ইনসাইড হেলথ

করোনার নতুন বিপদজনক ভেরিয়েন্ট 'ওমিক্রন': হু

প্রকাশ: ১২:১৫ পিএম, ২৭ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail

দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হওয়ার পর বসতোয়ানা, ইসরায়েল ও হংকংয়ে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের নতুন ভেরিয়েন্টের নাম রাখা হয়েছে ‘ওমিক্রন’। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ধরনটিকে ‘উদ্বেগজনক’ বলে আখ্যায়িত করেছে।

শুক্রবার (২৬ নভেম্বর) বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বিপদজনক এই ভেরিয়েন্ট নিয়ে এক জরুরি বৈঠকে বসে। সেই বৈঠকেই নতুন ভেরিয়েন্টটির নামকরণ করা হয়।

ডব্লিউএইচ’র এক বিবৃতিতে বলা হয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বি.১.১.৫২৯ ধরনকে উদ্বেগজনক হিসেবে আখ্যায়িত করছে। এটার নতুন নাম দেওয়া হয়েছে ওমিক্রন। প্রাথমিকভাবে হাতে আসা তথ্য বলছে, এই ধরনটির মাধ্যমে করোনার সংক্রমণ নতুন করে বিস্তারের ঝুঁকি রয়েছে।

হু কর্মকর্তা মারিয়া ভ্যান কারখোভে বলেন, ‘এই রূপ সম্পর্কে এখনো বিশেষ কিছু জানা যায়নি। তবে যতটুকু জেনেছি, তা থেকে বলতে পারি, এত বার মিউটেশনের মধ্যে দিয়ে যাওয়া মানেই ভাইরাসের কার্যক্ষমতায় এর প্রভাব পড়তে পারে।’

এখন পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকা ছাড়াও বসতোয়ানা, ইসরায়েল ও হংকংয় ছাড়াও ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে বেলজিয়ামে এখন পর্যন্ত একজনের শরীরে শনাক্ত হয়েছে ধরনটি।

মহামারির শুরুর দিকে তুলনামূলক দুর্বল আলফা, বেটা ও গামা ধরনও আশঙ্কাজনক পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছিল। নতুন এই ভেরিয়েন্টের ফলে বিশ্ব পরিস্থিতি আরো খারাপ দিকে মোড় নিতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন। 



মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

করোনায় রেকর্ড শনাক্তের হার

প্রকাশ: ০৬:৩৪ পিএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

সারাদেশে বেড়েই চলেছে করোনার সংক্রমণ। করোনায় রেকর্ড শনাক্তের হার ৩৩ দশমিক ৩৭ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ১৫ হাজার ৪৪০ জন। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৭ লাখ ৬২ হাজার ৭১১ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাড়ালো ২৮ হাজার ৩০৮ জন।

শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ১২ জুলাই ৮ হাজার ৬৮টি নমুনা পরীক্ষায় সংক্রমণ শনাক্ত হয় ২ হাজার ৬৬৬ জনের শরীরে। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ছিল ৩৩ দশমিক ০৪ শতাংশ। দেড় বছর পর এসে সেই রেকর্ড ভাঙল।

করোনাভাইরাস  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

করোনায় ২০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৫৪৪০

প্রকাশ: ০৬:০৮ পিএম, ২৮ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

সারাদেশে বেড়েই চলেছে করোনার সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাড়ালো ২৮ হাজার ৩০৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ১৫ হাজার ৪৪০ জন। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৭ লাখ ৬২ হাজার ৭১১ জনে।

শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

করোনাভাইরাস  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

করোনায় শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৯৮ শতাংশ

প্রকাশ: ০৫:১৩ পিএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

সারাদেশে বেড়েই চলেছে করোনার সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাড়ালো ২৮ হাজার ২৮৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ১৫ হাজার ৮০৭ জন। শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৯৮ শতাংশ। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৭ লাখ ৪৭ হাজার ৩৩১ জনে।

আজ বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

করোনাভাইরাস   ওমিক্রন  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

আবারো করোনায় আক্রান্ত হলেন পরিবেশমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৪:৫৩ পিএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

ফের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এ তথ্য নিশ্চিত করেন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ তথ্য অফিসার দীপংকর বর।

করোনা উপসর্গ থাকায় বুধবার রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) নমুনা দেন মন্ত্রী। তিনি এখন সরকারি বাসায় আইসোলেশনে রয়েছেন। করোনা মুক্তির জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

এর আগে প্রথম দফায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২০২০ সালের ১২ আগস্ট থেকে ২০ আগস্ট পর্যন্ত সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন পরিবেশমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

পরিবেশমন্ত্রী   ওমিক্রন   করোনাভাইরাস  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

করোনার টিকা কর্মসূচির এক বছর আজ

প্রকাশ: ০৮:০৫ এএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

দেশে করোনার টিকা কর্মসূচির এক বছর পূর্ণ হলো আজ। গত বছর এই দিনে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তাকে টিকা দেওয়ার মাধ্যমে দেশে এই কর্মসূচি শুরু হয়।

আইইডিসিআরের তথ্য অনুসারে, গত এক বছরে দেশে প্রথম ডোজের টিকা পেয়েছে ৯ কোটি ৫৪ লাখ ৪০ হাজার ৩২১ জন; যা দেশের মোট জনসংখ্যার ৫৬.০৪ শতাংশ। দেশে মোট জনসংখ্যা ১৭ কোটি ধরে ১১ কোটি ৯২ লাখ ২১ হাজার ৯৫৩ জন ধরে ৭০ শতাংশ মানুষকে টিকার আওতায় আনার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে সরকার।

প্রথম ডোজের ক্ষেত্রে লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হয়েছে ৮০.০৫ শতাংশ। দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে পাঁচ কোটি ৯৭ লাখ ১১ হাজার ৫৩৮ বা মোট জনসংখ্যার ৩৫.০৬ শতাংশ মানুষকে। বুস্টার বা তৃতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১২ লাখ ৬৪ হাজার ৭৪৫ বা মোট জনসংখ্যার ০.৭৪ শতাংশ মানুষকে।

সরকারি তথ্য মতে, গত সোমবার পর্যন্ত ছয় ধরনের করোনা টিকা পাওয়া গেছে ২৪ কোটি ৯ লাখ ৪৬ হাজার ৯৪০ ডোজ। গতকাল পর্যন্ত টিকা দেওয়া হয়েছে ১৫ কোটি ৬৪ লাখ ১৬ হাজার ৬০৪ ডোজ। শিক্ষার্থীদের মধ্যে গত সোমবার পর্যন্ত প্রথম ডোজ নিয়েছে এক কোটি ৩৫ লাখ ৫৫ হাজার ৬৬৬ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছে ১৬ লাখ ৬১ হাজার ৮২৬ জন। নিবন্ধন করেছে আট কোটি ৬২ লাখ ৪৯ হাজার ৩৪৩ জন। নিবন্ধন ছাড়াই টিকা নিয়েছে ৯১ লাখ ৯০ হাজার ৯৭৮ জন।

তবে অর্ধেকের বেশি জনগোষ্ঠীকে টিকার আওতায় আনা গেলেও করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। দেশে এক সপ্তাহে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৮৯ হাজার ২৩০ জনের। প্রতিদিন গড়ে শনাক্ত ১২ হাজার ৭৪৭ জন। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৫২৭ জন। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৩১.৬৪ শতাংশ। ওই ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এই পরিস্থিতি দেশে করোনার অতিসংক্রমণশীল ধরন ওমিক্রনের ব্যাপকতাকেই স্পষ্ট করে তুলেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ওমিক্রন নিয়ন্ত্রণে গাইডলাইন প্রস্তুত করা হয়েছে। দেশের ৭০ শতাংশ জনসাধারণকে করোনা টিকার আওতায় আনতে শুরু হয়েছে নিবন্ধন ছাড়াই গণটিকা কার্যক্রম।

গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আয়োজিত ভার্চুয়াল বুলেটিনে অধিদপ্তরের মুখপাত্র নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের কারণেই সংক্রমণ বাড়ছে। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ক্লিনিক্যাল গাইডলাইন তৈরি হয়ে গেছে। স্বাস্থ্যসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে এরই মধ্যে আমরা তা পাঠিয়ে দিয়েছি। ওমিক্রনের যে উপসর্গ আছে, সেগুলো এতে যোগ করা হয়েছে। রোগ নিয়ন্ত্রণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। ’
গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্তসহ দেশে মোট শনাক্ত ১৭ লাখ ৩১ হাজার ৫২৪ জন। একই সময়ে ১৭ মৃত্যুসহ দেশে মোট মৃত্যু ২৮ হাজার ২৭৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছে এক হাজার ৫২ জন। এ নিয়ে গতকাল পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১৫ লাখ ৬০ হাজার ছয়জন।

করোনাভাইরাস   করোনা   করোনার টিকা  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন