ইনসাইড বাংলাদেশ

এবার থানচিতে ব্যাংক ডাকাতির চেষ্টা, বাজারে ফাঁকা গুলি

প্রকাশ: ০২:০০ পিএম, ০৩ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

বান্দরবানের রুমা উপজেলার পর এবার থানচিতে সোনালী ব্যাংকে ডাকাতির চেষ্টা করেছে পাহাড়ের বিচ্ছিন্নতাবাদী সশস্ত্র গোষ্ঠী কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ)। 

বুধবার (৩ এপ্রিল) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। এ সময় বাজার ঘেরাও করে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে তারা।  এরপর ২৫ থেকে ৩০ জন সদস্যের এই দলটি বাজারে বেশ কয়েকজনের মোবাইল ফোন ছিনতাই করে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) বান্দরবানের রুমা উপজেলায় সোনালী ব্যাংকে লুট করে কেএনএফ।

তখন পুলিশ ও আনসার বাহিনীর ১৪টি অস্ত্র, মোবাইল, ব্যাংকের ভোল্টের সব টাকাসহ ব্যাংক ম্যানেজার নেজাম উদ্দিনকে অপহরণ করে নিয়ে যায় সশস্ত্র বাহিনীরা। অপহৃত ব্যাংক ম্যানেজারের এখনও কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

বুধবার (৩ এপ্রিল) সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান বান্দরবান জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার সৈকত শাহীন, পুলিশের চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত ডিআইজি মাহফুজুর রহমান, সোনালী ব্যাংক চট্টগ্রাম বিভাগের জিএম ও মুসা খান।


ব্যাংকে ডাকাতি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

দুবাই পৌঁছেছে এমভি আবদুল্লাহ

প্রকাশ: ০৬:১২ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

জিম্মিদশা থেকে মুক্ত বাংলাদেশি পতাকাবাহী জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ পৌঁছেছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই আল হামরিয়া বন্দরে।

বাংলাদেশ সময় রোববার (২১ এপ্রিল) বিকেল ৪টায় জাহাজটি আল হামরিয়া বন্দরে বহির্নোঙর করা হয়।

জাহাজের অবস্থান নির্ণয়কারী বৈশ্বিক সংস্থা মেরিন ট্রফিক এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

মেরিন ট্রফিক সূত্র বলছে, শনিবার রাতে এমভি আবদুল্লাহ ওমান সাগর পাড়ি দিয়ে পারস্য উপসাগরে প্রবেশ করে। বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় জাহাজটি দুবাই আল হামরিয়া বন্দরে পৌঁছে।

এ বিষয়ে এমভি আবদুল্লাহর ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ আবদুর রশিদ বলেন, জাহাজের ২৩ নাবিকের সবাই সুস্থ আছেন। দুবাই পৌঁছানোর পর নাবিকদের দুজন ফ্লাইটে বাংলাদেশে ফিরবেন। বাকি ২১ জন কয়লা খালাসের পর মে মাসের প্রথম সপ্তাহে জাহাজ নিয়ে দেশে ফিরবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

এ দিকে জাহাজের মালিকপক্ষের একটি সূত্র বলছে, হামরিয়া বন্দরে ৫৫ হাজার টন কয়লা খালাস করা হবে। এরপর জাহাজটি বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা দেবে। ২৩ নাবিকের ২১ জন সেই জাহাজেই ফিরবেন। ১৭-১৮ দিন পর তারা দেশে এসে পৌঁছাতে পারেন। অপর দুই নাবিক দুবাই থেকে ফ্লাইটে দেশে আসার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

উল্লেখ্য, সোমালীয় দস্যুরা গত ১২ মার্চ বাংলাদেশি ২৩ নাবিকসহ এমভি আবদুল্লাহ জাহাজটি জিম্মি করে। দেশটির উপকূল থেকে ৬০০ নটিক্যাল মাইল দূরে ভারত মহাসাগরে জাহাজটি জিম্মি করা হয়। এর ৩২ দিন পর গত ১৪ এপ্রিল জাহাজটি মুক্ত করে দেয় জলদস্যুরা। এরপরই সেটি সোমালিয়া উপকূল থেকে আরব আমিরাতের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। জাহাজটি ৫৫ হাজার মেট্রিক টন কয়লা পরিবহন করছে।

দুবাই   এমভি আবদুল্লাহ   আরব আমিরাত  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

বরিশালে বৃদ্ধাকে ধর্ষণের পর হত্যা, ৭ মাস পর লাশ উদ্ধার

প্রকাশ: ০৫:৩৬ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail বৃদ্ধাকে ধর্ষণের ঘটনায় দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ

মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ পুঁতে রাখা হয় তারই ঘরের মেঝেতে। বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার চরামদ্দি ইউনিয়নের মধ্য কাটাদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

রবিবার (২১ মার্চ) বরিশাল জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সাংবাদিকদের এসব তথ্য দেন পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, ইউনিয়নের মধ্য কাটাদিয়া গ্রামের মৃত জয়নাল গাজীর স্ত্রী রিজিয়া বেগম (৬০) একাই বসবাস করতেন। প্রায় ৭ মাস আগে নিখোঁজ হন রিজিয়া বেগম। গত ১৩ এপ্রিল রিজিয়া বেগমের ছেলে রাসেল বাড়িতে এলে ঘরের ভেতরে মাটির স্তূপ দেখতে পান। বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করলে তারা আদালতের নির্দেশে ঘরের ভেতর থেকে রিজিয়া বেগমের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠান।

এ ঘটনায় বাদী হয়ে ওই দিন মামলা করেন নিহতের ভাই হাওলাদার মাসুদ। মামলার সূত্র ধরে তদন্তে নামে বরিশাল জেলা পুলিশ। প্রযুক্তির ব্যবহার করে এ ঘটনায় জড়িত দু জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলো, একই ইউনিয়নের মধ্য কাটাদিয়া গ্রামের মৃত আইউব আলীর ছেলে মো. ফয়সাল (৩৫) ও মৃত কালাম হাওলাদার কালুর ছেলে লালচাঁন (৩২)।

 এ প্রসঙ্গে পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম  বলেন, ফয়সাল ও লালচাঁন প্রতিনিয়ত ওই বৃদ্ধার ঘরে ও আশপাশে মাদক সেবন করত। সেই ঘটনায় বাধা দেওয়ায় ঘটনার দিন অর্থাৎ প্রায় ৭ মাস আগে পরিকল্পিতভাবে ধর্ষণের পর গলায় কাপড় পেঁচিয়ে হত্যা করে ফয়সাল ও লালচাঁন। এর পর বৃদ্ধার ঘরেই মাটি খুঁড়ে তাকে চাপা দেয় তারা। ফয়সাল ও লালচাঁন দুজনেই মাদকসেবী বলে জানিয়েছে পুলিশ সুপার। গ্রেফতারকৃত দুজনকে রবিবার (২১ এপ্রিল) আদালতে সোপর্দ করা হয়।


ধর্ষণ   লাশ উদ্ধার  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

তীব্র তাপপ্রবাহ নিয়ে এবার মুখ খুললেন হিট অফিসার

প্রকাশ: ০৫:২৬ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে বইছে তীব্র তাপপ্রবাহ। প্রচণ্ড গরমে জনজীবন হাঁসফাঁস। ঘরে-বাইরে কোথাও স্বস্তি নেই। প্রখর রোদে পথঘাট সব কিছুই উত্তপ্ত। কোথাও সড়কের পিচ গলতে শুরু করেছে। গরমের কারণে বাড়ছে হিটস্ট্রোকের মতো স্বাস্থ্যঝুঁকি। ডায়রিয়াতেও আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকে। এরইমধ্যে হিট অ্যালার্ট জারি করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

পরিস্থিতি যখন এমন তখন স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে, কী করছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের চিফ হিট অফিসার বুশরা আফরিন?

তিনি জানিয়েছেন, দায়িত্ব পেয়ে বসে নেই তিনি। চেষ্টা করে যাচ্ছেন কেন ঢাকায় তাপমাত্রা বাড়ছে তা খুঁজে বের করার। পরিস্থিতি মোকাবিলায় আরও কী ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া যায়, সেটার চেষ্টা করছেন।

রোববার (২১ এপ্রিল) গণমাধ্যমের সঙ্গে আলাপে এসব পরামর্শ তুলে ধরেন বুশরা আফরিন।

তিনি বলেন, পরিবার ও সমাজের সবার অংশগ্রহণের মাধ্যমে সচেতনতা বৃদ্ধি সম্ভব। খুব সাধারণ কিছু পন্থা অবলম্বন করে আমরা নিজেদের ঝুঁকিমুক্ত রাখতে পারি। যেমন, বেশি বেশি পানি পান করা, ঢিলেঢালা পোশাক পরিধান করা, যথাসম্ভব ছায়ার মধ্যে থাকার চেষ্টা করা এবং অসুস্থ বোধ করলে বিশ্রাম নেওয়া বা বেশি খারাপ বোধ করলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়া।

খাবার পানির সুব্যবস্থা ও ছায়াযুক্ত স্থান বাড়াতে সিটি কর্পোরেশন যথাসাধ্য চেষ্টা করছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কুলিং স্পেস’-এর ব্যবস্থা করার জন্য, যেন পথচারীরা বিশ্রাম নেওয়ার সুযোগ পায়, চেষ্টা করা হচ্ছে। আমাদের অবশ্যই আরও বেশি করে গাছ লাগাতে হবে এবং পরিবেশবান্ধব অবকাঠামো নির্মাণে এগিয়ে আসতে হবে।

গত এক বছরে বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে জানিয়ে বুশরা আফরিন বলেন, এর মধ্যে অন্যতম হলো বস্তি এলাকায় জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা। কারণ তারা অন্যতম প্রবল ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠী। সেসব জায়গায় গাছ লাগানোর মাধ্যমে তাদের সম্পৃক্ত করা হয়েছে, সেসব গাছের রক্ষণাবেক্ষণের জন্যও সচেতন করা হয়েছে। 

তিনি বলেন, এছাড়া, আবহাওয়া অধিদপ্তরসহ আরও বেশ কিছু সরকারি-বেসরকারি ও এনজিওর সঙ্গে আমরা যুক্ত হয়ে বেশ কিছু কার্যক্রম শিগগিরই চালু করতে যাচ্ছি। এগুলো সম্পর্কে আপনাদের বিশদভাবে অবহিত করা হবে। কল্যাণপুর ও বনানীতে পাইলট প্রজেক্ট হিসেবে আমরা নগর বন তৈরি করতে যাচ্ছি, যা একই সঙ্গে শীতলকরণ, বায়ু দূষণ রোধ ও মাটির গুণাগুণ বৃদ্ধি করবে।

তীব্র তাপপ্রবাহ   হিট অফিসার  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

নতুন মেয়াদে সরকারের প্রথম ১০০ দিন

প্রকাশ: ০৩:৪৫ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

আওয়ামী লীগের বর্তমান মেয়াদের সরকার শপথ নিয়েছিল ১১ জানুয়ারি, সেই হিসেবে ২১ এপ্রিল ১০০ দিন পূর্ণ হচ্ছে। দেশে টানা চতুর্থ দফা ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগ। প্রথম ১০০ দিন নিয়ে সরকারের ঘোষিত কর্মসূচি না থাকলেও ছিল বেশ কিছু উদ্যোগ। এর মধ্যে অন্যতম হলো– দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ, আর্থিক খাতে স্বচ্ছতা প্রতিষ্ঠা, জনবান্ধব প্রশাসন গড়ে তোলা, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও নাগরিক অধিকার সুরক্ষা। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, এসব উদ্যোগের অনেকটির ক্ষেত্রেই কাঙ্ক্ষিত সফলতা এসেছে।
 

গরিবের ঈদ উপহার

ঈদ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণভান্ডার থেকে অসহায় মানুষের মাঝে শাড়ি, লুঙ্গি ও পাঞ্জাবি বিতরন করা হয়েছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর থেকে ঈদ উপহার হিসেবে প্রতিটি পরিবারকে ১০ কেজি করে চাল বিতরণের কাজ চলছে। জনপ্রতিনিধিরাও নিজ নিজ আসনের দুস্থ মানুষকে উপহারসামগ্রী দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণভাণ্ডার থেকে দেশের ৩০০ সংসদ সদস্যের মাধ্যমে গরিব মানুষের জন্য সাত ধরনের উপকরণ দেওয়া হয়েছে। এগুলো হচ্ছে শাড়ি, থ্রি-পিস, পাঞ্জাবি, শার্ট, প্যান্ট, লুঙ্গি ও বিভিন্ন ধরনের পোশাক।

রোজায় নিত্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে নানা পদক্ষেপ

বর্তমান সরকারের ১০০ দিনের মধ্যে রমজানে নিত্যপণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণ ছিল বড় চ্যালেঞ্জ। সরকারের নানামুখী পদক্ষেপে স্তস্তিতে কেটেছে রমজান মাস। শাকসবজি, পেঁয়াজ ও ফলমূলসহ স্থানীয় মৌসুমি ফলের দাম ছিল নিম্নমুখী। ব্যাপকভাবে কমেছিল তরমুজের দাম। চাল, ভোজ্যতেল, চিনি, গম ও আটার দাম অপরিবর্তিত ছিল। জিরার পাশাপাশি দেশি পেঁয়াজ, দেশি রসুন, শুকনা মরিচ, হলুদসহ কয়েকটি মসলার দামও কম ছিল।

রোজায় সুলভে দুধ, ডিম, মাংস কিনেছে ‘প্রায় ৬ লাখ মানুষ’

রোজায় ঢাকাসহ ৩৫ জেলায় সুলভ মূল্যে দুধ, ডিম, মাংস বিক্রি করেছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। এতে প্রায় ছয় লাখ মানুষ এসব পণ্য কিনেছে বলে জানিয়েছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। ৩৫টি জেলায় এসব পণ্য বিক্রি হয়েঝে। উদ্বোধনের দিন থেকে ২৭ রোজা পর্যন্ত মোট পাঁচ লাখ ৯১ হাজার ৯৭১ জন সুলভ মূল্যে দুধ, ডিম, মাংস কিনেছেন।

স্বাস্থ্য খাতের শৃঙ্খলা ফেরাতে নতুন আইন

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে ১০০ দিনের কোনো পরিকল্পনা নেই। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন বলেছেন, ‘স্বাস্থ্য খাতের জন্য একশ দিন খুবই অল্প সময়। ১০০টি হাসপাতালও এখন পর্যন্ত পরিদর্শন করতে পারিনি। তবে প্রত্যন্ত অঞ্চলে স্বাস্থ্যসেবার মান উন্নয়ন ও বেসরকারি হাসপাতালে শৃঙ্খলা ফেরাতে কাজ করছি। সেবামূল্য নির্ধারণ করে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। অবৈধ হাসপাতাল বন্ধে কাজ চলমান। সেবা বিকেন্দ্রীকরণে উদ্যোগ হাতে নিয়েছি।’ স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়ন এবং স্বাস্থ্য খাত দুর্নীতিমুক্ত করা মূল লক্ষ্য বলে জানান তিনি।

দুর্নীতিমুক্ত স্মার্ট ভূমি ব্যবস্থাপনা

দুর্নীতিমুক্ত ভূমি ব্যবস্থাপনা কার্যকর করতে ভূমি মন্ত্রণালয়ের হটলাইন ১৬১২২, ফেসবুক, ওয়েবসাইট ও সরকারের ৩৩৩ হটলাইনের মাধ্যমে ভূমির দুর্নীতির তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। ভূমিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ দুর্নীতিমুক্ত ভূমি ব্যবস্থাপনা কার্যকর করতে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করছেন। এ লক্ষ্যে তিনি এসিল্যান্ড অফিস, ইউনিয়ন ভূমি অফিস পরিদর্শন করছেন। এরই মধ্যে ঢাকার ধানমন্ডি ও লালবাগ এসিল্যান্ড অফিস পরিদর্শন করেছেন। দেশের ১৬টি জেলা, ৩২টি উপজেলা, ৬৪টি ইউনিয়ন ভূমি অফিসকে ঘিরে একশ দিনের পরিকল্পনার আওতায় আনা হয়েছে। জেলা পর্যায়ের জমির মালিকদের খতিয়ান দেওয়া, উপজেলা পর্যায়ে নামজারি নিশ্চিত করা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে ভূমি উন্নয়ন কর আদায় নিশ্চিত করা হচ্ছে।

চীনের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি করতে চায় সরকার

২০২৬ সালে এলডিসি তালিকা থেকে উত্তরণের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার এ সময়ের মধ্যেই চীনের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি (এফটিএ) করতে চায় বাংলাদেশ। এ লক্ষ্যে গত ২৮ মার্চ যৌথভাবে খসড়া সম্ভাব্যতা সমীক্ষা প্রতিবেদন বিনিময় করে দু’দেশ। এরও আগে গত ডিসেম্বরে জাপানের সঙ্গে বাংলাদেশের এফটিএ স্বাক্ষরের লক্ষ্যে যৌথ সমীক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়। একইভাবে অন্যান্য দেশের সঙ্গে এ ধরনের কার্যক্রম এগিয়ে নিতে কাজ করছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

সম্পর্ক জোরদারের চেষ্টায় ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলো

গত ৭ জানুয়ারির ভোটের পর বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক এগিয়ে নেওয়ার কথা বলেছে ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলো। এর মধ্যে রয়েছে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে সবচেয়ে তৎপর দেশ যুক্তরাষ্ট্রও। দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের কাছ থেকে এসেছে দু’দেশের সম্পর্ক এগিয়ে নেওয়ার বার্তা। নির্বাচনের পরপরই সম্পর্ক জোরদারে ঢাকা সফরে আসেন চীনের কমিউনিস্ট পার্টির ভাইস মিনিস্টার। নতুন সরকার গঠনের পর জার্মানির মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রথম ১০০ দিনে ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, সুইডেনের রাজকন্যা, আয়ারল্যান্ডের বাণিজ্যমন্ত্রী, ভুটানের রাজা, ঘানার পররাষ্ট্রমন্ত্রী, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক ডেপুটি অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারিসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা বাংলাদেশ সফর করেন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারতসহ বিভিন্ন দেশে দ্বিপক্ষীয় ও বহুপক্ষীয় ফোরামের বৈঠকে অংশ নেন।

কাতার, জর্ডান ও মরিশাসে কর্মী পাঠানো চূড়ান্ত

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. রুহুল আমিন সমকালকে জানান, সরকারের প্রথম ১০০ দিনে প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয় প্রচুর কাজ করেছে। এ সরকারের প্রথম তিন মাসে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৭০০ মিলিয়ন ডলার বেশি রেমিট্যান্স এসেছে। কাতার, জর্ডান ও মরিশাসে কর্মী পাঠানোর বিষয়টি চূড়ান্ত প্রায়। নতুন শ্রমবাজারের মধ্যে রাশিয়াতে শ্রমিক যাওয়ার বিষয়টিও প্রায় চূড়ান্ত। কোরিয়া ও জর্ডানে গার্মেন্টস শ্রমিক যাবে। কুয়েতে যাবে নার্স। কথাবার্তা চলছে। বন্ধ হয়ে যাওয়া দুবাইয়েও শ্রমিক যাবে। এ মন্ত্রণালয়ের বড় কাজ দক্ষ শ্রম জনগোষ্ঠী গড়ে তোলা, সেটি জোরদার করা হয়েছে।

বায়ুদূষণ নিয়ন্ত্রণে নানা পদক্ষেপ

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বায়ুদূষণ, শব্দদূষণ, পানিদূষণ, প্লাস্টিক-পলিথিন দূষণ এবং পাহাড় কাটা বন্ধে অংশীজনের পরামর্শ নিচ্ছেন। মন্ত্রণালয়ের কর্মকাণ্ডে স্বচ্ছতা, জবাবদিহি নিশ্চিত করতে তিনি চেষ্টা চালাচ্ছেন। বৈশ্বিক বায়ুদূষণ সূচকে প্রথমদিকে থাকা ঢাকার বায়ুদূষণ নিয়ন্ত্রণে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক মন্ত্রণালয়। বায়ুদূষণ মান ২৫০-এর উপরে গেলে অ্যালার্ট জারি করার ঘোষণা দেন মন্ত্রী। আড়াই মাস ধরে পরিবেশ অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে বায়ুদূষণ নিয়ে প্রতিদিন তথ্য থাকছে।

ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের এফডিসি র‍্যাম্প চালু

সরকারের প্রথম ১০০ দিনে বেশকিছু নতুন উদ্যোগ ও পরিকল্পনা গ্রহণ করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সেতু বিভাগে। এ বিভাগের সচিব মনজুর হোসেন শনিবার সমকালকে বলেন, গত ১০০ দিনের মধ্যে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের এফডিসি গেটের কাছের র্যাম্প চালু হয়েছে। এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাশ পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার সড়ক চারলেন করা হয়েছে। বিআরটির বোর্ডবাজার পর্যন্ত নিচের অংশও চালু হয়েছে। ঢাকা ইপিজেড থেকে তিন কিলোমিটার সড়ক নতুন দুটি লেন চালু করে মোট তিনটি লেন হয়েছে। এসব কারণে ঈদযাত্রা সহজ হয়েছে। এ সময় আরও কিছু পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে, যেগুলোর সুফল আগামীতে দেখা যাবে।

কক্সবাজারের উন্নয়নে মাস্টারপ্ল্যান

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নবীরুল ইসলাম সমকালকে বলেন, সরকারের প্রথম ১০০ দিনে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের মাস্টারপ্ল্যান প্রজেক্টের আওতায় উপাত্ত সংগ্রহ (ডেটা কালেকশন) ও জিআইএস তথ্য সংগ্রহ করে বিশেষজ্ঞ মতামত সংগ্রহ হয়। তা ছাড়া মহেশখালীতে নির্মাণাধীন যাত্রী ছাউনি ও ভাস্কর্যের প্রথম ধাপের কাজ শেষ করে দ্বিতীয় ধাপের কাজ শুরু হয়েছে।



আওয়ামী লীগ   সরকার   ১০০ দিন  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

হিটস্ট্রোকে এবার ব্যবসায়ীর মৃত্যু

প্রকাশ: ০৩:৩৫ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

এবার ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় মো. আফজাল তালুকদার নামের এক ব্যবসায়ী হিটস্ট্রোকে মারা গেছেন। শনিবার (২০ এপ্রিল) রাত ১১টার দিকে তিনি মারা যান।

মৃত মো. আফজাল তালুকদার মৃত মো. আনোয়ার তালুকদারের বড় ছেলে।

স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক দিলীপ চন্দ্র হাওলাদার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, প্রচণ্ড গরমের কারণেই তার স্ট্রোকে মৃত্যু হয়েছে।

জানা যায়, রাত সাড়ে দশটার দিকে নিজ বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান। সেখানে রাত ১১টার দিকে তিনি মারা যান।

কাঠালিয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মাহমুদুল হক নাহিদ সিকদার বলেন, জানামতে আফজালের কোনো রোগ ছিল না। প্রচণ্ড গরমের কারণেই স্ট্রোক করে মারা গেছেন তিনি।

মো. আফজাল তালুকদার কাঠালিয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকার ডেকোরেটর ব্যবসায়ী ছিলেন। তার স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। আজ রোববার সকাল ৯টায় পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।

এদিকে আজও ঝালকাঠির ওপর দিয়ে তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। ঝালকাঠিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। প্রখর রোদে আর ভ্যাপসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘর থেকে বের হচ্ছে না।

এর আগে শুক্রবার থেকে হিটস্ট্রোকে সারা দেশে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।


হিটস্ট্রোকে   মৃত্যু  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন