ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

৬ হাজার ইউক্রেনীয় সেনার আত্নসমর্পনের দাবি রাশিয়ার

প্রকাশ: ০৯:৪৪ পিএম, ৩০ জুন, ২০২২


Thumbnail ৬ হাজার ইউক্রেনীয় সেনার আত্নসমর্পনের দাবি রাশিয়ার

ইউক্রেনের ছয় হাজারের বেশি সৈন্য আত্মসমর্পণ করেছে বলে দাবি করেছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। সংবাদমাধ্যম রিয়া নোভোস্তি নিউজ এজেন্সির সূত্রে বলা হয়েছে, ইউক্রেনে ছয় হাজারের বেশি সেনা আত্মসমর্পণ করেছেন বা বন্দি হয়েছেন।

ইউক্রেন জানিয়েছে, দেশটির ১৪৪ সেনাকে মুক্তি দিয়েছে রাশিয়া। ওই সেনাদের দেশে ফেরানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, ইউক্রেনের ১৪৪ সেনাকে মুক্তি দেওয়ার বিষয়টি প্রেসিডেন্ট পুতিনের সরাসরি আদেশে হয়েছে।

এদিকে ইউক্রেনকে আরও ১২০ কোটি ডলার বা ১০০ কোটি পাউন্ড সামরিক সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে যুক্তরাজ্য। দেশটিতে রাশিয়ার হামলা প্রতিহত করতে ড্রোন এবং বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার জন্য এই সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।

ডাউনিং স্ট্রিট এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, নতুন এই সহায়তার ফলে এখন পর্যন্ত ইউক্রেনকে ব্রিটেনের পক্ষ থেকে মোট সহায়তা দেওয়া হচ্ছে ২৩০ কোটি পাউন্ড। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা চালায় রাশিয়া। তারপর থেকে এখন পর্যন্ত দেশটিতে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে ব্রিটেন।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, অত্যাধুনিক বিমান প্রতিরক্ষাব্যবস্থা, ক্রুবিহীন আকাশযান, নতুন যুদ্ধ সরঞ্জাম এবং ইউক্রেনের সৈন্যদের জন্য কয়েক হাজার গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন সামরিক সহায়তা এই প্যাকেজের অন্তর্ভুক্ত।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, এটি ব্রিটেনের পক্ষ থেকে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ, যার মাধ্যমে ইউক্রেনকে বীরত্বপূর্ণ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় সহায়তা করবে, যেন তারা রুশ সৈন্যদের হাত থেকে নিজেদের ভূখণ্ডকে রক্ষা করতে পারে।  

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলার পর থেকে এখন পর্যন্ত হাজার হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। এছাড়া আরও কয়েক লাখ মানুষ দেশ ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়েছে।

ইউক্রেন   আত্মসমর্পণ   রাশিয়া  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে সামরিক ঘাঁটি বানিয়েছে রাশিয়া

প্রকাশ: ১১:১৩ এএম, ০৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে সামরিক ঘাঁটি বানিয়েছে রাশিয়া

ইউক্রেনের দক্ষিণ–পূর্বাঞ্চলে জাপোরিঝঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটি রুশ সেনাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ইউক্রেনের অভিযোগ, এ কেন্দ্রটি এখন সামরিক ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহার করছে রাশিয়া। এখান থেকে ইউক্রেনীয় সেনা ও সামরিক স্থাপনা লক্ষ্য করে হামলা চালানো হচ্ছে। খবর বিবিসির।

ইউক্রেনের পারমাণবিক বিদ্যুৎ কোম্পানির প্রধান পেত্রো কোতিন রোববার বিবিসিকে জানান, বিদ্যুৎকেন্দ্রটিতে প্রায় ৫০০ রুশ সেনা অবস্থান করছেন। রুশ সেনারা সেখান থেকেই ইউক্রেনীয় সেনাদের ওপর রকেট ছুড়ছেন।

এ বিষয়ে পেত্রো কোতিন বলেন, ‘রুশ সেনারা পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটিকে সামরিক ঘাঁটি বানিয়ে ফেলেছেন। সেখান থেকে হামলা চালাচ্ছেন। তবে ইউক্রেনের সেনারা এমনটা করতে অপারগ। কেননা তাঁরা জানেন, এটা তাঁদের নিজস্ব অবকাঠামো, রাষ্ট্রীয় সম্পদ। তাই তাঁরা নিজেদের সম্পদ নষ্ট করতে ও নিজেদের কর্মীদের ঝুঁকিতে ফেলতে চান না।’

ইউক্রেনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের এনারহোদার শহরে জাপোরিঝঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটি অবস্থিত। এটি ইউরোপের সবচেয়ে বড় পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে। ইউক্রেনের এক-চতুর্থাংশ বিদ্যুৎ এ কেন্দ্র থেকে সরবরাহ করা হয়ে থাকে। গত মার্চ থেকে জাপোরিঝঝিয়া পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র ও এর আশপাশের এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রেখেছে রাশিয়া। তবে সেখানকার ইউক্রেনীয় কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

কয়েকদিন ধরে ওই এলাকায় হামলা–পাল্টা হামলার খবর পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রুশ বাহিনী ওই এলাকায় বেসামরিক মানুষের ওপর হামলা অব্যাহত রেখেছে। এমনকি রাশিয়ার হামলায় বিদ্যুৎকেন্দ্রটির একটি অংশও ‘গুরুতর ক্ষতিগ্রস্ত’ হয়েছে। তবে রুশ কর্তৃপক্ষ এসব দাবি অস্বীকার করেছে।

পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের আশপাশে হামলা–পাল্টা হামলার ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছে আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা (আইএইএ)। সংস্থাটির পক্ষ থেকে সতর্ক করে বলা হয়েছে, এসব হামলার ঘটনা ইউক্রেনকে পারমাণবিক বিপর্যয়ের চরম ঝুঁকিতে ফেলেছে। যেকোন সময় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। তাই পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটির আশপাশে সামরিক কার্যক্রম অবিলম্বে বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে আইএইএ।


রাশিয়া   ইউক্রেন   ক্ষেপনাস্ত্র   যুদ্ধ   পুতিন   জেলেনস্কি   ইউরোপ  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

বৃষ্টিপাতে দক্ষিণ কোরিয়ায় ৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশ: ১০:৪১ এএম, ০৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail বৃষ্টিপাতে দক্ষিণ কোরিয়ায় ৭ জনের মৃত্যু

দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে ও এর আশপাশে প্রবল বৃষ্টিতে কমপক্ষে সাতজন মারা গেছেন। এছাড়া বৃষ্টির কারণে সেখানকার অনেক এলাকা বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে এবং রাস্তা ও পাতাল রেল ডুবে গেছে।

দক্ষিণ কোরীয় কর্তৃপক্ষ মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) এই তথ্য সামনে এনেছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার রাতে সিউলের দক্ষিণ অংশে প্রতি ঘণ্টায় ১০০ মিমি এর বেশি বৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া শহরের কিছু অংশে ১৪১.৫ মিমি বৃষ্টি হয়েছে, যা কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ বৃষ্টিপাত বলে জানিয়েছে কোরিয়া আবহাওয়া প্রশাসন। 


দক্ষিণ কোরিয়া   বৃষ্টিপাত   আবহাওয়া   প্রানহানি  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

বিশ্বজুড়ে করোনায় ফের মৃত্যু বেড়েছে

প্রকাশ: ১০:৩৪ এএম, ০৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail বিশ্বজুড়ে করোনায় ফের মৃত্যু বেড়েছে

বিশ্বজুড়ে চলমান মহামারি করোনাভাইরাসে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে। তবে আগের দিনের তুলনায় কমেছে নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১২’শ জনের বেশি মানুষ। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৫ লাখের নিচে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে এশিয়ার দেশ জাপানে। অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে ল্যাতিন আমেরিকার ব্রাজিল। প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে জাপান, যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি, ফ্রান্স ও ইরান। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৫৮ কোটি ৯৮ লাখের ঘর। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬৪ লাখ ৩৮ হাজার।

মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ২২৭ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় সাড়ে চারশো। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৬৪ লাখ ৩৮ হাজার ২০ জনে।

একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৮৪ হাজার ৫৪৭ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে ৭০ হাজারের বেশি। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৮ কোটি ৯৮ লাখ ৯৫ হাজার ৭০১ জনে।

বিশ্বজুড়ে   করোনা  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

চীন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ: বাইডেন

প্রকাশ: ০৯:৩০ এএম, ০৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail চীন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ: বাইডেন

তাইওয়ান ঘিরে চীনের ক্রমবর্ধমান সামরিক পদক্ষেপ উদ্বেগের। তবে এটা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ‘চিন্তিত না’ বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

সোমবার সকালে সাংবাদিকদের প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেন, আমি চিন্তিত নই, কিন্তু তারা অনেক দ্রুত এগোচ্ছে এটা নিয়ে উদ্বিগ্ন। বাইডেন আরও বলেন, আমার মনে হয় না তারা (চীন) যা আছে (যা করেছে) তার চেয়ে বেশি কিছু করবে।

মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফর সুবিবেচনাপ্রসূত ছিল কিনা জানতে চাইলে বাইডেন বলেন, এটি ছিল তার (পেলোসি) সিদ্ধান্ত। 

বেইজিংয়ের হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে গত মঙ্গলবার তাইওয়ানের রাজধানী তাইপে বিশেষ সফরে যান মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। এর জেরে তাইওয়ানের চারপাশে বড় ধরনের সামরিক মহড়া শুরু করে চীন। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কয়েকটি ক্ষেত্রে সহযোগিতাও বাতিল করেছে চীন। এর মধ্যে গতকাল আবারও নতুন করে মহড়ার ঘোষণা দিয়েছে বেইজিং। মহড়া কতদিন চলবে এবং এর সুনির্দিষ্ট অবস্থান এখনও জানা যায়নি। 


সূত্র: সিএনবিসি


বাইডেন   চীন   উদ্বেগ   যুদ্ধ   অর্থনীতি  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

জেলে বসে ‘টাকা মাটি মাটি টাকা’ পড়বেন পার্থ

প্রকাশ: ০৮:৫২ এএম, ০৯ অগাস্ট, ২০২২


Thumbnail জেলে বসে ‘টাকা মাটি মাটি টাকা’ পড়বেন পার্থ

শ্রীরামকৃষ্ণ বলেছিলেন, টাকা মাটি, মাটি টাকা। অর্থাৎ অর্থই আসল সম্পদ নয়। এখন সেই রামকৃষ্ণের  বাণী পড়েই দিন কাটাতে চাইছেন অর্থ উদ্ধার কাণ্ডে অনর্থে জড়িয়ে পড়া পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি প্রাক্তন শিল্পমন্ত্রীও। কিন্তু এখন কারাবন্দি। আর সেই আঁধারে আলোর খোঁজে রামকৃষ্ণেই ভরসা রাখতে চাইছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। 

জেলে খাওয়া-ঘুম-খাওয়া ছাড়া বিশেষ কাজ নেই। মাঝে মধ্যে জেরা করতে এলে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) কর্মকর্তাদের একঘেয়ে প্রশ্নের উত্তর দেওয়া বা না দেওয়া। বাকি সময়টা ‘আধ্যাত্মচেতনা বাড়াতে চাইছেন পার্থ। তাই জেল কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করে আনিয়ে নিয়েছেন ‘শ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃত’।

সূত্রের খবর, রামকৃষ্ণ শরণ নিয়ে অমৃতের খোঁজের পাশাপাশি জেল জীবনে সাহিত্যেও ডুব দিতে চাইছেন প্রথমে অর্থনীতি ও পরে বিজনেস ম্যানেজমেন্টের ছাত্র পার্থ। তার ইচ্ছা শুনেই জেলে পার্থের জন্য পাঠানো হয়েছে ‘মহাশ্বেতা দেবী অমনিবাস’। ‘হাজার চুরাশির মা’ পড়বেন পার্থ। ‘স্তন্যদায়িনী’, ‘অরণ্যের অধিকার’ও পড়বেন। মহাশ্বেতার কলমে উঠে আসা লোধা, শবরদের নিয়ে পড়াশোনা করবেন।

ওই সূত্রের আরও দাবি, পার্থের সেই ইচ্ছার কথা জানতে পেরেই প্রেসিডেন্সি সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে দেওয়া হয়েছে সেই বই। তবে সেই বই পেয়ে পার্থ এখনও পড়া শুরু করেছেন কি না তা জানা যায়নি। যেমন জানা যায়নি, আবেদন করে আনানো খাতা, কলম ব্যবহার শুরু করেছেন কি না! তিনি কি নিজের রোজকার কথা লিখবেন? জেল-জীবনের কথা? না কি ফেলে আসা আলোয় আলোয় থাকা সময়টাই কাগজ-কালি-মন দিয়ে ধরে রাখবেন! সে কথা শুধু পার্থই জানেন।

অসহায় সময়ে রামকৃষ্ণের কাছে পার্থের আশ্রয় নেওয়ায় অবাক হওয়ার যদিও কিছু নেই। ছেলেবেলায় অন্তত কিছু দিনের জন্য তিনি লেখাপড়া করেছেন এমন এক পরিবেশে যেখানে কথামৃতের চর্চা ছিল। নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের প্রাক্তনী পার্থ অবশ্য পরবর্তী জীবনে পেশা হিসেবে বেছে নেন বেসরকারি সংস্থার মানবসম্পদ বিভাগের কর্মী। তবে লেখাপড়ার প্রতি তার টান বরাবরের বলেই জানা যায়। 

ঘনিষ্ঠজনরা বলেন, শুধু পড়ার প্রতি ঝোঁক নয়, নিজস্ব বইয়ের সংগ্রহও বেশ ভাল। দল তাকে মুখপত্র ‘জাগো বাংলা’-র সম্পাদক করে। আর পাঁচটা বন্দির মতোই পার্থের জেল-জীবন কাটছে বলে জেল সূত্রে জানা গিয়েছে। 

গত শুক্রবার পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে ইডির বিশেষ আদালত। তার পর থেকে আপাতত তার ঠিকানা প্রেসিডেন্সি সংশোধনাগারের এক নম্বর ব্লকের দু’নম্বর সেল। যেখানে ছোট একটা ফ্যান, কয়েকটা কম্বল তার সম্বল। অতিরিক্ত বলতে একটা খাট পেয়েছেন তিনি। তবে তার মধ্যেই জায়গা করে নেবে পছন্দের বই। খাতা, কলমও।


সূত্র: আনন্দ বাজার



পার্থ চট্টোপাধ্যায়   রামকৃষ্ণ  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন