ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

জ্বালানি সাশ্রয় করতে বাতিল হলো শ্রীলঙ্কায় পার্লামেন্ট অধিবেশন

প্রকাশ: ১১:০৩ এএম, ২৪ Jun, ২০২২


Thumbnail জ্বালানি সাশ্রয় করতে বাতিল হলো শ্রীলঙ্কায় পার্লামেন্ট অধিবেশন

বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ সংকটে জ্বালানী আমদানিতে ব্যর্থ হওয়ায় দিন দিন আরো খারাপ অবস্থায় এগুচ্ছে শ্রীলঙ্কা। চরম জ্বালানী সংকটে দেশটিতে বিদ্যুৎ-ঘাটতি এখনো চরমে। এমন পরিস্থিতিতে জ্বালানি সাশ্রয়ের জন্য চলতি সপ্তাহের পার্লামেন্ট অধিবেশন বাতিল করেছে শ্রীলঙ্কার আইনপ্রনেতারা।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) দেশটির কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন।

জ্বালানি ব্যবহার কমাতে গতকাল পার্লামেন্টের কর্মকর্তারা বলেন, অহেতুক জ্বালানি ব্যবহার বন্ধে গতকাল ও আজ শুক্রবারের নির্ধারিত পার্লামেন্টে অধিবেশন বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আইনপ্রণেতারা। এর কয়েক দিন আগে জ্বালানি ব্যবহার কমাতে কিছু এলাকার স্কুল ও কিছু সরকারি অফিস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

দেশটির জ্বালানিমন্ত্রী কাঞ্চন উইজেসেকেরা বলেছেন, বৃহস্পতিবার জ্বালানির একটি চালান দেশে আসার কথা ছিল। কিন্তু তা এসে পৌঁছায়নি। এই পরিস্থিতিতে ভ্রমণে জ্বালানি ব্যবহার কমাতে গাড়ির মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

শ্রীলঙ্কা কয়েক মাস ধরে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ সংকটে রয়েছে। এ কারণে দেশটির আমদানিকারকেরা খাদ্য, জ্বালানি ও ওষুধ আমদানি করতে পারছেন না। এর ফলে খাদ্যসংকট যেমন রয়েছে, তেমনি রয়েছে প্রয়োজনীয় ওষুধের সংকট। ফলে সাধারণ মানুষের জীবনযাপন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে।

এদিকে দেশটির আর্থিক সংকট নিয়ে বুধবার আবারও সতর্কবার্তা উচ্চারণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে। তিনি বলেছেন, ‘শ্রীলঙ্কার অর্থনীতি পুরোপুরি ভেঙে পড়ার দ্বারপ্রান্তে রয়েছে। আমরা এখন আরও খারাপ পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছি।’


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সীমান্তে করোনা বিধিনিষেধ বাড়াল কানাডা

প্রকাশ: ০৭:৩২ পিএম, ৩০ Jun, ২০২২


Thumbnail ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সীমান্তে করোনা বিধিনিষেধ বাড়াল কানাডা

করোনা প্রকোপের কারণে বিদেশি যাত্রীদের জন্য চলতি বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সীমান্ত বিধিনিষেধ বর্ধিত করেছে কানাডা।
বুধবার (২৯ জুন) এক বিবৃতিতে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যেসব বিদেশি যাত্রী কানাডা সরকারের অনুমোদিত যে কোনো করোনা টিকার দুই ডোজ সম্পূর্ণ করেছেন, তারা বিনা বাধায় দেশটিতে প্রবেশ করতে পারবেন। আর যারা টিকা নেননি বা টিকার ডোজ সম্পূর্ণ করেননি, তাদেরকে কানাডার বিমানবন্দরে নামার পরপরই বাধ্যতামূলক টেস্ট করাতে হবে।

টিকা নেওয়া যাত্রীদের বিমানবন্দরে টেস্টের পাশাপাশি ১৪ দিন বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের পর অষ্টম দিনে আবারও করাতে হবে টেস্ট।

বিদেশি যাত্রীদের জন্য ‘অ্যারাইভ সিএএন’ নামে একটি অ্যাপ চালু করেছে কানাডার সরকার। এ বিষয়ে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কানাডায় প্রবেশের ৭২ ঘণ্টা আগে এই অ্যাপ নিজেদের মোবাইলে ইনস্টল করতে হবে প্রত্যেক বিদেশি যাত্রীকে এবং সেখানে যেসব প্রশ্ন রয়েছে, সেসবের যথাযথ উত্তর দিতে হবে।

বিমান পরিষেবা সংস্থাগুলোর দাবিতে গত ১১ জুন বিমানবন্দরে বাধ্যতামূলক করোনা টেস্টের বিধি উঠিয়ে নিয়েছিল কানাডার সরকার। আগামী ১৫ জুলাইয়ের পর থেকে আবারও সেই নিয়ম চালু করা হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে বিবৃতিতে।

কানাডার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জিন-ইউভেস ডুক্লোস বলেন, ‘আমাদের স্মরণে রাখা উচিত, মহামারি এখনও বিদায় নেয়নি। বিশ্বজুড়েই যেহেতু করোনা সংক্রমণ বাড়ছে, তাই এই ভাইরাস থেকে নিজের এবং অন্যদের সুরক্ষার স্বার্থে প্রয়োজনীয় বিধিনিষেধের প্রয়োজনও ফুরিয়ে যায়নি। করোনা সংক্রমণ ও তার ছড়িয়ে পড়া রোধে তাই সরকার আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিধিনিষেধ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

২০২০ সালে মহামারি শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত কানাডায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৩ কোটি ৯৩ লাখ ৩৫ হাজার ৬০৯ জন এবং কোভিডজনিত অসুস্থতায় এ পর্যন্ত দেশটিতে ‍মৃত্যু হয়েছে ৪১ হাজার ৯০৪ জনের।

কানাডা   করোনা   বিধিনিষেধ   সীমান্ত  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ভারতে ভূমিধসে নিহত ৫৫

প্রকাশ: ০৬:৫০ পিএম, ৩০ Jun, ২০২২


Thumbnail ভারতে ভূমিধসে নিহত ৫৫

ভারতের মনিপুর রাজ্যে ভূমিধসে ৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। 

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) স্থানীয় সময় দুপুর ২টার দিকে এই ভূমিধসের ঘটনা ঘটে। প্রবল বর্ষণ ও তার ফলে সৃষ্ট ভূমিধসে ইতোমধ্যে ৭ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে, ধ্বংসস্তুপে চাপা পড়া বাকিদের মৃতদেহ উদ্ধারে তৎপরতা চালাচ্ছেন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

প্রত্যন্ত পাহাড়ি এই জেলার যে এলাকায় ভূমিধস হয়েছে, সেটি জেলার  ও জঙ্গলাকীর্ণ এলাকা এবং সেখানে রেলপথ নির্মাণ কাজ চলছিল বলে জানিয়েছেন জেলার ম্যাজিস্ট্রেট হাউলিয়ানলাল গুইতে। 

ভূমিধসের পর ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলের দিকে রওনা হলেও প্রবল বৃষ্টি ও ঝড়ো আবহাওয়ার কারণে তাদের পৌঁছাতে কিছু বিলম্ব হয়। ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে ১৯ জনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করেছেন বলে রয়টার্সকে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি জানিয়েছেন, ‘যখন ভূমিধস ঘটে, সেসময় সেখানে ৮১ জন ছিল। এখন পর্যন্ত ১৯ জনকে জীবিত ও ৭ জনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি যে ৫৫ জন রয়েছে, তাদের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা খুবই কম।’

চলতি মাসে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় ৭ প্রদেশ (সেভেন সিস্টার্স) ও বাংলাদেশে অস্বাভাবিক পর্যায়ের বর্ষণ হয়েছে। আবহাওয়াবিদদের মতে, ২০২২ সালের জুন মাসে যে পরিমাণ বৃষ্টি হয়েছে বিগত কোনো বছরে এই মাসে এত বৃষ্টিপাত দেখা যায়নি।

ইতোমধ্যে প্রবল বর্ষণ, বন্যা ও ভূমিধসে সেভেন সিস্টার্স ও বাংলাদেশে দেড় শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। হতাহতদের লোকালয়ে আনতে সামরিক বাহিনীর হেলিকপ্টার মোতায়েন করা হয়েছে। 

এদিকে, ভারতের প্রতিরক্ষা বাহিনীর উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শাখা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ননি জেলার ওই এলাকায় আরও ভূমিধসের শঙ্কা রয়েছে এবং ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সঙ্গে প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যরাও উদ্ধার তৎপরতায় যোগ দিয়েছে।

ভারত   মনিপুর   ভুমিধস  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

রেকর্ড দরপতনে ডলারের বিপরীতে ৭৯ তে নামলো ভারতীয় রুপি

প্রকাশ: ০৬:০৩ পিএম, ৩০ Jun, ২০২২


Thumbnail রেকর্ড দরপতনে ডলারের বিপরীতে ৭৯ তে নামলো ভারতীয় রুপি

মার্কিন ডলারের বিপরীতে রেকর্ড পরিমাণ দর কমে ৭৯ রুপিতে নামলো ভারতীয় মুদ্রার মান। বুধবার (২৯ জুন) টানা ছয় সেশনে সর্বকালের সর্বনিম্ন রেকর্ড গড়ে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো প্রতি ডলারের বিপরীতে ৭৯ রুপির নিচে নেমেছে ভারতীয় মুদ্রা। সূত্র: এনডিটিভি

বুধবার (২৯ জুন) লেনদেনের শুরুতে প্রতি ডলারের বিপরীতে ভারতীয় রুপির মান ছিল ৭৮ দশমিক ৮৬। কিন্তু দিনশেষে আরও ১৮ পয়সা কমে এর মান দাঁড়ায় ৭৯ দশমিক ০৩ রুপি, যা ভারতীয় মুদ্রার ক্ষেত্রে সর্বকালের নতুন সর্বনিম্ন রেকর্ড। এমনকি লেনদেনের একপর্যায়ে মার্কিন মুদ্রার বিপরীতে ভারতীয় রুপির মান ৭৯ দশমিক ০৫-এ নেমে গিয়েছিল, যা এবারই প্রথম। মঙ্গলবার (২৮ জুন) ৪৮ পয়সা কমে ডলারের বিপরীতে ভারতীয় মুদ্রার মান দাঁড়িয়েছিল রেকর্ড ৭৮ দশমিক ৮৫ রুপিতে। এই ধারাবাহিকতায় বুধবার (২৯ জুন) টানা ছয় সেশনে দর পতনের নতুন রেকর্ড গড়লো দেশটি। 

অর্থনীতিবিদদের একাংশ মনে করছেন, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে জ্বালানিপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি এবং যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক সুদের হার বাড়ানোর কারণে ভারতীয় রুপির দরপতন ঘটছে। অবশ্য শুধু ভারতেরই নয়, এশিয়ার প্রায় সব দেশের মুদ্রার মানই বর্তমানে নিম্নমুখী। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, এমনকি চীন-জাপানের মুদ্রারও অবমূল্যায়ন ঘটেছে।

এইচডিএফসি সিকিউরিটিজের বিশ্লেষক দিলীপ পারমার পিটিআই’কে বলেছেন, অদূর ভবিষ্যতে ভারতীয় রুপির জন্য তেমন কোনো সুখবর নেই। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে এর মান আরও কমে ৭৯ দশমিক ১০ রুপি দেখা যেতে পারে।

রুপির দরপতন ঠেকাতে সম্প্রতি হস্তক্ষেপ করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তবে বাজার বিশ্লেষকদের বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলেছে, রুপির দরপতন ঠেকাতে রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার (আরবিআই) নীতি পরিবর্তন করা দরকার। তাদের মতে, আরবিআইর নীতি রুপির দরপতনকে আরও ত্বরান্বিত করছে।

ভারত   রুপি   দরপতন  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ইউক্রেনের স্নেক দ্বীপ থেকে সেনা প্রত্যাহার রাশিয়ার

প্রকাশ: ০৪:২২ পিএম, ৩০ Jun, ২০২২


Thumbnail ইউক্রেনের স্নেক দ্বীপ থেকে সেনা প্রত্যাহার রাশিয়ার

ইউক্রেনের স্নেক দ্বীপ থেকে সেনা সরিয়ে নিয়েছে রাশিয়া এমনটাই জানিয়েছে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। 

ইউক্রেন কর্তৃপক্ষও রাশিয়ার সেনা প্রত্যাহারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। দেশটির প্রেসিডেন্টের কার্যালয় জানিয়েছে, স্নেক দ্বীপে এখন আর কোনো রুশ সেনা নেই। 

রুশ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ‘ভালো আচরণ হিসেবে রাশিয়া আজ পরিপূর্ণভাবে স্নেক দ্বীপ থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নিয়েছে।’

খাদ্য সরবরাহ নির্বিঘ্ন করতে স্নেক দ্বীপ থেকে সেনা প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। 

এদিকে রুশ সেনা প্রত্যাহারের ঘটনায় ইউক্রেনীয় সেনাদের কৃতিত্বের কথা জানিয়েছে ইউক্রেন প্রশাসন। কয়েকদিন ধরে দ্বীপটিকে রক্ষার চেষ্টা করেছিল ইউক্রেনের সেনাবাহিনী। রুশ সৈন্য প্রত্যাহারের জন্য ইউক্রেন সরকার সব কৃতিত্ব দিয়েছে ইউক্রেন সেনাদের।

ইউক্রেন   স্নেক দ্বীপ  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

চীনকে হুমকি হিসাবে দেখছে ন্যাটো

প্রকাশ: ০৪:০৪ পিএম, ৩০ Jun, ২০২২


Thumbnail চীনকে হুমকি হিসাবে দেখছে ন্যাটো

প্রথমবারে মতো চীনকে নিরাপত্তা হুমকি হিসেবে আখ্যা দিয়েছে ন্যাটো। চীনের জবরদস্তিমূলক নীতি ও ‍উচ্চাভিলাষের জন্য পশ্চিমা এই সামরিক জোট চীনকে তাদের কৌশলগত তালিকায় জায়গা দিয়েছে।

মাদ্রিদের ন্যাটো সম্মেলন থেকে প্রকাশিত একটি তালিকায় দেখা গেছে, রাশিয়াকে শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য প্রত্যক্ষ ও গুরুত্বপূর্ণ হুমকি হিসেবে আখ্যা দিয়েছে ন্যাটো।

অন্যদিকে, তাইওয়ানের সাথে সংঘাতের কারণে চীনকেও  সামরিক উচ্চাভিলাষী ও কৌশলগত হুমকি হিসেবে উল্লেখ করেছে ন্যাটো। ন্যাটো মহাসচিব জেনস স্টোলেনবার্গ বলেন, ‘পরমাণু অস্ত্র, প্রতিবেশীদের হেনস্তা, তাইওয়ানকে হুমকি দেওয়াসহ চীন তাদের সামরিক শক্তি ক্রমাগত বাড়িয়ে চলেছে। এছাড়াও নিজেদের নাগরিকদেরও নজদারির মতো কর্মকাণ্ড ও নিয়ন্ত্রণ করে চীন। সাথে রাশিয়ার মতো চীনও মিথ্যা তথ্য ছড়ায়।’ 

ন্যাটো মহাসচিব আরও বলেন, ‘চীন আমাদের প্রতিপক্ষ নয় কিন্তু আমরা চীনের সৃষ্টি করা চ্যালেঞ্জকে গুরুত্বের সাথেই চোখ রাখছি।’


সূত্র: আল জাজিরা


ন্যাটো   চীন   রাশিয়া   আমেরিকা   বিশ্বরাজনীতি  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন