ইনসাইড এডুকেশন

প্রশ্নফাঁস: বুয়েট শিক্ষক নিখিলকে বিভাগীয় প্রধান থেকে অব্যাহতি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৭:৩০ পিএম, ২১ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail

সরকারি ব্যাংকের প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় নাম আসার পর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং (আইপিই) বিভাগের প্রধান অধ্যাপক নিখিল রঞ্জন ধরকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনা খতিয়ে দেখতে বুয়েটের সিনিয়র শিক্ষকদের সমন্বয়ে পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে রোববার সন্ধ্যায় বুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক ড. সত্য প্রসাদ মজুমদার গণমাধ্যকে বলেন, বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পরিপ্রেক্ষিতে বুয়েটের বিভাগীয় প্রদান ও পরীক্ষার দায়িত্বে থাকা নিখিল রঞ্জন ধরকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহিত দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে বুয়েটের সিনিয়র পাঁচজন শিক্ষকের সমন্বয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

আগামী পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে তাদের তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে বলেও তিনি জানান। তদন্ত প্রতিবেদনে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে বিধিমালা অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বর্তমানে নিখিল রঞ্জন ধরের বিভাগীয় প্রধানের দায়িত্ব ড. ফেরদৌস কায়সারকে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে সম্প্রতি আহছানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের তত্ত্বাবধানে হওয়া সরকারি ব্যাংকের প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় আটক ব্যক্তিদের বক্তব্যে নাম আসে বুয়েটের এই শিক্ষকের। যিনি আহছানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কনসালটেন্ট হিসেবে পরীক্ষার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।

এর আগে ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নফাঁসের ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকায় আহছানউল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন কর্মকর্তা ও দুজন কর্মচারীকে বরখাস্ত করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত থাকা একাধিক ব্যক্তিকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আটক করেছে।



মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

ছাত্রীকে যৌন হয়রানির মামলায় শিক্ষক গ্রেফতার এবং সাময়িক বরখাস্ত

প্রকাশ: ১০:২১ এএম, ০৫ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার মেরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির মামলায় গ্রেফতার বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান (৫২) সাময়িক বরখাস্ত হয়েছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সিদ্দীক মোহাম্মদ ইউসুফ রেজা স্বাক্ষরিত এক পত্রে শিক্ষক হাফিজুরকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। বরখাস্তকৃত শিক্ষক হাফিজুর উপজেলার মেরিয়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত আশেক আলীর ছেলে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শিক্ষক হাফিজুর বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের নানাভাবে যৌন হয়রানি করে আসছিল। এ ঘটনায় ওই শিক্ষকের যৌন হয়রানির অভিযোগে কয়েকবার মিটিং করে তাকে সর্তকও করা হয়। এরইমধ্যে গত ২০ নভেম্বর ওই স্কুলের পঞ্চম শ্রেণীতে পড়–য়া এক ছাত্রীকে শিক্ষক হাফিজুর যৌনপীড়ন করে। এরপর ওই শিক্ষার্থী বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি পরিবারকে জানায়। ভূক্তভোগীর পরিবারের লোকজন ঘটনাটি বিভিন্ন জায়গায় জানিয়েও কোন সুরহা না পেয়ে ঘটনাটি গ্রামের লোকজনদের জানালে ওই শিক্ষকের আরও কয়েকজন শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি করার বিষয় উঠে আসে। এরপর স্থানীয়া গ্রামের লোকজন নিয়ে রবিবার (২৭ নভেম্বর) সকালে বিদ্যালয়ে গিয়ে ওই শিক্ষকের বিচারের দাবিতে বিদ্যালয় ঘেরাও করে তাকে অবরুদ্ধ করে। 

খবর পেয়ে রাণীনগর থানা পুলিশ ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় ৫ ঘন্টা পর শিক্ষককে শাস্তির আশ্বাস দিয়ে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এদিন রাতেই ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে শিক্ষক হাফিজুরকে আসামি করে থানায় যৌনপীড়নের মামলা দায়ের করলে থানা পুলিশ শিক্ষককে গ্রেফতার দেখিয়ে সোমবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠায়।

সাময়িক বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করে রাণীনগর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন, স্কুল ছাত্রীকে যৌন হয়রানির মামলায় শিক্ষক হাফিজুর গ্রেফতার হয়ে জেল হাজতে থাকায় তাকে বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) জেলা শিক্ষা অফিসার সাময়িক বরখাস্ত করেছে। রবিবার বরখাস্তের অফিস আদেশের পত্রটি পেয়েছি। 

যৌন হয়রানি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুরু ৮ ডিসেম্বর

প্রকাশ: ০৯:৩৬ পিএম, ০১ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে যাচ্ছে একাদশ শ্রেণির ক্লাস। এর আগে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের অনলাইনে আবেদন নিয়ে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। প্রথম দফায় আবেদন নেওয়া শুরু হবে ৮ থেকে ১৫ ডিসেম্বর।  বৃহস্পতিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উচ্চ পর্যায়ের এক সভায় এ সংক্রান্ত নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সভায় কারিগরী ও মাদ্রাসা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. কামাল হোসেন এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব আবুবকর ছিদ্দীকসহ সংশ্লিষ্ট পদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তপন কুমার গণমাধ্যমকে আরও বলেন, অনলাইনে সর্বনিম্ন পাঁচটি এবং সর্বোচ্চ ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পছন্দক্রম দিয়ে আবেদন করা যাবে। কলেজে ভর্তির ফি আগের মতোই থাকছে। রবি বা সোমবার মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা পাবেন বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। আগামী সপ্তাহেই ভর্তি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে।


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

পটুয়াখালীতে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশ: ০৭:১৫ পিএম, ০১ ডিসেম্বর, ২০২২


Thumbnail

বন্ধুর বোনকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় উত্ত্যক্তকারী জসিম ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের হাতে আহত হয়েছে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম ফয়সাল (১৮)। 

আজ বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে পরীক্ষা শেষে আব্দুল করিম মৃধা কলেজ গেট থেকে বের হতেই ফয়সালের উপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে জসিম ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী হামলা করে। তার পিঠে ও ডান হাতে কুপিয়ে জখম করে হামলাকারীরা। 

এসময় কলেজে ডিউটিতে থাকা পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে পটুয়াখালী ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নিয়ে যান। আহত আরিফুল ইসলাম ফয়সাল (১৮) সদর উপজেলার মাদারবুনিয়া ইউনিয়নের বেল্লাল আকনের ছেলে। 

জানা যায়, হামলাকারী জসিম একই গ্রামের কালামের ছেলে। আহত ফয়সালের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি জানান, আমার বন্ধুর বোনকে অনেকদিন আগে জসিম ডিস্টার্ব করে আমি তার প্রতিবাদ করি সেখানে তার সাথে আমার কথা-কাটাকাটি হয় পরে আমি সেখান থেকে চলি আসি পরে আজ আমি পরীক্ষা দিয়ে করিম মৃধা কলেজ থেকে  বের হতেই জসিম এবং তার সাথে সন্ত্রাসী বাহিনী আমাকে ধাওয়া করে এবং আমাকে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মারে পরে আমি সেখান থেকে পালাতে গেলে আমাকে জসিম তার হাতে থাকা চাপাতি দিয়ে কোপ দেয় আমি রক্তাক্ত অবস্থায় কলেজের মধ্যে ঢুকতেই ওরা দৌড়ে পালায়।

কুপিয়ে জখম  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নে শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন আনা হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশ: ০৭:৫৩ পিএম, ৩০ নভেম্বর, ২০২২


Thumbnail

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নে শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন আনা হচ্ছে। উচ্চ শিক্ষার জন্য কৌশলগত পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। এজন্য বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন কাউন্সিল গঠন করা হয়েছে। ন্যাশনাল ব্লেন্ডেড এডুকেশন মাস্টার প্ল্যান চূড়ান্তকরণের পর্যায়ে রয়েছে। অবকাঠামোর পাশাপাশি শিক্ষায় প্রযুক্তির মেলবন্ধন করা হচ্ছে।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) বেসরকারি স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ষষ্ঠ সমাবর্তনে প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন তিনি৷ 

দীপু মনি বলেন, দেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন আনা হচ্ছে। ভবিষ্যতের রূপকল্পের বাংলাদেশ গড়তে হলে ঔপনিবেশিক আমল থেকে চলা মুখস্থ নির্ভর আর পরীক্ষায় উগড়ে দেওয়া শিক্ষা ব্যবস্থা দিয়ে চলবে না। বরং শিক্ষাকে আনন্দময় করতে হবে। সমস্যা সমাধানে দক্ষতা বাড়াতে হবে। আত্মশক্তিতে বলীয়ান হতে হবে।

দেশের খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষদের নিরলসভাবে সততার শক্তি নিয়ে কাজ করে যাওয়ার দৃষ্টান্ত তুলে ধরে তরুণদের উদ্দেশে সমাবর্তন বক্তা সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন, এ মানুষদের কাছ থেকে আত্মশক্তির পাঠ গ্রহণ করুন। নিঃশব্দে, লক্ষ্য স্থির করে, নিজের সঙ্গে কোনো বিবাদে না জড়িয়ে, শুধু এগিয়ে যান। আত্মশক্তিতে বলিয়ান হন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের সভাপতি ডা. এ এম শামীম বলেন, যোগাযোগে বিশেষ দক্ষতা অর্জন করতে হবে। বড় মানুষ হওয়ার স্বপ্ন দেখতে হবে। স্বপ্ন দেখার পাশাপাশি কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। সৎ থাকতে হবে। বাবা-মাকে সম্মান করতে হবে। পৃথিবীর যেখানেই কাজ করো দেশকে ভালোবাসোতে হবে। মানুষকে ভালোবাসোতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মো. আনোয়ারুল কবির বলেন, আমরা একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ আর চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকে সামনে রেখে যেমন শিক্ষা ব্যবস্থা সাজিয়েছি তেমনি ভুলে যাইনি আমাদের মুক্তিযুদ্ধ ও জাতীয় চেতনার ইতিহাস ঐতিহ্যের কথা। আমাদের শিক্ষার্থীরা গুগলসহ সব জায়গায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। এটি আমাদের জন্য গর্বের। 

বিশ্ববিদ্যালয়টির ৬ষ্ঠ সমাবর্তনে তিনটি অনুষদের মোট ১ হাজার ৮২৫ জন ছাত্র-ছাত্রীকে সনদ প্রদান করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন বিষয়ে পারদর্শিতা ও ফলাফল অর্জনকারী মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের সম্মাননা পদক প্রদান করা হয়। 


মন্তব্য করুন


ইনসাইড এডুকেশন

কুড়িগ্রামে যে স্কুলে পাস করেনি কেউ


Thumbnail

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার খামার বড়াই বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় পাস করেনি কোনো শিক্ষার্থী। প্রকাশিত ফলাফলে ওই বিদ্যালয় থেকে পরীক্ষায় অংশ নেওয়া কোনো শিক্ষার্থী পাস না করায় অন্যান্য শ্রেণির শিক্ষার্থীসহ অভিভাবকরা হতাশায় পড়েছেন।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। 

জানা গেছে, প্রতিষ্ঠানটিতে এবছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে রেজিস্ট্রেশন করেছে ৪ জন শিক্ষার্থী। তবে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ২ জন। বাকি ২ জনের বিয়ে হয়ে গেছে। চরাঞ্চল ও নদী ভাঙন কবলিত এলাকা হওয়ায় এ অঞ্চলে কম বয়সে মেয়েদের বিয়ে আর মাদরাসা শিক্ষার প্রতি অভিভাবকদের আগ্রহের কারণে স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থীর সংকট। একই সঙ্গে ফলাফল আশানুরূপ না হওয়ার কারণ বলে জানিয়েছেন খামার বড়াই বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। 

তবে স্থানীয়দের দাবি প্রতিষ্ঠানটির প্রতি শিক্ষা কর্মকর্তাদের কোনো তদারকি না হওয়ায় এমন খারাপ ফলাফল হয়েছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. রেজাউল হক বলেন, আমার প্রতিষ্ঠান থেকে এবারই প্রথম এসএসসি পরীক্ষায় পাশের সংখ্যা শূন্য। গত বছর এখান থেকে সাতজন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সাতজনই পাশ করেছে। তবে এবছর আমার বিদ্যালয় থেকে পরীক্ষা দেওয়া দু'জনই ইতিহাসে ফেল করেছে। আশা করছি আগামী বছর আমরা ঘুরে দাড়াতে পারবো।

ওই বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় মানবিক বিভাগে ফেল করা শিক্ষার্থী মোর্শেদা আক্তার মীম বলেন, খামার বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে ইতিহাস বিষয়ে ফেল করেছি। অন্যান্য বিষয়ে ফলাফল মোটামুটি ভালো ছিল। ইতিহাস বিষয়ে শুধু মাত্র অবজেক্টিভে এক নম্বর কম পাওয়ায় ফেল করলাম।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জহুরুল হক বলেন, খামার বড়াই বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থীই পাস করতে পারে নি। আমরা বিষয়টি দেখছি।

এসএসসি পাস  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন