ইনসাইড বাংলাদেশ

রামপুরায় বাসে অগ্নিসংযোগকারীকে খুঁজছে পুলিশ

প্রকাশ: ০৮:৪৫ এএম, ৩০ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail রামপুরায় বাসে অগ্নিসংযোগকারীকে খুঁজছে পুলিশ

রাজধানীর রামপুরায় বাসচাপায় স্কুল শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় কারা বাসে আগুন দিয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সুযোগসন্ধানীরা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে বাসে আগুন দিয়েছে কি না পুলিশ এ বিষয়ে তদন্ত করবে। 

গতকাল সোমবার (২৯ নভেম্বর) রাতে দুর্ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে পুলিশের মতিঝিল বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. আ. আহাদ সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।

মো. আ. আহাদ জানান, রামপুরায় সড়কে শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় বাসচালককে আটক করেছে পুলিশ। ঘাতক বাসটিও জব্দ করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে চালকের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

আ. আহাদ বলেন, ঘটনার পর চালক পালিয়ে যাচ্ছিল। পুলিশ সঙ্গে সঙ্গে তাকে আটক করে। সে বর্তমানে থানায় আছে। বাসটিও জব্দ করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এরপর প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পুলিশ নিহতের ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলেছে। তিনি পুলিশকে বলেছেন তারা ভাঙচুর বা আগুন দেননি। অন্য কেউ এসে এসব করিয়েছে। এ ধরনের ঘটনা কাম্য নয় বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

এর আগে, রাজধানীর রামপুরায় অনাবিল পরিবহনের একটি বাসচাপায় মাঈন উদ্দিন নামের এক শিক্ষার্থী মারা যায়। সোমরাত রাত পৌনে ১১টার দিকে রামপুরা বাজারের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর ঘটনাস্থলে জড়ো হয়ে ৯টি গাড়িতে আগুন দেয় স্থানীয়রা। এ সময় রাস্তা বন্ধ করে দেয় তারা।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, নিহত মঈন স্থানীয় বাসিন্দা। তিনি রামপুরা এলাকায় বড় হয়েছে। স্থানীয় একরামুন্নেসা স্কুলে পড়ত মঈন। সেখান থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছিল সে। রামপুরার তিতাস রোডে ভাড়া বাসায় থেকে চায়ের দোকান চালান মাঈনুদ্দিনের বাবা।

রামপুরা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, বাসচাপায় রামপুরা বাজারের সামনে একজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় উত্তেজিত জনতা সড়ক অবরোধ করেছে।


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

দেশবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৫:২০ পিএম, ১২ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

দেশবাসীকে ‘বাংলা নববর্ষ ১৪৩১’-এর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখে শুক্রবার (১২ এপ্রিল) এক ভিডিও বার্তায় তিনি এ শুভেচ্ছা জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, আসুন, নতুন বছরে অতীতের সকল ব্যর্থতা-দুঃখ-গ্লানি পিছনে ফেলে সুন্দর ভবিষ্যৎ বিনির্মাণের লক্ষ্যে একযোগে কাজ করি।

দেশবাসীর উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, বর্ষ পরিক্রমায় আবারও আমাদের মাঝে ফিরে এসেছে নতুন বছর। আপনারা যারা দেশে-বিদেশে অবস্থান করছেন বাংলাদেশের সকল ভাই-বোনকে জানাই বঙ্গাব্দ ১৪৩১-এর শুভেচ্ছা। শুভ নববর্ষ।

কবি সুফিয়া কামালের ভাষায় উচ্চারণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন-

‘পুরাতন গত হোক! যবনিকা করি উন্মোচন
তুমি এসো হে নবীন! হে বৈশাখ! নববর্ষ!
এসো হে নতুন।’
শুভ নববর্ষ।

উল্লেখ্য, আগামী রোববার (১৪ এপ্রিল) সারাদেশে উদযাপিত হবে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ।

নববর্ষের শুভেচ্ছা   প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

বান্দরবান ভ্রমণ না করার অনুরোধ প্রশাসনের

প্রকাশ: ০৫:০৫ পিএম, ১২ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় যৌথ বাহিনীর অভিযান পরিচালনাকালে স্থানীয় পর্যটন এলাকাগুলোতে ভ্রমণে পর্যটকদের নিরুৎসাহিত করেছে প্রশাসন। স্থানীয় প্রশাসন ৯ এপ্রিল এ নির্দেশনা জারি করলেও আজ শুক্রবার বিষয়টি জানানো হয়। 

রুমা উপজেলার বর্তমান নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) রুটিন দায়িত্বে থাকা মো. দিদারুল আলম এ তথ্য জানান। 

তিনি বলেন, ‘জেলা আইনশৃঙ্খলা রক্ষা ও সমন্বয় সংক্রান্ত কোর কমিটির সিদ্ধান্তের আলোকে এই নির্দেশনা দেওয়া হয়।’ তবে রুমায় যৌথ বাহিনীর অভিযান কত দিন চলবে নির্দেশনায় তা উল্লেখ করা হয়নি। 

৯ এপ্রিল দিদারুল আলম স্বাক্ষরিত নির্দেশনায় যৌথ বাহিনীর অভিযান পরিচালনাকালে হোটেলে পর্যটকদের কক্ষ ভাড়া না দিতে অনুরোধ জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে গাইডদেরও পর্যটকদের নিয়ে পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে না নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে বলা হয়। এ ছাড়া, জিপ গাড়ি বা নৌপথেও পর্যটকের কোনো পর্যটনকেন্দ্রে না নিয়ে যেতে বলা হয় ওই নির্দেশনায়। 

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২ এপ্রিল বান্দরবানের রুমা উপজেলার সোনালী ব্যাংকে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) সশস্ত্র সদস্যরা ব্যাংকের নিয়োজিত গ্রাম পুলিশ ও ব্যারাকে থাকা আনসার সদস্যদের ১৪টি অস্ত্র ও গুলি লুট করে নিয়ে যায়। এছাড়াও ডাকাতির সময় ব্যাংক ম্যানেজার নেজামউদ্দিনকে অপহরণ করে নিয়ে যায় কেএনএফের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। পরে অভিযানে ব্যাংক ম্যানেজারকে উদ্ধার করা হয়। ওই সময় ব্যাংক সংলগ্ন মসজিদে সশস্ত্র অবস্থায় প্রবেশ করে তারাবি নামাজ আদায়রত মুসল্লিদের জিম্মি করে মারধর করা হয়।

পরদিন ৩ এপ্রিল দিন-দুপুরে উপজেলা থানচিতে কৃষি ও সোনালী ব্যাংকে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ওই সময় ১৭ লাখ ৪৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায় সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী কেএনএফের সশস্ত্র সদস্যরা।

এ ঘটনায় রুমা ও থানচি থানায় একাধিক মামলা দায়ের করা হয়। এসব ঘটনায় যৌথবাহিনীর অভিযানে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নারীসহ ৫৮ জনকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

বান্দরবান  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

পার্বত্য জেলায় চলছে বৈসাবি উৎসব

প্রকাশ: ০৩:৩৯ পিএম, ১২ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

পার্বত্য চট্টগ্রামের ৩ জেলা রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবানে শুরু হয়েছে বৈসাবি উৎসব। ৩ দিনের উৎসবের আজ প্রথম দিন ফুল বিজু উদযাপন করেন চাকমা ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী।  তারা পুরনো বছরকে বিদায় জানিয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানান  চাকমা সম্প্রদায়।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সকালে ফুল বিজু উদযাপনে নদী, ঝিরি বা লেকের পাড়ে জড়ো হন চাকমা ছেলে-মেয়েরা। ঐতিহ্যবাহী রঙিন পোশাকে নিজেদের সাজান ছোট-বড় সকলে। এরপর কলাপাতায় ফুল সাজিয়ে ভাসিয়ে দেন পানিতে। পুরনো বছরকে বিদায় জানিয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানান চাকমা সম্প্রদায়ের মানুষ। এ সময় সবার মঙ্গল কামনায় প্রার্থনা করেন তারা। পহেলা বৈশাখ ঘিরে এই উৎসবকে সম্মিলতভাবে বলে বৈসাবি।

এদিকে বুধবার (১০ এপ্রিল) বান্দরবানে সাংগ্রাইং উৎসব উদযাপন পরিষদের উদ্যো‌গে এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবা‌রে উৎসব আগের চে‌য়েও প্রাণবন্ত হ‌বে। আগামী শ‌নিবার (১৩ এপ্রিল) সকাল ৮টায় বর্ণাঢ‌্য মঙ্গল শোভাযাত্রার মাধ‌্যমে সাংগ্রাই উৎস‌ব শুরু হ‌বে। এছাড়া ৪‌দিন ব‌্যাপী অনুষ্ঠা‌নের ম‌ধ্যে র‌োববার (১৪ এপ্রিল) বুদ্ধ স্নান, পিঠা উৎসব, সোমবার (১৫ এপ্রিল) রাজার মাঠে মৈত্রী পা‌নি বর্ষণ ও মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) মৈত্রী পা‌নি বর্ষণের মাধ‌্যমে এ উৎস‌বের সমাপ্তি ঘট‌বে।

উৎসব‌টি সবার জন‌্য উন্মুক্ত থাকবে এবং সকল সম্প্রদায় এ উৎসব উপ‌ভোগ কর‌তে পার‌বেন।


রাঙামাটি   খাগড়াছড়ি   বান্দরবান   বৈসাবি উৎসব  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

ঈদের ছুটিতে সমুদ্রস্নানে মাতোয়ারা পর্যটকরা

প্রকাশ: ০৩:০২ পিএম, ১২ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

গরমে চকচক করা সৈকতের বালিতে পা ফেলানো যেন দায়! চৈত্রের তপ্তরোধ। তবুও সব বাঁধা উপেক্ষা করে ঢল নেমেছে পর্যটকের। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) ঈদের দ্বিতীয় দিনে ভোর থেকেই পর্যটকের উপস্থিতি বাড়তে থাকে কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে। সৈকতের লাবনী, সুগন্ধা ও কলাতলী পয়েন্টে তিল ধারণের ঠাঁই নেই।

কেউ সমুদ্র স্নানে মাতোয়ারা, কেউ চড়ছেন ঘোড়ায়, আবার কেউ কেউ কিটকটে বসে উপভোগ করছেন সমুদ্রের তরঙ্গ। শুধু সমুদ্র সৈকতের তিন পয়েন্ট নয়, চাপ বেড়েছে দীর্ঘ মেরিন ড্রাইভ, পাটোয়ারটেক, ইনানী, রামুর বৌদ্ধ বিহারসহ আশপাশের সব পর্যটন স্পটে।

ভরদুপুরের রোদের আধিক্য কমতেই পর্যটকের ঢল নামছে মেরিন ড্রাইভে। একপাশে সাগর অন্যপাশে পাহাড় তার মাঝখানে চলে যাওয়া প্রায় ৮০ কিলোমিটার মেরিন ড্রাইভে গাড়িতে চড়ে যেতে যেতে চোখে প্রশান্তি এনে দেয় প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরূপ সব দৃশ্য। এমন দৃশ্য থেকে বঞ্চিত না হতেই সকাল সন্ধ্যে ছুটছে পর্যটকরা।

পর্যটকরা বলছেন, ঈদের ছুটিকে রঙিন করে তুলতেই তারা কক্সবাজার এসেছেন। সমুদ্রের তরঙ্গে নিজেকে হারাতে পেরে আনন্দিত তারা। তেমন কোন অভিযোগ নেই হোটেল ভাড়া ও রেস্টুরেন্ট বিল নিয়েও। তবে শহরের অভ্যন্তরে টমটম অটোরিকশায় হয়রানির শিকার হচ্ছে তারা।

হোটেল ওশান প্যারাডাইসের পাবলিক রিলেশন অফিসার সায়ীদ আলমগীর জানান, আজ (শুক্রবার) তাদের হোটেল পুরোটা বুকিং। কালও একই অবস্থা থাকবে।


কক্সবাজার   সমুদ্রসৈকত   পর্যটকরা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড বাংলাদেশ

ট্রাফিক তেজগাঁও বিভাগের ব্যবস্থাপনার প্রশংসা করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ: ০২:৫১ পিএম, ১২ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক তেজগাঁও বিভাগের ব্যবস্থাপনার প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

ডিএমপি জানায়, ঢাকা মহানগরীর সড়কে শৃঙ্খলা রক্ষায় ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমানের দিক নির্দেশনায় ডিএমপির তেজগাঁও ট্রাফিক বিভাগ সবসময় কাজ করে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে মন্ত্রিসভার সদস্য, প্রধান বিচারপতি, সংসদ সদস্য, কুটনীতিকবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ সবস্তরের জনগণের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী ট্রাফিক তেজগাঁও বিভাগের পুলিশ সদস্যদের সঙ্গেও ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন এবং ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে সুষ্ঠু ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার জন্য তেজগাঁও ট্রাফিক বিভাগের প্রশংসা করেন।

গণভবনে প্রায় পাঁচ হাজার অতিথি আসেন। আগত অতিথিদের গমনাগমন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করায় ট্রাফিক তেজগাঁও বিভাগকে ধন্যবাদও জানান তিনি।

ট্রাফিক তেজগাঁও বিভাগ   প্রধানমন্ত্রী  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন