কালার ইনসাইড

উন্নত মানবিক রাষ্ট্র গঠনে ভূমিকা রাখবেন অভিনয়শিল্পীরা: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ১০:১৩ পিএম, ২৭ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail উন্নত মানবিক রাষ্ট্র গঠনে ভূমিকা রাখবেন অভিনয়শিল্পীরা: তথ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশকে বিশ্বের সামনে অনুসরণীয় একটি উন্নত ও মানবিক রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে অভিনয়শিল্পীরা সক্রিয় ভূমিকা রাখবেন বলে আশাপ্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানী শিল্পকলা একাডেমীতে জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে অভিনয় শিল্পী সংঘের বার্ষিক সাধারণ সভা ২০২১ এ প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ আশা ব্যক্ত করেন। এসময় সংঘের ওয়েবসাইট  actorsequitybd.com (একটরসইকুইটিবিডিডটকম) উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

অভিনয় শিল্পী সংঘের সভাপতি শহীদুজ্জামান সেলিমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিমের পরিচালনায় তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ হাসান, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, চিত্রনায়ক আলমগীর, প্রথিতযশা অভিনয়শিল্পী মামুনুর রশীদ, তারিক আনাম খান, সালাহউদ্দীন লাভলু অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আমাদের লক্ষ্য বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বে সম্মিলিতভাবে ২০৪১ সালের মধ্যে জাতির পিতার স্বপ্নের উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়া। ভৌত অবকাঠামোগতভাবে উন্নত এবং মানবিক ও সমাজকল্যাণ রাষ্ট্র গড়তে মানুষের মনন তৈরিতে অভিনয়শিল্পীদের ভূমিকা অপরিহার্য।

বক্তৃতায় মন্ত্রী অভিনয়শিল্পীদেরকে তাদের পেশার প্রতি মমতার জন্য অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, শিল্পীরা শিল্পকে ভালোবেসেই অন্য পেশায় যাননি। অনেকে বহু সংগ্রাম ও ত্যাগ করেও অভিনয় জগতে রয়ে গেছেন, যারা চাইলেই অন্য পেশায় যেতে পারতেন। তারা আছেন বলেই আমাদের অভিনয়শিল্প সমৃদ্ধ হয়েছে।

দেশের টেলিভিশন খাতের সুরক্ষা ও উন্নয়নে সরকারের পদক্ষেপগুলোর সাথে একাত্মতার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, কেউ কেউ মনে করেছিলেন আইনানুযায়ী  বিদেশি চ্যানেলের বিজ্ঞাপনমুক্ত বা ক্লিনফিড সম্প্রচার সম্ভব হবে না, তারা এনিয়ে শোরগোল করারও চেষ্টা করেছিল। কিন্তু সবার সহযোগিতায় দেশের স্বার্থে আমরা সেটি বাস্তবায়ন করতে পেরেছি। 

হাছান মাহমুদ বলেন, ক্যাবল নেটওয়ার্কে দেশি টিভিগুলোর কোনো ক্রম ছিলো না, এখন হয়েছে। দেশি শিল্পী ও বিজ্ঞাপন শিল্পের সুরক্ষায় আমরা বিদেশি শিল্পী দিয়ে বিজ্ঞাপন নির্মাণে শিল্পীপ্রতি ২ লাখ টাকা ও যে টিভিতে প্রচার হবে, তাকে বিজ্ঞাপনপ্রতি ২০ হাজার টাকা সরকারি কোষাগারে দেওয়ার নিয়ম করেছি।  

প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান তার বক্তৃতায় সকলকে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে অভিনয় শিল্পকে এগিয়ে নিতে আহবান জানান।

বরেণ্য শিল্পীবৃন্দ তাদের বক্তৃতায় শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট গঠনের জন্য প্রধানমন্ত্রী এবং তথ্যমন্ত্রীসহ সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। সেইসাথে গণমাধ্যম ও অভিনয় জগতের দর্শনগত ও কর্মক্ষেত্র প্রসারে সরকারের ভূমিকা অব্যাহত থাকবে বলে আশাপ্রকাশ করেন তারা।



মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

দ্বিতীয় সপ্তাহে হল বাড়লো ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’র, শো হাউস ফুল

প্রকাশ: ০৬:৫৭ পিএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

গেল সপ্তাহে সারাদেশে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ‘রাতুলের রাত রাতুলের দিন’ থেকে নির্মিত ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে। ছবিটি নির্মান করেছেন নির্মাতা আবু রায়হান জুয়েলের। এটি তাঁর প্রথম চলচ্চিত্র। মুক্তির দ্বিতীয় সপ্তাহে এসে প্রেক্ষাগৃহ বৃদ্ধির পাশাপাশি হাউস ফুল দর্শক হচ্ছে। সিনেমাটি রাজধানীতে মুক্তি পাওয়া প্রেক্ষাগৃহগুলো ঘুরে শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) দর্শকদের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। বিশেষ করে শিশু-কিশোরদের নিয়ে হলে এসেছেন তাদের অভিভাবকরা।

সিনেমাটি দেখতে আসা একজন দর্শক জানান, আমাদের দেশে শিশুদের নিয়ে সেইভাবে কোনো সিনেমা হচ্ছে না।‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ সিনেমাটির বেশ প্রশংসা শুনেছে বাচ্চারা। তাদের স্কুলের অনেকে দেখেছে। তাই আজ ছুটির দিনে আমার বাচ্চাকে নিয়ে সিনেমাটি দেখলাম। খুব ভালো লেগেছে।



নির্মাতা রায়হান জুয়েল বলেন, সত্যি কথা বলতে-আমার খুবই ভালো লাগছে সিনেমাটির দর্শকপ্রিয়তা দেখে। ভালোলাগার অনুভূতি এই মুহূর্তে ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না। মুক্তির দ্বিতীয় সপ্তাহে এসেও আমার মনে হচ্ছে যেন ছবিটি আজ মুক্তি পেয়েছে। দর্শকের কাছ থেকে এরকম সাড়া পাকো তা কল্পনাও করতে পারিনি। প্রেক্ষাগৃহগুলো হাউস ফুল যাচ্ছে। পাশাপাশি হল মালিকরা বলছেন তাদের টিকিট সেল দ্বিগুণ হচ্ছে।  সিনেমাটি সামনে কীভাবে গণমানুষের কাছে পৌঁছানো যায়, আমরা সেই চেষ্টা করছি।

নির্মিত হয়েছে ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’। এই সিনেমায় অভিনয় করেছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় তারকা সিয়াম আহমেদ ও পরীমনি। আরও অভিনয় করেছেন শহীদুল আলম সাচ্চু, আজাদ আবুল কালাম, কচি খন্দকার, আশিষ খন্দকার, আবু হুরায়রা তানভীরসহ অনেকে।

‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ ‘২০১৮-১’ অর্থবছরে নির্মাতা আবু রায়হান জুয়েল ‘নসু ডাকাত কুপোকাত’ পাণ্ডুলিপির জন্য ৬০ লাখ টাকা সরকারি অনুদান পান। কিন্তু পরে এর নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’। সিনেমাটির চিত্রনাট্য লিখেছেন জাকারিয়া সৌখিন। এর জন্য প্রথমবার গান লিখেছেন ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন   পরীমনি   চলচ্চিত্র   সিয়াম  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

এবার দেবাশীষ বিশ্বাস'র ‘তুমি যেখানে আমি সেখানে’

প্রকাশ: ০৬:১৩ পিএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

জনপ্রিয় উপস্থাপক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা দেবাশীষ বিশ্বাস। গতকাল ২৭ জানুয়ারি ছিল তার জন্মদিন। বিশেষ এই দিনটিকে আরো অর্থবহ করতে নতুন সিনেমার নাম ঘোষণা করেন এই নির্মাতা। 

শুক্রবার রাজধানীর একটি রেস্তোরাঁয় তার মা, স্ত্রী ও পুত্রসহ এক বর্ণিল অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে জন্মদিনের কেক কেটে ঘোষণা করেন নতুন সিনেমাটির নাম। জানালেন, নিজের প্রিয় গান ‘তুমি যেখানে আমি সেখানে সেকি জানোনা/ একই বাঁধনে বাঁধা দু’জনে ছেড়ে যাব না...’ থেকে অনুপ্রাণিত হয়েই ‘তুমি যেখানে আমি সেখানে’ শিরোনামের সিনেমাটি বানাতে চলেছেন তিনি। 

নীলাঞ্জনা প্রোডাকশনের ব্যানারে সিনেমাটি নির্মাণ করা হচ্ছে। এর প্রযোজনা করবেন সালমান চৌধুরী, সহ প্রযোজনায় আছেন নীলা চৌধুরী ও নাসিম চৌধুরী। মে মাসে এর দৃশ্যধারণ শুরু করা হবে। বর্তমানে এর চিত্রনাট্য তৈরির কাজ চলছে। তবে সিনেমাটির প্রধান পাত্র-পাত্রীর নাম জানাননি ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’খ্যাত এই নির্মাতা।

এ প্রসঙ্গে দেবাশীষ বিশ্বাস বলেন, খানিকটা ব্যতিক্রমী আমেজ আনতেই এই আয়োজন। সাধারণত সিনেমার নায়ক-নায়িকা সঙ্গে নিয়ে সিনেমার নাম ঘোষণা আসে।কিন্তু আমি আগে নাম ঘোষণা করলাম। নায়ক ও নায়িকা পরে চূড়ান্ত করে জানাব।

বরাবরের মতো এবারেও তিনি রোমান্টিক কমেডি সিনেমা নির্মাণ করছেন। ‘তুমি যেখানে আমি সেখানে’ সিনেমার নায়ক-নায়িকা ছাড়া অন্যান্য চরিত্রের শিল্পী তালিকা প্রস্তুত করেছেন দেবাশীষ বিশ্বাস। এতে অভিনয় করবেন মিশা সওদাগর, রেবেকা, সীমান্ত, কাবিলাসহ অনেকে। সিনেমাটিতে মেকাপের দায়িত্ব পালন করবেন দেবাশীষ বিশ্বাসের মা গায়ত্রী বিশ্বাস। এর গান লিখবেন সুদীপ কুমার দীপ।


দেবাশীষ বিশ্বাস   তুমি যেখানে আমি সেখানে  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

শাহরুখের মায়ের ভূমিকায় আমির খানের বড় বোন!

প্রকাশ: ০৬:০৮ পিএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

‘পাঠান’ জ্বরে কাঁপছে গোটা ভারত। প্রথম দিন বিশ্বজুড়ে প্রায় ১০০ কোটি রুপি আয় করে ফেলেছে সিনেমাটি। শুধু ভারতেই প্রায় ৫৫ কোটি টাকা আয় করেছে পাঠান। হিন্দি সিনেমার ইতিহাসে প্রথম দিন সর্বোচ্চ আয়ের রেকর্ড গড়েছে পাঠান।

অনেকের মতে, শাহরুখ ও সালমান - এ দুই খান একসঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করার বিষয়টি প্রভাব ফেলেছে সিনেপ্রেমীদের মাঝে। সেই প্রশ্নে প্রসঙ্গ উঠল বলিউডের আরেক খান আমিরকে নিয়ে। আজ অবধি শাহরুখের সঙ্গে এক সিনেমায় দেখা যায়নি মি. পারফেক্টশনিস্টকে। এ নিয়ে ভক্তদের হতাশাও রয়েছে বিস্তর।

এরপরও ‘পাঠান’ সিনেমায় কোনো না কোনোভাবে আমির খানের নাম এসেই যাচ্ছে। কারণ, এ সিনেমায় আমিরকে না পাওয়া গেলেও তার বোনকে পেয়েছেন সিনেপ্রেমীরা।

হ্যা, আমিরের বোন নিখাত খান অভিনয় করেছেন ‘পাঠান’-এ। তাও আবার শাহরুখের পালিত মায়ের ভূমিকায়।  ৬০ বছর বয়সী এই অভিনেত্রীকে ‘পাঠান’ ছবিতে একজন আফগানি নারীর চরিত্রে দেখা গেছে। স্ক্রিনে দেখা যায়, শাহরুখ একটি গ্রাম পুনুরুদ্ধার করার পর নিখাত তাকে দোয়া করছেন।

অভিনেত্রী নিখাত খান বলিউডের প্রযোজকও, তিনি আমির খানের বড় বোন। অভিনেত্রী হিসেবে ‘মিশন মঙ্গল’, ‘সান্ড কী আঁখ’, ‘তানাজি: দ্য আনসাং ওরিয়র’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন নিখাত।  

তার প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে বলিউডের অন্যতম সেরা দুই সিনেমা ‘হাম হ্যায় রাহি পেয়ার কে’ও‘লাগান’। এছাড়া ‘তুম মেরে হো’ও ‘দুলহা বিকতা হ্যায়’ নামে সিনেমা দুটির প্রযোজকও তিনি।  বেশ কিছু ওয়েব সিরিজেও দেখা গিয়েছে তাকে। তার অভিনীত ওয়েব সিরিজগুলো হলো, দ্য হিম্মত স্টোরি, গিলটি মাইন্ডস এবং হুশ হুশ

গত ২৫ জানুয়ারি মুক্তি পেয়েছে যশরাজ ফিল্মস প্রযোজিত ‘পাঠান’।  এদিন ভারতসহ প্রায় ১০০টি দেশে মুক্তি পায় সিনেমাটি।  

প্রথম দিন থেকেই ব্যাপক সাড়া ফেলায় সপ্তাহ শেষে পাঠানের আয় শুধু ভারতেই ২০০ কোটি ছুঁয়ে যেতে পারে বলে আশা করছেন বলিউড সিনেমা বিশ্লেষকেরা।  

পাঠানে শাহরুখের বিপরীতে আছেন দীপিকা পাড়ুকোন। দুর্দান্ত ভিলেন চরিত্রে দেখা গেছে জন আব্রাহামকে। এ তিন তারকা ছাড়াও আরও আছেন ডিম্পল কাপাডিয়া, আশুতোষ রানা, গৌতম রোড়ে, মনিশ ওয়াদওয়া প্রমুখ।

শাহরুখ খান   পাঠান   সালমান  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

ফের বন্ধ মধুমিতা প্রেক্ষাগৃহ

প্রকাশ: ০৬:০০ পিএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

দুই মাস বন্ধ থাকার পর চলতি মাসের মাঝামাঝি একটি দেশীয় সিনেমা দিয়ে পুনরায় চালু হয়েছিল রাজধানী ঢাকার অন্যতম প্রাচীন প্রেক্ষাগৃহ মধুমিতা। প্রেক্ষাগৃহ খোলার কয়েক দিন না যেতেই ফের বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে প্রেক্ষাগৃহটি। মধুমিতা কর্তৃপক্ষ এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছে।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে লেখা আছে, শুক্রবার (২৭/১/২০২৩) হতে আভ্যন্তরীণ কাজের জন্য মধুমিতা সিনেমা হলের সকল শো বন্ধ থাকবে। খোলার তারিখ পরে জানানো হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে প্রেক্ষাগৃহ বন্ধের কারণ হিসেবে আভ্যন্তরীণ কাজের কথা উল্লেখ করা হলেও প্রেক্ষাগৃহটি বন্ধ হচ্ছে লোকসানের মুখে পড়ে। এর আগে এ কথা নিউজজিকে জানিয়েছিলেন মধুমিতার কর্ণধার ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৮ নভেম্বর বন্ধ হয়েছিল মধুমিতা প্রেক্ষাগৃহটি। ১৯৬৭ সালে প্রতিষ্ঠিত এই প্রেক্ষাগৃহটি এখনও ঢাকার সিনেমাপ্রেমীদের কাছে অন্যতম। প্রেক্ষাগৃহটিতে বর্তমানে ১টি প্রদর্শনী কক্ষের মাধ্যমে সিনেমা দেখানো হয়। এতে একসঙ্গে ১২০০ জনের মতো দর্শক সিনেমা উপভোগ করতে পারেন।

প্রেক্ষাগৃহ   মধুমিতা  


মন্তব্য করুন


কালার ইনসাইড

হিরো আলমের জন্য ভোট চাইতে বগুড়ায় হিরো আলম

প্রকাশ: ০৪:২১ পিএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) ও বগুড়া-৬ (সদর) আসনে উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে একতারা প্রতীকে লড়ছেন হিরো আলম। আপাতত ভোটের প্রচারে নির্বাচনি এলাকা চষে বেড়াচ্ছেন তিনি। তার প্রচারণায় যোগ দিয়েছিলেন এক সময়ের আলোচিত চিত্রনায়িকা মুনমুন।

তিনি বলেন, হিরো আলম আমার খুব স্নেহের ছোট ভাই। সে আমাকে বলল, আপু আমি তো ইলেকশন করছি আপনি একটু এসে আমাকে দোয়া দিয়ে যান। তাই ওকে দোয়া দিতে আসলাম।

হিরো আলমের উদ্দেশে মুনমুন বলেন, তুমি চেষ্টা করেছিলে সারা বাংলাদেশে হিরো আলম হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবে। দেশের বেশির ভাগ মানুষ এখন তোমাকে চিনে। তুমি যে যুদ্ধেই নেমেছো, একেকটা করে জয়লাভ করেছো। যেহেতু তুমি সাহস করে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছো, আশা করি এখানেও সফল হবে।

তিনি যোগ করেন, হিরো আলম একদম রুট লেভেল থেকে উঠে এসেছে। তাই সেই শ্রেণীর মানুষের যে চাওয়া পাওয়া, হিরো আলম আমাদের চেয়ে সেটা ভালো জানে। তাই আমার চাওয়া, হিরো আলম যে এলাকা থেকে নেতৃত্ব দিতে চাচ্ছে, সে সেখানে সফল হবে। সে খুব বুদ্ধিমান ছেলে। সে হয়তো মানুষের অন্তরের কথা বুঝে। সে অনেক দূর যেতে পারবে।


হিরো আলম   মুনমুন  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন