কালার ইনসাইড

সত্যঘটনা অবলম্বনে নির্মিত এই ৫ টি ওয়েব সিরিজ দেখতে ভুলবেন না

প্রকাশ: ১০:০৭ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২


Thumbnail সত্যঘটনা অবলম্বনে নির্মিত এই ৫ টি ওয়েব সিরিজ দেখতে ভুলবেন না

বর্তমান সময়ে ওয়েব সিরিজের মাধ্যমে আমরা নতুন কিছু দেখার সুযোগ পাচ্ছি। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম অর্থাৎ ওটিটি প্ল্যাটফর্ম এমন একটি শক্তিশালী ঘাঁটিতে পরিণত হয়েছে যেখানে প্রতিটি পরিচালক এবং শিল্পী খোলামেলাভাবে ওয়েব সিরিজের মাধ্যমে তাদের প্রতিভা প্রদর্শন করতে পারছেন। এখানে সময়ের অভাব নেই আবার সেন্সর বোর্ডের ভয় নেই। OTT প্ল্যাটফর্মের এই সুবিধার পরিপ্রেক্ষিতে, দেশে এমন অনেক ওয়েব সিরিজ প্রকাশিত হয়েছে যা সত্য ঘটনা অবলম্বনে তৈরি হয়েছে। এই অনলাইন সিরিজগুলির বড় সুবিধা হল তারা জনসাধারণের কাছে কুখ্যাত এবং জনপ্রিয় গল্প কাহিনির অজানা দিকগুলো দর্শকদের সামনে তুলে ধরা যায়। নোংরা রাজনীতি এবং জঘন্য অপরাধ থেকে শুরু করে জালিয়াতির গল্প এই ডিজিটাল ওয়েব সিরিজের মাধ্যমে প্রতিটি মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায়। আজকের এই পোস্টে আপনাদের এরকমই বাস্তব ঘটনার উপর ভিত্তি করে তৈরি কিছু ওয়েব সিরিজের তালিকা সম্পর্কে জানাবো।

Delhi Crime

দিল্লির নির্ভয়া গণধর্ষণ কান্ডের কথা ভোলা মনে হয় কারোর পক্ষেই সম্ভব নয়। এই নৃশংস ঘটনা গোটা দেশে তোলপাড় সৃষ্টি করেছিল। দেশবাসী নির্ভয়ার ন্যায়বিচার পেতে ঐক্যবদ্ধ হয়েছিল। Delhi Crime ওয়েব সিরিজ একই গণধর্ষণ মামলার উপর ভিত্তি করে তৈরি। এই সিরিজটিতে, নির্ভয়ার সাথে ঘটে যাওয়া ভয়াবহতা এবং তারপরে তার ন্যায়বিচারের যাত্রা দেখানো হয়েছে৷ এই ওয়েবসিরিজটিতে, শেফালি শাহ একজন পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন যার সাথে আদিল হুসেন, রাজেশ তাইলাং এবং রসিকা দুগ্গালকেও এই ওয়েবসিরিজে দেখা গেছে।

আপনারা Netflix এ Delhi Crime দেখতে পারবেন৷

SCAM 1992

SCAM 1992 -The Harshad Mehta Story একজন ভারতীয় স্টক ব্রোকারের গল্প। এই ওয়েব সিরিজটি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে আসার সাথে সাথে রাতারাতি সাফল্য পেয়েছে। এই সিরিজটি হর্ষদ মেহতার বাস্তব গল্পের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে, একটি নাম যেটি 90 এর দশকে ভারতীয় স্টক মার্কেটে আবির্ভূত হয়েছিল, যেখানে একটি নিম্ন মিডিয়া ক্লাস থেকে একজন গুজরাটি ছেলের বিলিয়নেয়ার হওয়ার যাত্রা এবং ইন্টারেস্টিং ভাবে এই যাত্রায় সরকারের সাথে প্রতারণা করার দিকটিও দেখানো হয়েছে।

Scam 1992 – The Harshad Mehta Story, SonyLiv-এ দেখা যাবে।

Jamtara

প্রথমেই বলে রাখি Jamtara হল ঝাড়খণ্ড রাজ্যের একটি শহর এবং এই শহরের ছেলেদের দ্বারা সংঘটিত কেলেঙ্কারিগুলি এই ওয়েব সিরিজে দেখানো হয়েছে। ওটিটি প্ল্যাটফর্মে প্রকাশিত এই ওয়েব সিরিজটিতে Phishing এর মতো অনলাইন হ্যাক এবং জালিয়াতির কাহিনি উপস্থিত রয়েছে। 2014 থেকে 2018 সাল পর্যন্ত, Jamtara সত্যিই একটি Phishing হাব হয়ে উঠেছিল এবং এই ওয়েব সিরিজে দেখানো হয়েছে যে কীভাবে লোকেদের ফোন করে তাদের ব্যাঙ্কিং এর ডিটেলস নিয়ে নেওয়া হয় আর অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা বের করে নেওয়া হয়। এই সিরিজে সাইবার ক্রাইমের সত্য ঘটনা দেখা যাবে।

আপনারা Jamtara – Sabka Number Ayega, Netflix এ দেখতে পারবেন৷

Mumbai Diaries 26/11

26/11 ভারতের ইতিহাসে এমন একটি অন্ধকার দিন ছিল, যেদিন সমুদ্রপথে দেশে প্রবেশকারী কিছু ছেলে সমগ্র ভারতকে নতজানু করে দিয়েছিল। মুম্বাই সন্ত্রাসী হামলার ক্ষোভ এখনও আমাদের হৃদয়ে। OTT প্ল্যাটফর্মের এই ওয়েব সিরিজটি দেখলে আপনাদের একদিন যন্ত্রণা হবে অন্যদিকে ভয় লাগবে। 26 নভেম্বর 2008-এ জঙ্গিরা মুম্বাইয়ের বোম্বে জেনারেল হাসপাতালে প্রবেশ কলে কী ঘটেছিল? এই মেডিকেল ড্রামা সিরিজটি সেই হাসপাতালে উপস্থিত ডাক্তার, নার্স, স্টাফ এবং রোগীদের নিয়ে তৈরি । সিরিজটিতে তাজমহল প্যালেস হোটেলের হাইজ্যাকও দেখানো হয়েছে।

মুম্বাই ডায়েরি 26/11 অ্যামাজন প্রাইম ভিডিওতে দেখা যাবে।

Queen

প্রথমে একজন অভিনেতা এবং তারপর একজন রাজনীতিবিদ হওয়া দক্ষিণ ভারতের বিখ্যাত রানী জয়ললিতার জীবনের উপর ভিত্তি করে তৈরি। এই ওয়েবসিরিজটিতে জয়ললিতার চলচ্চিত্র সিনেমা জগত থেকে রাজনীতি পর্যন্ত সমস্ত দিক দেখানো হয়েছে। পুরুষশাসিত সমাজে নিজের অধিকার ও স্বপ্নের জন্য লড়াই করে জয়ললিতা কীভাবে কোটি কোটি মানুষের প্রিয় হয়ে উঠেছিলেন, এই সিরিজে সেই সব কিছু ঘটনাই দেখানো হয়েছে। জানিয়ে দেওয়া যাক বাহুবলী ছবিতে শিবগামীর ভূমিকায় অভিনয় করা রাম্যা কৃষ্ণন এও সিরিজে জয়ললিতা হয়েছেন।

MX প্লেয়ারে দেখা যাবে ‘Queen’ ।


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

‘আস্থার আস্তানা’য় মাহি, স্বামী রকিবের বিস্ফোরক মন্তব্য

প্রকাশ: ১০:৫৪ পিএম, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪


Thumbnail

সম্প্রতি বিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের ‘অগ্নিকন্যা’ খ্যাত নায়িকা মাহিয়া মাহি। বিচ্ছেদের ঘোষণা দেয়ার কিছুদিনের যেতে না যেতেই আস্থার জায়গা খুঁজেছেন এই নায়িকা। এবার যেন আস্থার জায়গা খুঁজে পেলেন মাহি।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে কয়েকটি ছবি শেয়ার করেছেন মাহি। ক্যাপশনে চিত্রনায়িকা লিখেছেন, ‘আস্থার আস্তানা।’

এরপরই বিষয়টি নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন তার স্বামী রকিব সরকার। আস্থার আস্তানায় সীসা সাজানো থাকে বলে মন্তব্য তার।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) নিজের ফেসবুকে সন্তান ফারিশের সঙ্গে একটি ছবি প্রকাশ করেছেন রকিব। সেখানে লিখেছেন, ‘আস্থা…! শব্দটির সাথে যখন ডিক্লেয়ারেশন ইস্যু যুক্ত হয় তখন তার সাথে সাথে বিশ্বাস,নির্ভরতা ছাড়াও গভীরে অনেকগুলো সমার্থকের উপস্থিতি উপলব্ধি হওয়া খুবই প্রাসঙ্গিক।

মাহির আস্থার আস্তানায় মাদক দ্রব্য সেবন করা হয় ইঙ্গিত দিয়ে তিনি লেখেন, ভয়ংকর রাতে আস্থার আস্তানায় সাজানো শীসা। তার সদস্যদের সবাই দেখল। ওই আস্তানার প্রধান ফটোগ্রাফীর অজুহাতে আড়ালেই রয়ে গেল। সপ্তাহ-দশদিনে তো আর এমন আস্থা অর্জন করা সম্ভব না।

সবশেষে সন্তান ফারিশের উদ্দেশে রকিব লিখেছেন, সবাই একই রকম ভাগ্য নিয়ে দুনিয়ায় আসে না বাবা। ইনশাআল্লাহ তোমার জন্য বাবাই যথেষ্ট ফারিশ।

মাহিয়া মাহি  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

১০ বছর বয়সে গেয়ে ৫১ টাকা পুরস্কার পেয়েছিলেন পঙ্কজ উদাস

প্রকাশ: ০১:২০ পিএম, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪


Thumbnail

ছোটবেলা থেকেই গানের প্রতি ঝোঁক ছিল খ্যাতনামা গজল গায়ক পঙ্কজ উদাসের। ভারত-চীন যুদ্ধের সময় তার বয়স ১০ বছর। তখন এক অনুষ্ঠানে প্রথমবার সংগীত পরিবেশনের সুযোগ পান পঙ্কজ। তার গানে মুগ্ধ হয়ে শ্রোতারা তাকে ৫১ টাকা পুরস্কার দেন।

‘অ্যায় মেরে ওয়াতন কে লোগো’ গানটি চীন-ভারত যুদ্ধে নিহত শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতেই তৈরি করেছিলেন কবি প্রদীপ ও সংগীত পরিচালক শ্রী রামাচন্দ্র। সেই গান বছর দশকের বালকের কণ্ঠে শুনে মুগ্ধ হন উপস্থিত শ্রোতারা।

পঙ্কজ উদাস ভারতের গুজরাটে জন্মগ্রহণ করেন। মূলত গজল গায়ক হিসেবে তিনি ব্যাপক পরিচিতি পান। ১৯৮০ সালে ‘আহত’ শিরোনামের গজল অ্যালবাম প্রকাশের মাধ্যমে তিনি তার সংগীত দুনিয়ায় পা রাখেন।

তার সঙ্গীত জীবনের বিস্তার চার দশকেরও বেশি সময়। ৮০'র দশককে মুগ্ধ করে রেখেছিলেন পঙ্কজ। ‘চান্দি জ্যায়সা রঙ্গ’, ‘না কাজরে কি ধার’, ‘দিওয়ারো সে মিল কর রোনা’, ‘আহিস্তা’, ‘থোড়ি থোড়ি প্যার করো’, নিকলো না বেনাকাব’— পঙ্কজ উদাসের গাওয়া অসাধারণ সব গজল আজও শ্রোতাদের মনের রসদ। ‘নশা’, ‘পয়মানা’, ‘হসরত’, ‘হামসফর’-এর মতো বেশ কয়েকটি বিখ্যাত অ্যালবামও রয়েছে তার ঝুলিতে।

ছয় দশকের সুরের সফরে দেশ-বিদেশের একাধিক সম্মানে ভূষিত হয়েছেন পঙ্কজ উদাস। ২০০৬ সালে ভারত সরকার তাঁকে পদ্মশ্রী সম্মানেও ভূষিত করে। তবে সবচেয়ে বড় পুরস্কার হয়তো শ্রোতাদের কাছের মানুষ হয়ে ওঠা। গান ছিল যে সম্পর্কের বন্ধন। মনে রাখতে হবে, জগজিৎ সিংয়ের পরে পঙ্কজ উদাস সেই শিল্পী, যিনি গজলকে সাধারণ শ্রোতাদের মধ্যে জনপ্রিয় করে তুলেছিলেন। দশ বছর বয়সে চিন-ভারত যুদ্ধের প্রেক্ষাপটে যে প্রতিভার বিস্ফোরণ, তার অন্ত হল ৭২ বছর বয়সে। কিংবদন্তি গজলসম্রাটের গানের চিঠি চিরকাল বুকে করে রাখবেন শ্রোতারা।

উল্লেখ্য, খ্যাতনামা গজল গায়ক পঙ্কজ উদাস মারা গেছেন। ২৬ ফেব্রুয়ারি বেলা ১১টার দিকে একটি হাসপাতালে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি।



পঙ্কজ উদাস   খ্যাতনামা গজল গায়ক  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

শাকিলা জাফরের ছেলের সঙ্গে নন্দিতার বাগ্‌দান

প্রকাশ: ০৮:৫৩ এএম, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪


Thumbnail

দেশের স্বনামধন্য সংগীতশিল্পী শাকিলা জাফরের ছেলের সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয়েছে সংগীতশিল্পী সানজিদা মাহমুদ নন্দিতার। এরই মাঝে সম্পন্ন হয়েছে বাগ্‌দান।

সম্প্রতি অনামিকা আঙুলে আংটি পরা একটি ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করে নন্দিতা লিখেছেন, ‘এই আংটি পেলাম।’

বিয়ের খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করলেও বিয়ের পাত্রের পরিচয় প্রকাশ করেননি নন্দিতা। তবে জানা গেছে, জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী শাকিলা শর্মার একমাত্র ছেলে মুফরাতের সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয়েছে নন্দিতার। আগামী ১ মার্চ ঘরোয়া আয়োজনে তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।

মুম্বাইয়ের প্রকৌশলী রবি শর্মাকে দ্বিতীয় বিয়ে করার পর দেশের প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী শাকিলা জাফর তার নাম পরিবর্তন করে শাকিলা শর্মা হন। তার প্রথম স্বামী মান্না জাফরের ঘরে রয়েছে একমাত্র সন্তান মুফরাত জাফর। তার সঙ্গেই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন সংগীত শিল্পী নন্দিতা।  

ফরিদপুরের বাসিন্দা নন্দিতা মুন্সিগঞ্জে পড়াশোনা করেন। আহসানুল্লাহ ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজিতে থাকাকালীন, নন্দিতা ২০১৩ সালে ‍‍‘বাংলাদেশ আইডল‍‍’ রিয়েলিটি শোতে অংশ নিয়ে শীর্ষ  দশ থেকে সপ্তম স্থান অধিকার করেছিলেন।


দেশ   স্বনামধন্য   সংগীত  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

একটা আস্থার জায়গা হলেই চলবে : চিত্রনায়িকা মাহি

প্রকাশ: ০৯:২৭ পিএম, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪


Thumbnail

রাজনীতি কিংবা চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের মতো ব্যক্তিজীবনও খুব একটা ভালো যাচ্ছে না চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির। সংসার জীবনে অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদ করে রাকিব সরকারের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন তিনি।

সম্প্রতি হঠাৎ করেই ফেসবুকে এক ভিডিও পোস্ট করে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন নায়িকা। জানান, তারা আলাদা থাকছেন এবং বিচ্ছেদ চান। এরপর থেকেই সোশ্যালে প্রায়ই একাকিত্ব নিয়ে পোস্ট করেন মাহি।

সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে এক পোস্টে মাহিয়া মাহি লিখেন, ‘একটা আস্থার জায়গা হলেই চলবে, একটা মানুষের মতো মানুষ হলেই চলবে, একটুখানি যত্ন নিও ছেলে।’

নায়িকার এমন পোস্ট দেখে অবাক না হলেও অনেকেই ভাবছেন, সম্পর্ক থেকে বের হতে না হতেই নতুন জীবনসঙ্গী খুঁজছেন হয়তো।


এদিকে বিচ্ছেদের খবর প্রকাশ্যে আসার পর মাহির স্বামী রাকিব জানান, তিনি সব কিছু অবজার্ভ (পর্যবেক্ষণ) করছেন। ভিডিও বার্তা প্রকাশের মাধ্যমে সময় নিয়ে তাঁর অবস্থান পরিষ্কার করবেন।


চিত্রনায়িকা   মাহিয়া মাহি  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

মারা গেছেন জনপ্রিয় গজল শিল্পী পঙ্কজ উদাস

প্রকাশ: ০৫:৫৩ পিএম, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪


Thumbnail

ভারত তথা উপমহাদেশীয় অঞ্চলের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী পঙ্কজ উদাস মারা গেছেন। সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এক পোস্টে মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করেছেন এই গায়কের কন্যা নায়াব উদাস। দীর্ঘদিন ধরে গায়ক নানা ধরনের অসুস্থতায় ভুগছিলেন।

ভারতের গুজরাটে জন্মগ্রহণ করেন জনপ্রিয় বর্ষীয়ান গজলশিল্পী পঙ্কজ উদাস। ১৯৮০ সালে ‘আহত’ শিরোনামের গজল অ্যালবাম প্রকাশের মাধ্যমে তিনি তার সংগীত দুনিয়ায় যাত্রা শুরু করেন।

‘চান্দি জ্যায়সা রং’, ‘না কাজরে কি ধার’, ‘দিওয়ারো সে মিল কর রোনা’, ‘আহিস্তা’, ‘থোড়ি থোড়ি প্যার করো’, নিকলো না বেনাকাব’—পঙ্কজ উদাসের গাওয়া অসাধারণ সব গজল আজও শ্রোতাদের মনের রসদ। ‘নশা’, ‘পয়মানা’, ‘হসরত’, ‘হামসফর’-এর মতো বেশ কয়েকটি বিখ্যাত অ্যালবামও রয়েছে তার ঝুলিতে।

বাংলা ‘গোলাপ ঠোটে রঙিন হাসি’, ‘চোখে চোখ রেখে’, ‘তোমার চোখেতে ধরা’ ইত্যাদি গান জনপ্রিয়তা পেয়েছে।


গজল শিল্পী   পঙ্কজ উদাস  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন