোচনা রয়েছে ইমরান খানকে তার পদ থেকে সড়ানো পেছনে যার ভূমিকার রয়েছে তিনি হলেন দেশটির প্রবীণ রাজনীতিবিদ মাওলানা ফজলুর রেহমান। ভিন্ন মতাদর্শে বিশ্বাসী কয়েকটি দলকে জোটবদ্ধ করে ইমরানকে ক্ষমতাচ্যুত করেন। দেশটির প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন মুসলিম লীগ নেতা শাহবাজ শরিফ। ইমরান খানকে ক্ষমতা থেকে সড়ানোর আন্দোলনে সফল হলেও এখন বেধেছে নতুন বিপত্তি। শাহবাজ ক্ষমতায় আসার পর থেকে ক্ষমতাসীন জোটে মতবিরোধ ক্রমেই বাড়ছে। শুরুতে সমস্যা ছিল মন্ত্রিত্ব নিয়ে, এখন নির্বাচনের দিনক্ষণ নিয়েও বেধেছে বিরোধ।

যদিও ইমরান খান ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার আগে থেকেই মধ্যবর্তী নির্বাচনের কথা বলে আসছিলেন। এখন ক্ষমতাসীন জোট পাকিস্তান ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট (পিডিএম)-এর প্রধান মাওলানা ফজলুর রেহমানও একই দাবি জানিয়েছেন। এ সপ্তাহে ইসলামাবাদে নিজের দল জমিয়াত উলেমা-ই-ইসলাম-ফজলুর (জেইউআই-এফ)-এর নেতাকর্মীদের উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে ফজলুর রেহমান বলেন, নতুন এই সরকার কোনোভাবেই এক বছরের বেশি চলা উচিত নয়। তার কথায়, নতুন এই সেটআপে জমিয়তে উলেমা-ই-ইসলামের নিজস্ব পরিচয় রয়েছে এবং তাদের (জোট অংশীদারদের) বলছি, আমরা এখনো অবিলম্বে নির্বাচন চাই।

ইমরান খানকে ইঙ্গিত করে ফজলুর রেহমান বলেন, যদিও তিনি চলে গেছেন এবং আমরা তাকে প্যাকিং করে পাঠিয়েছি, তবুও আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে জনগণের কাছে সেই আমানত ফিরিয়ে দেওয়া, যার জন্য আমরা এতদিন সংগ্রাম করেছি। নির্বাচনে সম্ভাব্য কারচুপি ও ভোটগ্রহণ ব্যবস্থা নিয়ে জোট শরিকদের মধ্যে আশঙ্কা দূর করতে প্রয়োজনীয় আইনি সংস্কারের প্রস্তাব দিয়েছেন জেইউআই-এফ প্রধান। তিনি বলেন, সুযোগের একটা সীমা থাকে। জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম অকারণে ক্ষমতা আকড়ে থাকবে না।

তবে ফজলুর রেহমানের এই দাবির সঙ্গে একমত নয় শাহবাজের সরকার তথা তার দল মুসলিম লিগ। শুক্রবার পাকিস্তানের নতুন তথ্যমন্ত্রী ও পিএমএল-এন নেতা মরিয়ম আওরঙ্গজেব বলেছেন, সরকারের মেয়াদ পুরোপুরি শেষ না হলে কোনো নির্বাচন নয়। গত ১৮ এপ্রিল মাওলানা ফজলুর রেহমান যখন মধ্যবর্তী নির্বাচনের দাবি বা পরামর্শ উপস্থাপন করেন, তার কয়েক ঘণ্টা পরেই নতুন মন্ত্রিসভা ঘোষণা করেন শাহবাজ শরিফ। তবে সেই মন্ত্রিসভা কেমন হবে, তা নিয়েও জোট শরিকদের মধ্যে মতবিরোধ দেখা গেছে।

মাওলানা ফজলুর শাহবাজের মন্ত্রিসভায় যোগ না দিলেও তার দল প্রেসিডেন্ট পদের দাবি জানায় এবং আওয়ামী ন্যাশনাল পার্টি (এএনপি) ও স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মহসিন দাওয়ারকে একটি করে মন্ত্রণালয় দেওয়ার পরিকল্পনায় ক্ষোভপ্রকাশ করে। মাওলানা ফজলুর রেহমান ক্ষমতাসীন জোটের অন্যতম প্রধান শরিক পিপিপির কো-চেয়ারপারসন আসিফ আলি-জারদারিকে নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করেন এবং যেসব দল বা ব্যক্তি জেইউআই-এফের বিরুদ্ধে নির্বাচনে লড়েছে তাদের কেন দুটি মন্ত্রণালয় দেওয়া হয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

এর আগে মিত্র সব দলের ব্যবস্থা না হওয়া পর্যন্ত পিপিপি নতুন মন্ত্রিসভায় যোগ দেবে না বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন জারদারি।

সূত্র: ডন

পাকিস্তান   ইমরান খান   মাওলানা ফজলুর রেহমান   শাহবাজ শরিফ  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ইউক্রেনের জন্য অস্ত্র কিনবে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশ: ০৯:২৭ পিএম, ২৭ Jun, ২০২২


Thumbnail ইউক্রেনের জন্য অস্ত্র কিনবে যুক্তরাষ্ট্র

ইউক্রেনের জন্য চলতি সপ্তাহে উন্নত প্রযুক্তির মাঝারি থেকে দূরপাল্লার সারফেস-টু-এয়ার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার ঘোষণা দিতে পারে যুক্তরাষ্ট্র।

সোমবার ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে-ইউক্রেনকে সহায়তা করার জন্যই যুক্তরাষ্ট্র এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কেনার ঘোষণা দিতে যাচ্ছে। 

ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর চাহিদা মেটাতে ওয়াশিংটন ইউক্রেনের জন্য গোলাবারুদ এবং কাউন্টার-ব্যাটারি রাডারসহ অন্যান্য নিরাপত্তা সহায়তা ঘোষণা করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

দিকে, রাশিয়ার দখলকৃত ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডের বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে মার্কিন রকেট ব্যবস্থা আঘাত হানছে বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা। এর আগেও রুশ সেনা অভিযানে আক্রান্ত ইউক্রেনে সামরিক সহায়তা অনুমোদন করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। 


ইউক্রেন   যুক্তরাষ্ট্র   অস্ত্র   রাশিয়া   যুদ্ধ   সাহায্য  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

সু চি'র মুক্তির জন্য আহ্বান জানিয়েছে আসিয়ান জোট

প্রকাশ: ০৮:১০ পিএম, ২৭ Jun, ২০২২


Thumbnail সু চি'র মুক্তির জন্য আহ্বান জানিয়েছে আসিয়ান জোট

শান্তিতে নোবেলজয়ী গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চিকে কারাগার থেকে মুক্তি দিতে মিয়ানমারের সেনা সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর জোট আসিয়ান। সোমবার (২৭ জুন) জোটটির মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূত ও কম্বোডিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রাক সোখন এ আহ্বান জানান। খবর রয়টার্সের

কম্বোডিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, তাঁদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রাক সোখন আগামী বুধবার থেকে মিয়ানমারে দ্বিতীয় সফর শুরু করবেন। ১০ সদস্যবিশিষ্ট আসিয়ানের সঙ্গে জান্তা সরকারের শান্তি প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকারের অংশ হিসেবে এ সফর হবে।

গত বছর সেনা অভ্যুত্থানের পর আটক হন সু চি। কমপক্ষে ২০টি অপরাধের ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে বিচার শুরু হয়। সু চি তাঁর বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। ৭৭ বছর বয়সী এ নেত্রীকে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রাখা হয়েছে।

মিয়ানমারের জান্তা বরাবর লেখা এক চিঠিতে সুচির প্রতি কৃপা করার অনুরোধ জানিয়েছেন প্রাক সোখন। তিনি লিখেছেন, ‘দেশকে স্বাভাবিকতায় ফিরিয়ে নিতে এবং শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক সমাধানের মধ্য দিয়ে জাতীয় সমন্বয় প্রতিষ্ঠায় অং সান সু চি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। আর তা মিয়ানমারের অনেকের কাছে ও আন্তর্জাতিকভাবে সমাদৃত।’

চিঠিতে তিনি আরও লিখেছেন, এক পক্ষকে বাদ দিয়ে সফল শান্তি প্রক্রিয়া সম্ভব নয়। যত জটিলই হোক না কেন, সংঘাতের শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক সমাধান জরুরি। এ প্রক্রিয়ায় যুক্ত সবাইকে নিজেদের রাজনৈতিক ক্ষেত্র থেকে কথা বলার সুযোগ দিতে হবে।

এর আগে মার্চে মিয়ানমার সফর করেন প্রাক সোখন। তাঁর এ সফরকে ব্যর্থ বলে উল্লেখ করেছিলেন অধিকারকর্মীরা। তাঁদের অভিযোগ, সোখন জান্তার পক্ষে কথা বলেছেন এবং বিরোধীদের এড়িয়ে গেছেন। সোখন বলেছিলেন সমালোচনার জায়গাটি তিনি বুঝতে পারছেন।


সু চি   আসিয়ান   মিয়ানমার   জান্তা সরকার   মুক্তি  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ইরান-ভেনেজুয়েলার তেল বাজারে চায় ফ্রান্স

প্রকাশ: ০৭:৫৫ পিএম, ২৭ Jun, ২০২২


Thumbnail ইরান-ভেনেজুয়েলার তেল বাজারে চায় ফ্রান্স

ইউক্রেনে হামলার পর রাশিয়ার ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে পশ্চিমা বিশ্ব। তাই প্রতিশোধ নিতে রাশিয়া এরই মধ্যে ইউরোপে জ্বালানি সরবরাহ কমিয়েছে। তাছাড়া চলতি বছরের মধ্যে রাশিয়ার ওপর জ্বালানি নির্ভরশীলতা সম্পূর্ণভাবে কমাতে চায় ইউরোপের দেশগুলো। এমন পরিস্থিতিতে ইউরোপজুড়ে জ্বালানি সংকট তীব্র হচ্ছে। তাই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া ইরান ও ভেনেজুয়েলার তেল বাজারে চায় ফ্রান্স।

ফরাসি প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেছেন, মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ইরান ও ভেনেজুয়েলা থেকে অপরিশোধিত তেল বাজারে ফিরে আসতে দেওয়া উচিত। এজন্য দেশ দুইটির ওপর যুক্তরাষ্ট্র যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তা উঠিয়ে দেওয়া উচিত বলেও জানান তিনি।

ওই কর্মকর্তা বলেন, সরবরাহের বৈচিত্র্যকরণ, মূল্য নির্ধারণের বিষয়ে সব উৎপাদকদের সঙ্গে আলোচনা ও তেলের উৎপাদন বৃদ্ধি ভোক্তা ও ব্যবসার ওপর চাপ কমাতে সাহায্য করবে।

এদিকে ইউক্রেনে আগ্রাসনের পর বিশ্বে খাদ্য ও জ্বালানি সংকটের কারণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন রাশিয়ার বিরুদ্ধে জি-৭ নেতাদের এক সঙ্গে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। রোববার (২৬ জুন) সম্মেলনে অংশ নিয়ে তিনি এ আহ্বান জানান।

জার্মানির ব্যাভারিয়ান আল্পসে বৈঠকের শুরুতে, সাতটি ধনী দেশের মধ্যে চারটি দেশ রাশিয়ার স্বর্ণ আমদানি নিষিদ্ধ করার কথা জানায়।

সূত্র: ব্লুমবার্গ 


ইরান   ভেনেজুয়েলা   তেল   বানিজ্য   ফ্রান্স  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

জর্ডানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে গুলি করে হত্যার পরে অভিযুক্তের আত্মহত্যা

প্রকাশ: ০৫:৫৯ পিএম, ২৭ Jun, ২০২২


Thumbnail জর্ডানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে গুলি করে হত্যার পরে অভিযুক্তের আত্মহত্যা

জর্ডানের একটি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে গত বৃহস্পতিবার একজন নারী শিক্ষার্থীকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এ নিয়ে দেশটিতে ব্যাপক জন অসন্তুষ্টি তৈরি হয়।

রোববার (২৬ জুন) পুলিশ ওই আততায়ীকে ঘিরে ফেললে অভিযুক্ত ব্যক্তি নিজেই নিজের মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে। পরবর্তীতে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

আরব নিউজের খবরে বলা হয়েছে, অভিযুক্ত আত্মহত্যাকারীর নাম খালেদ আবদাল্লাহ হাসান। জর্ডানের রাজধানী আম্মানের এপ্লাইড সায়েন্স বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ইমান রসিদকে (২১) গুলি করে হত্যা করেন তিনি। আমান রসিদ বিশ্ববিদ্যালয়ের নার্সিং বিভাগের  শিক্ষার্থী ছিলেন।

পুলিশ এক বিবৃতিতে বলেছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হত্যায় অভিযুক্ত আবদাল্লাহকে বালামা শহরে অবস্থানের বিষয় শনাক্ত করে। ওই জায়গা ঘিরে ফেলা হলে তাকে অস্ত্রসহ পাওয়া যায়। পুলিশ তাকে আত্মসমর্পণের আহ্বান জানায়। কিন্তু সে সবাইকে অবাক করে নিজের মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে।


জর্ডান   বিশ্ববিদ্যালয়   ছাত্রী   হত্যা   আত্মহত্যা   মধ্যপ্রাচ্য  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ইউক্রেনে সক্রিয় পশ্চিমা কমান্ডোদের গোপন সেল

প্রকাশ: ০৪:০৪ পিএম, ২৭ Jun, ২০২২


Thumbnail ইউক্রেনে সক্রিয় পশ্চিমা কমান্ডোদের গোপন সেল

রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ পরিচালনার ক্ষেত্রে পশ্চিমা গোয়েন্দা সংস্থা এবং কমান্ডোদের একটি গোপন সেল ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীকে সহযোগিতা করছে। দৈনিক নিউ ইয়র্ক টাইমস এ খবর দিয়েছে।

নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদন অনুসারে মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ এবং বিদেশি কমান্ডোদের একটি চক্র ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে সক্রিয় রয়েছে। এই বাহিনীতে আমেরিকা, কানাডা, বৃটেন, ফ্রান্স ও লিথুয়ানিয়ার কমান্ডো ও গোয়েন্দারা রয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এসব দেশের অবসরপ্রাপ্ত এবং নিয়মিত কমান্ডো এবং গোয়েন্দা সদস্যরা অংশ নিচ্ছে।

কমান্ডো ও গোয়েন্দা সেলের একটি অংশ ইউক্রেনে সক্রিয় রয়েছে এবং আরেকটি অংশ ইউক্রেনের বাইরে ব্রিটেন, জার্মানি এবং ফ্রান্সের মতো দেশে তৎপর রয়েছে। এই সেলের সদস্যরা ইউক্রেনের সেনাবাহিনী এবং গোায়েন্দাদেরকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে এবং পশ্চিমা দেশগুলোর সর্বাধুনিক অস্ত্র ব্যবহারের উপযোগী করে তুলছে। পাশাপাশি ইউক্রেনের গোয়েন্দাদেরকে প্রশিক্ষণ দিয়ে আরো বেশি উপযুক্ত করে তুলছে।

এর আগে ওয়াশিংটন দাবি করেছিল যে, ইউক্রেনের মাটিতে আমেরিকার কোনো সেনা নেই। কিন্তু নিউ ইয়র্ক টাইমসের এই প্রতিবেদন অনুসারে, ওয়াশিংটনের ওই দাবি মিথ্যা বলে প্রমাণিত হচ্ছে। সূত্র: পার্সটুডে

রাশিয়া   ইউক্রেন   যুক্তরাষ্ট্র   ইইউ  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন