ইনসাইড গ্রাউন্ড

নাটকীয় ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে হার এড়ালো নিউজিল্যান্ড

প্রকাশ: ০৬:০৪ পিএম, ২৯ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail নাটকীয় ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে হার এড়ালো নিউ জিল্যান্ড

টেস্ট ক্রিকেটের উত্তেজনা যে হারিয়ে যায়নি সেটি যেনো আবার মনে করিয়ে দিলো ভারত-নিউজিল্যান্ড টেস্ট। কানপুর টেস্টে রোমাঞ্চকর ড্র করেছে নিউজিল্যান্ড। বলতে গেলে হারতে হারতে ড্র করেছে তারা। ভারতের ছুড়ে দেওয়া ২৮৪ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে চতুর্থ দিনে ১ উইকেট হারিয়ে ৪ রান তুলে দিন শেষ করেছিল কিউইরা। আজ (২৯ নভেম্বর) পঞ্চম শেষ দিনে ভারতের ঘূর্ণি জাদুর বিপক্ষে পুরোটা সময় ব্যাটিং করে তারা। তাতে ৯ উইকেট হারিয়েও শেষ মুহূর্তে করে ড্র। আর সেটা সম্ভব হয় টেল এন্ডারদের মাটি কামড়ে পড়ে থাকার সুবাদে। বিশেষ করে অভিষিক্ত রাচিন রীবন্দ্রর ব্যাটে। দুই টেল এন্ডারদের কল্যাণেই মূলত হার এড়াতে পারে নিউজিল্যান্ড। 

৯১ বলে ২ চারে অপরাজিত ১৮ রান করে নিউজিল্যান্ডকে রোমাঞ্চকর ড্র উপহার দেন রাচিন। তার সঙ্গে ২৩ বল খেলে ২ রান করে অপরাজিত থেকে দারুণ সঙ্গ দেন টেল এন্ডার আইজাজ প্যাটেল। ৮৯.২ ওভারের মাথায় নবম উইকেট হারানোর পর আরও ৮.৪ ওভার ক্রিজে টিকে থাকেন রাচিন ও আইজাজ। দুর্ভাগ্য ভারতের। শত চেষ্টা করেও শেষ ৫২ বলে আর কোনো উইকেট নিতে পারেনি তারা। 

আজ পঞ্চম দিনের চা বিরতিতে যাওয়ার আগে ৪ উইকেট হারিয়ে ১২৫ রান তোলে উইলিয়ামসন বাহিনী। আউট হন উইলিয়াম সামারভিল (৩৬), টম লাথাম (৫২) ও রস টেলর (২)। 

চা বিরতির পর দ্রুত উইকেট হারাতে থাকে সফরকারীরা। ১২৬ রানে ফেরেন হেনরি নিকোলস (১), ১২৮ রানে কেন উইলিয়ামসন (২৫), ১৩৮ রানে টম ব্লানডেল। তিনি ৩৮ বল খেলে ২ রান করে যান। এরপর ১৪৭ রানে কাইল জেমিসন ও ১৫৫ রানে টিম সাউদিকে হারিয়ে জয়োৎসব শুরু করে ভারত।

কিন্তু জমাট ব্যাটিং করে তাদের জয়োৎসব থামিয়ে দেন রাচিন ও আইজাজ। টপ ও মিডল অর্ডারের বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদের আউট করেও শেষ ৫২ বলে ভারতের বোলাররা ফেরাতে পারেননি তাদের দুজনকে। শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রান তুলে দিন শেষ করে ড্র করে রাচিন-আইজাজ।

রোমাঞ্চকর ড্রয়ের ম্যাচে ম্যাচসেরা হন একমাত্র ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে অভিষেক টেস্টের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি ও দ্বিতীয় ইনিংসে হাফ সেঞ্চুরি করা শ্রেয়াস আইয়ার।



মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

বাংলাদেশ সফরের জন্য দল ঘোষণা করলো ইংল্যান্ড

প্রকাশ: ০৯:১৩ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

বাংলাদেশ সফরে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ম্যাচের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে, জশ বাটলারের নেতৃত্বে বাংলাদেশ সফরের দল নিশ্চিত করেছে ইসিবি। তবে ব্যস্ত ক্রিকেট সূচী থাকায় বেশ কয়েকজন শীর্ষ সারির ক্রিকেটার ছাড়াই বাংলাদেশে আসছে ইংলিশরা।

বাংলাদেশের বিপক্ষে সীমিত ওভারের ক্রিকেট দলে ডাক পেয়েছেন তরুণ লেগস্পিনার রেহান আহমেদ। ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বকনিষ্ঠ ক্রিকেটার হিসেবে টেস্ট অভিষেক হলেও, প্রথমবার ওয়ানডে দলে ডাক পেলেন তিনি। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে অভিষেক হতে পারে কাউন্টি দল সমারসেটের অধিনায়ক টম অ্যাবেলেরও। এছাড়া চোট কাটিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা জফরা আর্চারও রয়েছেন দলে।

বাংলাদেশ সফরে শুধু ওয়ানডে সিরিজের দলে আছেন সাকিব মাহমুদ, জেসন রয় ও জেমস ভিন্স।আর টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য তাদের স্থলাভিষিক্ত হবেন বেন ডাকেট, উইল জ্যাকস ও ক্রিস জর্ডান। নিউজিল্যান্ডের টেস্ট সিরিজ শেষে ঢাকায় আসবেন তারা।চোট কাটিয়ে দুই সংস্করণেই ইংল্যান্ড দলে ফিরছেন পেসার মার্ক উড। তবে ইনজুরির কারণে দলে নেই জনি বেয়ারস্টো ও লিয়াম লিভিংস্টোন। আর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের কারণে ওয়ানডে দলে নেই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান জো রুট। ২৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে আসবে জস বাটলারের দল।

ওয়ানডে সিরিজটি আইসিসি সুপার লিগের অংশ। তবে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড দুই দলই এরইমধ্যে সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। আগামী ১লা মার্চ মিরপুরে প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে দুই দল। সবশেষ ২০১৬ সালের দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসেছিলো ইংল্যান্ড।

ইংল্যান্ডের ওয়ানডে দল:

জস বাটলার (অধিনায়ক), টম অ্যাবেল, রেহান আহমেদ, মঈন আলী, জফরা আর্চার, স্যাম কারেন, সাকিব মাহমুদ, ডেভিড ম্যালান, আদিল রশিদ, জেসন রয়, ফিল সল্ট, জেমস ভিন্স, ক্রিস ওকস, মার্ক উড।

ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি দল:

জস বাটলার (অধিনায়ক), টম অ্যাবেল, রেহান আহমেদ, মঈন আলী, জফরা আর্চার, স্যাম কারেন, বেন ডাকেট, উইল জ্যাকস, ক্রিস জর্ডান, ডেভিড ম্যালান, আদিল রশিদ, ফিল সল্ট, রিস টপলি, ক্রিস ওকস, মার্ক উড।


বাংলাদেশ   ইংল্যান্ড   দ্বিপাক্ষিক সিরিজ   দল  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

শুরু হচ্ছে অনূর্ধ্ব-২০ নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশীপ, বাংলাদেশের লক্ষ্য শিরোপা

প্রকাশ: ০৮:১৭ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

চার দলের অংশগ্রহণে আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে অনূর্ধ্ব-২০ নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশীপ ফুটবল। স্বাগতিক বাংলাদেশের সাথে টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে ভারত, নেপাল ও ভূটান। চার দলের অধিনায়ক ও কোচদের নিয়ে আজ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে বাফুফে ভবনে। সেখানে টুর্নামেন্টের ফেভারিট হিসেবে উঠে এসেছে বাংলাদেশের নাম।

গত সেপ্টেম্বরে নেপালে প্রথমবার নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জেতেন সাবিনা খাতুনরা। এরপর ঘরের মাটিতে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী টুর্নামেন্টের শিরোপা জেতায় অনূর্ধ্ব-২০ নারী দলের প্রতি প্রত্যাশার চাপটাও তাই বেশি। সে চাপ সামলে টুর্নামেন্টে ভাল ফলের প্রত্যাশা করছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক শামসুন্নাহার। সেই সাথে নারী দলের উন্নতিও নিয়ে সন্তুষ্টি ঝরেছে নারী দলের কোচ গোলাম রাব্বানির কণ্ঠেও।

আগামীকাল কমলাপুর স্টেডিয়ামে নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের অভিযান শুরু করবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২০ নারী দল। সে লক্ষ্যে চলতি বছরের শুরু থেকেই বাফুফেতে ক্যাম্প করছে নারী দল। ২০১৭ সাল থেকে বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্ট শুরু করেছে সাফ। অনূর্ধ্ব-১৫ দল দিয়ে বয়সভিত্তিক সাফের এই যাত্রা শুরু হয়েছিল, যেখানে উদ্বোধনী আসরেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলো বাংলাদেশ। 

এদিকে, সাফ মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের ঐতিহাসিক জয়কে স্মরণীয় করে রাখতে স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশ করেছে  ডাক ও টেলিযোগাযোগ অদিদপ্তর। বৃহ্স্পতিবার বাংলাদেশ সচিবালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার এটি প্রকাশ করেন। এসময় দশ টাকা মূল্যমানের একটি স্মারক ডাকটিকিট, ১০ টাকা মূল্যমানের একটি উদ্বোধনী খাম এবং ৫ টাকা মূল্যমানের ডাটা কার্ড প্রকাশ করেন।

নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশীপ, অনূর্ধ্ব-২০, বাংলাদেশ, ডাকটিকিটশুরু হচ্ছে অনূর্ধ্ব-২০ নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশীপ, বাংলাদেশের লক্ষ্য শিরোপা

চার দলের অংশগ্রহণে আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে অনূর্ধ্ব-২০ নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশীপ ফুটবল। স্বাগতিক বাংলাদেশের সাথে টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে ভারত, নেপাল ও ভূটান। চার দলের অধিনায়ক ও কোচদের নিয়ে আজ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে বাফুফে ভবনে। সেখানে টুর্নামেন্টের ফেভারিট হিসেবে উঠে এসেছে বাংলাদেশের নাম।

গত সেপ্টেম্বরে নেপালে প্রথমবার নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জেতেন সাবিনা খাতুনরা। এরপর ঘরের মাটিতে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী টুর্নামেন্টের শিরোপা জেতায় অনূর্ধ্ব-২০ নারী দলের প্রতি প্রত্যাশার চাপটাও তাই বেশি। সে চাপ সামলে টুর্নামেন্টে ভাল ফলের প্রত্যাশা করছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক শামসুন্নাহার। সেই সাথে নারী দলের উন্নতিও নিয়ে সন্তুষ্টি ঝরেছে নারী দলের কোচ গোলাম রাব্বানির কণ্ঠেও।

আগামীকাল কমলাপুর স্টেডিয়ামে নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের অভিযান শুরু করবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২০ নারী দল। সে লক্ষ্যে চলতি বছরের শুরু থেকেই বাফুফেতে ক্যাম্প করছে নারী দল। ২০১৭ সাল থেকে বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্ট শুরু করেছে সাফ। অনূর্ধ্ব-১৫ দল দিয়ে বয়সভিত্তিক সাফের এই যাত্রা শুরু হয়েছিল, যেখানে উদ্বোধনী আসরেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলো বাংলাদেশ। 

এদিকে, সাফ মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের ঐতিহাসিক জয়কে স্মরণীয় করে রাখতে স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশ করেছে  ডাক ও টেলিযোগাযোগ অদিদপ্তর। বৃহ্স্পতিবার বাংলাদেশ সচিবালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জনাব মোস্তাফা জব্বার এটি প্রকাশ করেন। এসময় দশ টাকা মূল্যমানের একটি স্মারক ডাকটিকিট, ১০ টাকা মূল্যমানের একটি উদ্বোধনী খাম এবং ৫ টাকা মূল্যমানের ডাটা কার্ড প্রকাশ করেন।


নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশীপ   অনূর্ধ্ব-২০   বাংলাদেশ   ডাকটিকিট  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এমবাপ্পে-রামোসের খেলা নিয়ে শঙ্কা

প্রকাশ: ০৭:৩৯ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

টানা দুই ম্যাচে জয়বঞ্চিত থাকার পর ফরাসি লিগ ওয়ানের ম্যাচে মঁপেলিয়ের বিপক্ষে ৩-১ গোলে আবার জয়ের ধারায় ফিরেছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইন। তবে ম্যাচ জিতলেও, সে ম্যাচে কিলিয়ান এমবাপ্পের ইনজুরি চিন্তার কারণ হয়ে দাড়িয়েছে দলটির জন্য। 

ম্যাচের শুরুতেই দুইবার পেনাল্টি মিস করার পর মাত্র ২১ মিনিটে হ্যামস্ট্রিং এর চোটের কারণে মাঠ ছাড়েন এমবাপ্পে। শুধু এমবাপ্পে নন, সে ম্যাচে ইনজুরিতে পড়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে সার্জিও রামোসকেও। ম্যাচের ৩১ মিনিটে মাঠ থেকে উঠে যান এই স্প্যানিশ ডিফেন্ডার। তবে তাদের চোট কতটা গুরুতর তা এখনো নিশ্চিত হওয়া সম্ভব হয়নি।

গুরুত্বপূর্ণ দুই ফুটবলারে ইনজুরির কারণে শঙ্কা তৈরি হয়েছে চলতি মাসের মাঝামাঝিতে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচকে ঘিরে। আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি জার্মান জায়ান্টদের বিপক্ষে শেষ ষোল'র লড়াইয়ে তাদের পাওয়া যাবে কি না সেটিই এখন আলোচনায়। ফ্রেঞ্চ কাপে মার্শেই এবং লিগে মোনাকোর বিপক্ষে ম্যাচ দুটিতে এমবাপ্পের না খেলার সম্ভাবনাই বেশি।

তবে পিএসজি কোচ ক্রিস্তোফ গালতিয়ের অবশ্য এখনই চিন্তিত হওয়ার কারণ দেখছেন না। দলের গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলারদের নিয়ে ঝুঁকি নিতেও নারাজ পিএসজি কোচ। তাদের না পাওয়া গেলেও, দলের ভারসম্য অনুযায়ী একাদশ সাজানোর কথা জানিয়েছেন তিনি। সামনের দিনগুলোতে ব্যস্ত সূচী রয়েছে ফরাসি পরাশক্তিদের। আগামী ৪ থেকে ১৯ ফেব্রুয়ারি মধ্যে পাঁচটি ম্যাচ খেলতে হবে প্যারিসের দলটিকে। তবে ইউরোপ সেরার প্রতিযোগিতায় এমবাপ্পে ও রামোসকে না পেলে তা বড় ধাক্কা হয়েই আসবে পিএসজির জন্য। লিগে ২১ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রয়েছে পিএসজি।


পিএসজি   কিলিয়ান এমবাপ্পে   সার্জিও রামোস   ইনজুরি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

নির্বাচকের দায়িত্ব পেলেন কামরান আকমল

প্রকাশ: ০৩:৪৫ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

পাকিস্তানের সাবেক উইকেট কিপার ব্যাটার কামরান আকমল সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছিলেন ২০১৭ সালে। এরপর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আর দেখা যায়নি কামরানকে। তবে জাতীয় দলে দেখা না গেলেও পিএসলের নিয়মিত মুখ ছিলেন তিনি। এবার নতুন ভূমিকায় দেখা যাবে সাবেক পাকিস্তানি এই ডানহাতি ব্যাটারকে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের খেলোয়াড় নির্বাচনের নতুন দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ৪১ বছর বয়সী কামরান আকমলকে।

পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় নির্বাচনের দায়িত্ব পেয়েছেন আকমল। মূলত পাকিস্তান জাতীয় দল ও অনুর্ধ্ব-১৯ জাতীয় ক্রিকেট দলের জন্য আলাদা নির্বাচক প্যানেল গঠন করেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচকের দায়িত্বে দেওয়া হয়েছে দেশটির সাবেক ক্রিকেটার হারুন রশিদকে। আর অনূর্ধ্ব-১৯ দল নির্বাচনের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কামরান আকমলকে। কামরান আকমলকে সহযোগিতা করার জন্য নির্বাচক প্যানেলে রাখা হয়েছে তৌসিফ আহমেদ, আরশাদ খান, শহীদ নাজির ও শোয়েব খানকে।

নতুন নির্বাচক কমিটি নিয়ে গণমাধ্যমকে পিসিবির সভাপতি নাজাম শেঠি বলেন, ‘নির্বাচক কমিটি এমন ব্যক্তিদের নিয়ে গঠন করা হয়েছে, যারা দশকজুড়ে পাকিস্তান ক্রিকেটের সেবা করেছেন। তারা আধুনিক খেলার চাহিদা সম্পর্কে জানেন। আমি নিশ্চিত মেধার বিচারে দল নির্বাচন করা হবে এবং পাকিস্তান ক্রিকেটকে নয়া উচ্চতায় নেওয়ার মিশনে তারা আমাদের সাহায্য করবে।’

পাকিস্তানের জার্সি গায়ে ২০০২ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে কামরান আকমলের। দেশের হয়ে ১৫৭ টি ওয়ানডে ও ৫৩ টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণ টি-টোয়েন্টিতে দেশের হয়ে মাঠে নেমেছেন ৫৮টি ম্যাচে। সব ফরম্যাট মিলিয়ে কামরানের ব্যাট থেকে এসেছে ৬ হাজার রান।


কামরান আকমল   পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড   প্রধান নির্বাচক  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

নতুন বছরেই রোনালদোর রেকর্ড ভাঙ্গলেন মেসি

প্রকাশ: ০৩:০৯ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩


Thumbnail

ফুটবল আর রেকর্ড এ দুইটি শব্দ ওতপ্রোতভাবে জড়িত পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো এবং আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসির সাথে। লিওনেল মেসির সাতটি ব্যালন ডিওরের বিপরীতে রোনালদো জিতেছেন ৫টি। এবার আরও একটি ক্ষেত্রে পর্তুগিজ তারকাকে ছাড়িয়ে গেছেন আর্জেন্টাইন সুপার স্টার লিওনেল মেসি। নতুন বছরের প্রথম মাসেই ক্লাব ফুটবলে রোনালদোর করার সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড ভাঙ্গলেন মেসি।

গতকাল পিএসজির হয়ে মঁপেলিয়ের বিপক্ষে গোলের দেখা পান মেসি। যেটি কাতার বিশ্বকাপের পরে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে মেসির প্রথম গোল। আর তাতেই রোনালদোকে ছাড়িয়ে যান মেসি। ইউরোপীয় ক্লাব ক্যারিয়ারে এটি মেসির ৬৯৭তম গোল। ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের ফুটবলারদের মধ্যে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মেসিই এখন সর্বোচ্চ গোলের মালিক। এই গোলে তিনি ৬৯৬ গোল করা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে ছাড়িয়ে গেছেন।

রোনালদো এখন মধ্যেপ্রাচ্যের ক্লাব আল নাসেরের। সেখানে খেলবেন ২০২৫ সাল পর্যন্ত তাই মেসির রেকর্ড আপাদত ভাঙ্গার সম্ভাবনা নেই রোনালদোর। 


ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো   লিওনেল মেসি   রেকর্ড  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন