কালার ইনসাইড

‘ভারতীয় বলে একের পর এক বাধার সম্মুখীন’, হলিউডে ‘বৈষম্য’ নিয়ে সরব প্রিয়ঙ্কা

প্রকাশ: ০৯:২৯ এএম, ১৯ মার্চ, ২০২৩


Thumbnail

দেশ ও ভাষার গণ্ডি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক তারকা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। বর্তমানে হলিউডে চুটিয়ে কাজ করছেন তিনি। সেখানে ‘কোয়ান্টিকো’ দিয়ে হাতেখড়ি। তারপর ‘বেওয়াচ’, ‘দ্য ম্যাট্রিক্স রেজারেকশন্স’-এর মতো ছবিতে কাজ করেছেন প্রিয়াঙ্কা। 

এবার মার্ভেল খ্যাত রুশো ব্রাদার্সের সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন দেশি গার্ল। কল্পবিজ্ঞান ও স্পাই থ্রিলারের মিশেলে তৈরি সিরিজ ‘সিটাডেল’। বহুভাষী এই সিরিজে মুখ্য চরিত্রে দেখা যেতে চলেছে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে। আগামী এপ্রিলেই ওটিটি প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেতে চলেছে এই সিরিজ। ‘সিটাডেল’-এর হাত ধরে হলিউডের প্রথম সারির তারকাদের তালিকায় ঢুকে পড়েছেন প্রিয়াঙ্কা। তবে এই টেবিলে জায়গা পেতে মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হয়েছে তাকে, জানালেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। প্রথম দিকে হলিউডে এসে বৈষম্যের সম্মুখীনও হয়েছেন তিনি, এক অনুষ্ঠানে খোলাসা করেন তিনি।

হলিউডে পা রাখার আগে গোটা বিশ্বে ভারতীয় অভিনেত্রী বলেই পরিচিত ছিলেন প্রিয়াঙ্কা। ভারতীয় অভিনেত্রী বলে তিনি নাকি একটি বিশেষ অঞ্চলের দর্শকের কাছেই গ্রহণযোগ্য। হলিউডে এসে প্রথম দিকে নাকি এই ভাবনার শিকার হতে হয়েছে তাকে। 

কীভাবে বদল এল সেই ধারণায়? প্রিয়াঙ্কা জানান, অনেক পরিশ্রম করে, একাধিক অডিশন দিয়ে প্রযোজক ও পরিচালকদের ভরসা অর্জন করেছেন তিনি। সঙ্গে প্রিয়াঙ্কা বলেন, “স্ট্রিমিং অনেকটা এই আঞ্চলিক ধারণা বদলাতে সাহায্য করেছে। স্ট্রিমিং আসার পরে শিল্পের বিশ্বায়ন জরুরি হয়ে পড়েছিল। ‘ভারতীয় অভিনেত্রী বলে আমার দক্ষতা সীমাবদ্ধ’, স্ট্রিমিং আসার পরে এই চিন্তার বদল ঘটেছে।”

প্রিয়াঙ্কার মতে, তার সহশিল্পীরাও একইভাবে নিজেদের ‘কমফোর্ট জোন’ থেকে বেরিয়ে অনবরত বিভিন্ন ধরনের কাজ করেছেন, যাতে গোটা বিশ্বের দর্শকের কাছে শিল্পী হিসেবে তাদের গ্রহণযোগ্যতা বাড়ে।

স্ট্রিমিংয়ের যুগে বিশ্বায়নের সৌজন্যে নতুন মঞ্চ পেয়েছেন বহু শিল্পী। আঞ্চলিকতার সীমানা ছাড়িয়ে গোটা বিশ্বের দর্শকের কাছে পৌঁছে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছেন তারা। তবে এই বিশ্বায়ন সবে শুরু, আগামী দিনে বিনোদনের জগতে আরও অন্তর্ভুক্তি দেখা যাবে বলে আশা প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার।


প্রিয়াঙ্কা চোপড়া   হলিউডে বৈষম্য  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

ঈদের দিন শাহরুখের বাড়ির সামনে লাখো ভক্তের ঢল

প্রকাশ: ১০:২০ এএম, ১২ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

প্রতি বছর ঈদে শাহরুখ খানের মুম্বাইয়ের বাড়ির বাইরে জড়ো হন ভক্তরা। প্রিয় অভিনেতাকে সামনে থেকে দেখার জন্য বাড়ির সামনে ভিড় জমান তারা। শাহরুখও তাদের মনের আশা পূরণ করেন।

প্রতি ঈদেই দেখা দেন ভক্তদের। এ বছরও এর বিপরীত ঘটেনি। সেই পুরনো স্টাইলেই হাত নাড়িয়ে ভক্তদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার ( ১১ এপ্রিল ) ঈদের বিকেলে বরাবরের মতো হাজির হলেন শাহরুখ। মান্নাতের বারান্দায় পেতে রাখা ছাদে হাজির হলেন শ্বেত শুভ্র পাঞ্জাবি গায়ে। ততক্ষণে মান্নাতের সামনে লাখো মানুষ সমবেত হয়েছেন। পুরো রাস্তায় তিল ধারণের জায়গা নেই। সমাবেশস্থলে হাজির হয়েছেন লাখো জনতা।

শাহরুখ এলেন হাত নাড়িয়ে ভক্তদের ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন। একপর্যায়ে উঠে পড়েন পেতে রাখা ছাদের রেলিংয়ে, ছুঁড়ে দিলেন চুমু। ভক্তদের ঈদ পূর্ণতা পেল যেন প্রিয় নায়কের ছুঁড়ে দেওয়া ভালোবাসায়।


ঈদ   শাহরুখ খান   বাড়ি   লাখো ভক্তের ঢল  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

ঈদে মিশা সওদাগরের আবেগঘন পোস্ট

প্রকাশ: ১০:০৬ পিএম, ১১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

ঈদ মানেই আনন্দ, ঈদ মানেই খুশি। সারা দেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হচ্ছে আজ। সাধারণ মানুষদের পাশাপাশি এদিন ব্যস্ত সময় পার করছেন তারকারাও। পিছিয়ে নেই ঢালিউডের দাপুটে অভিনেতা মিশা সওদাগর। ইতোমধ্যে সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে একটি আবেগঘন পোস্ট দিয়েছেন তিনি।

বুধবার (১০ এপ্রিল) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে নিজের একটি ছবি শেয়ার করে স্ট্যাটাস দিয়েছেন মিশা।

ক্যাপশনে অভিনেতা লিখেছেন— ‘পরিবার ছাড়া ঈদ করা কত যে কষ্টের এটা সেই বুঝবে যার সঙ্গে এটা ঘটেছে। তারপরও আমাদেরকে বাঁচতে হয়।

আমাদেরকে চলতে হয়। আমাদেরকে কাজ করতে হয়। আমাদেরকে বলতে হয়। ঈদ মোবারক। পৃথিবীর সমস্ত মানুষকে জানাই ঈদের শুভেচ্ছা। ঈদ মোবারক।’

পোস্টটি করার সঙ্গে সঙ্গেই মন্তব্যের ঝড় উঠেছে মিশার কমেন্টসবক্সে। পাশাপাশি অভিনেতাকেও ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তার ভক্তরা।

চলতি বছর ঈদুল ফিতর উপলক্ষে মুক্তি পেতে যাচ্ছে মিশা অভিনীত বেশ কয়েকটি সিনেমা। এই তালিকায় রয়েছে— ছটকু আহমেদ পরিচালিত 'আহারে জীবন'। ইকবাল পরিচালিত সিনেমা 'ডেডবডি' এবং পূজা চেরি ও আদর আজাদ অভিনীত সিনেমা 'লিপস্টিক’। যদিও এই সিনেমাটির মুক্তি নিয়ে তৈরি হয়েছে সংশয়।

ঈদ   মিশা সওদাগর  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

শাকিবের বাসায় দেখা হয় অপু-বুবলীর

প্রকাশ: ১২:১৯ পিএম, ১০ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

ঈদ আয়োজনের অংশ হিসেবে দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম বুবলী। সেখানে চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার ও ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে খোলাখুলি কথা বলেছেন ক্যামেরার সামনে। প্রায় ৪০ মিনিট দৈর্ঘ্যের সেই সাক্ষাৎকারে কথায় কথায় অনেক অজানা বিষয় সামনে এনেছেন বুবলী। তিনি শেহজাদ খান বীর, শাকিব খান, অপু বিশ্বাস ও আবরাম খান জয়কে নিয়েও নিজের অভিব্যক্তিগুলো প্রকাশ করেছেন।

বুবলী বলেছেন, শাকিব খানের বাসায় আমাদের (অপু বিশ্বাস ও জয়) একসঙ্গে দেখা হয়। অনেক সময় হয় কি, আমরা একই অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছি, সেখানে আমাদের দেখা হয়। আমাদের দেখা হলে সেখানকার পরিবেশটা খুব স্বাভাবিক থাকে। শাকিব খুব পজেটিভ থাকেন। বিশেষ করে জয় ও শেহজাদ খান বীরের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তগুলোতে তিনি পাশে থাকেন।

অপু বিশ্বাসের ছেলে আব্রাম খান জয়কে বড় ভাই হিসেবেই শেহজাদ খান বীর চেনেন বলেও জানান বুবলী। তিনি বলেন, তারা দু’জনেই ভাই হিসেবে নিজেদেরকে চেনে। আমি বীরকে সবসময় বলি, জয়কে সালাম দিতে। তাদের বাবা শাকিব খানও দু’জনকে শিখিয়ে দেয়, ছোট ভাইকে আদর করো। বড়কে সম্মান করো। সবাই মিলেই বাচ্চাদের নিয়ে একটি সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক থাকে।

সাক্ষাৎকারে শাকিব খানের বিচ্ছেদ হয়নি জানিয়ে বুবলী বলেছেন, তিনি এখনও শাকিব খানের স্ত্রী। তাদের বিচ্ছেদ ঘটেনি। যদিও এক ছাদের তলায় থাকছেন না তারা।   

অভিনেত্রী বলেন, আমরা টাইম নিচ্ছি। আমাদের ডিভোর্স হয়নি। একটি দাম্পত্য সম্পর্কে অনেক ভুল-বোঝাবুঝি হয়। শেহজাদকে নিয়ে একা সংগ্রাম করছি। সেখান থেকে সন্তানের বাবা হিসেবে তাকে কখনো অসম্মান করিনি। আমি কখনোই আক্রমণ করিনি, বরং সব সময় কিছু হলে তার জবাব দিয়েছি। আমি চাই বীর সুস্থ পরিবেশে বেড়ে উঠুক। গণমাধ্যমে একটি খবর এসেছিল, শাকিবের বাসা থেকে আমাকে বের করা হয়েছিল। কিন্তু এটা কখনোই ঘটেনি। শাকিবের বাসার সবাই আমাকে সম্মান করে।


শাকিব   অপু   বুবলীর  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

প্রথমবারের মতো আনন্দ মেলায় রুনা লায়লা

প্রকাশ: ০১:২৯ পিএম, ০৮ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

দেশের সংগীত অঙ্গনের জীবন্ত কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী ও সুরকার রুনা লায়লা। সংগীতের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তিনি দেশ বিদেশের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ও ভাষায় গান গেয়েছেন। তার গাওয়া গানগুলো হয়েছে কালজয়ী। তবে প্রথমবারে মতো এবার তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশনের ঈদের বিশেষ ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান আনন্দ মেলায় গান গাইবেন।

এবারের আনন্দমেলায় নতুন গানে কন্ঠ দিবেন এই কিংবদন্তি শিল্পী। গানটি লিখেছেন বাংলাদেশ শিশু একাডেমির মহাপরিচালক আনজীর লিটন। এ সুর করেছেন আশরাফ বাবু।

এ প্রসঙ্গে রুনা লায়লা বলেন, ‘এবারই প্রথম আমি জনপ্রিয় এই অনুষ্ঠানটিতে গান গাইব। তবে এর আগে আমাকে আনন্দ মেলায় গান গাওয়ার জন্য ডাকা হয়নি। ডাকলে হয়তো আমি আরও আগেই গাইতাম। তবে যাইহোক দীর্ঘদিন পর হলেও আনন্দ মেলার জন্য গাইতে পেরে ভালো লাগছে। আনজীর লিটন গানটি খুব যত্ন করে লিখেছেন। আমার সঙ্গে এই প্রজন্মের শিল্পীরাও বেশ আন্তরিকতার সঙ্গে গানটি গেয়েছে।’

গানটি বিটিভিতে প্রচার হবে ঈদের দিন রাত ১০টার ইংরেজি সংবাদের পর। গানে রুনার সঙ্গে আরও কণ্ঠ দিয়েছেন দিলশাদ নাহার কনা, ইমরান মাহমুদুল, ঝিলিক ও সাব্বির। কিংবদন্তির সঙ্গে গাইতে পেরে তারাও বেশ উচ্ছ্বসিত।


আনন্দ মেলা   রুনা লায়লা   বিটিভি  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

এবার নতুন লুকে রাশমিকা মান্দানা

প্রকাশ: ১২:১৮ পিএম, ০৮ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

ভারতের দক্ষিণী সিনেমার সুপারস্টার আল্লু ও রাশমিকা মান্দানা অভিনিত ‘পুষ্পা: দ্য রাইজ’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিল ২০২১ সালে। সিনেমাটি দিয়ে বক্স অফিসে ঝড় তুলেছিল এ জুটি। তখন ব্যবসার নিরিখে ‘পুষ্পা’র কাছে পিছিয়ে পড়েছিল অনেক সিনেমাই। দেশের বক্স অফিসে ৩৫০ কোটি টাকার বেশি ব্যবসা করেছিল এটি। শোনা যাচ্ছে, এ বছরই অগস্টে মুক্তি পেতে পারে ‘পুষ্পা: দ্য রুল’। তার আগে রাশমিকার একটি পোস্টার সামনে এনেছেন সিনেমা নির্মাতারা।

রাশমিকা মান্দানার জন্মদিন উপলক্ষ্যে ভক্তদের উপহার হিসেবে সিনেমাটির নতুন পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে। নতুন পোস্টারে শ্রীভল্লির নতুন লুক একেবারে অত্যাশ্চর্য। রাশমিকার এই লুকে তার অনুরাগীরাও খুব পছন্দ করবে বলেও সবার বিশ্বাস।

চলতি বছরের ১৫ অগস্ট মুক্তি পাবে বহুল প্রতীক্ষিত এই সিনেমা। তার আগেই আল্লু অর্জুন ঘোষণা দিয়েছেন যে ‘পুষ্পা ৩’ ও আসবে।


পুষ্পা সিনেমায় একজন নিষ্পাপ মেয়ের চরিত্রে দেখা গিয়েছিল অভিনেত্রী রাশমিকা মান্দানাকে। কিন্তু, পুষ্পা-২ তে রাশমিকার অবতার অন্যরকম হতে চলেছে। তার কটাক্ষ, রাগি চাহনি অন্যরকম। অনেকেই বলছে পুষ্পা-২ তে আল্লু অর্জুনকে টেক্কা দিতে পারেন রাশমিকা।

গত বছর এপ্রিল মাসে আল্লুর জন্মদিনে মুক্তি পেয়েছিল ‘পুষ্পা২’র প্রথম পোস্টার। পোস্টারে আল্লুর ‘লুক’ দেখে প্রায় হইচই পড়ে গিয়েছিল। এর আগে অভিনেতাকে এই রূপে কখনও দেখা যায়নি। লাল টকটকে কপাল, গাল দু’টি আবার নীল। জোড়া ভ্রুর মাঝে জ্বলজ্বল করছে চন্দনের ফোঁটা। পরনে শাড়ি, গলায় লেবুর মালা, মুখে দাড়ি-গোঁফ। হাতে ধরা বন্দুক। খানিকটা বৃহন্নলার সাজেই ধরা দিয়েছিলেন আল্লু। দ্বিতীয়বার ‘পুষ্পা’কে বড় পর্দায় দেখতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন দর্শকেরা।


রাশমিকা মান্দানা   পুস্পা ৩   আল্লু আর্জুন   দক্ষিণী সিনেমা  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন