ইনসাইড ইনভেস্টিগেশন

মিতু হত্যা: পিবিআইয়ের পরিবর্তে তদন্তে অন্য সংস্থাকে চান বাবুল 

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৯:৩৪ এএম, ১৫ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail

চট্টগ্রামের চাঞ্চল্যকর মাহমুদা খানম মিতু হত্যার ঘটনায় দায়ের হওয়া প্রথম মামলায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পরিবর্তে অন্য কোনো সংস্থাকে দিয়ে তদন্তের আবেদন করেছেন সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তার। গতকাল রোববার (১৪ নভেম্বর) চট্টগ্রামের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহনাজ রহমানের আদালতে আবেদনটি করেন মামলার বাদী ও সাবেক পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারের আইনজীবী। আদালত আগামী ১২ ডিসেম্বর আবেদনটির শুনানির তারিখ ধার্য করেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী।

ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন, মিতু হত্যার প্রথম মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দেয় পিবিআই। যেখানে হত্যাকাণ্ডে বাদী বাবুল আক্তারের সম্পৃক্ততা আছে বলে উল্লেখ করা হয়। আমরা প্রতিবেদনের ওপর নারাজির আবেদন করি। আদালত নারাজির আবেদন ও চূড়ান্ত প্রতিবেদন দুটিই খারিজ করে দিয়ে মামলাটি পিবিআইকে অধিকতর তদন্তের আদেশ দেন।

তিনি বলেন, এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ রোববার পিবিআইয়ের পরিবর্তে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) কিংবা অন্য কোনো সংস্থাকে তদন্তভার দেওয়ার আবেদন করা হয়েছে। আদালত আগামী ১২ ডিসেম্বর শুনানির তারিখ ধার্য করেছেন।

জানা গেছে, মিতু হত্যাকাণ্ডে দুটি মামলা হয়। প্রথম মামলার বাদী তার স্বামী বাবুল আক্তার। কিন্তু মামলার তদন্তে হত্যাকাণ্ডে বাদী বাবুলের সম্পৃক্ততা পায় তদন্ত কর্মকর্তা ও পিবিআই চট্টগ্রাম মেট্রোর পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা। ওই মামলায় গত ১৬ মে আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন জমা দেন তিনি।

একই দিন পাঁচলাইশ থানায় মিতুর বাবা মোশাররফ বাদী হয়ে আরেকটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। দ্বিতীয় মামলায় প্রধান আসামি করা হয় বাবুল আক্তারকে। ওই মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে আছেন বাবুল আক্তার।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রাম নগরের নিজাম রোডে ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার পথে দুর্বৃত্তদের গুলি ও ছুরিকাঘাতে খুন হন মাহমুদা খানম মিতু।



মন্তব্য করুন


ইনসাইড ইনভেস্টিগেশন

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৫৬

প্রকাশ: ১১:৩৭ এএম, ২৮ Jun, ২০২২


Thumbnail রাজধানীর মাদকবিরোধী অভিযান গ্রেপ্তার ৫৬

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে  ৫৬ গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। অভিযানে মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে ৫৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে বিপুল পরিমাণ মাদক।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) সকালে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

সোমবার (২৭ জুন) সকাল ৬টা থেকে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে ৩ হাজার ৮০৪ পিস ইয়াবা, ৯ কেজি ৩০০ গ্রাম গাঁজা ও ১৬৪ গ্রাম হেরোইন জব্দ করা হয়।

তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩৬টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।


মাদক অভিযান   গ্রেফতার  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড ইনভেস্টিগেশন

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৭০

প্রকাশ: ১১:৩২ এএম, ২৬ Jun, ২০২২


Thumbnail রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৭০

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে  বিপুল পরিমাণ মাদক জব্দ করে ৭০ জনকে গ্রেফতার করছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি)  বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। 

রোববার (২৬ জুন) সকালে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

ডিএমপির পক্ষ থেকে বলা হয়, ডিএমপির নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে শনিবার (২৫ জুন) সকাল ৬টা থেকে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে ১ হাজার ১৫৩ পিস ইয়াবা, ১১৯ কেজি ৪৩০ গ্রাম গাঁজা, ১১.৫ গ্রাম হেরোইন ও ৩৪ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩৯টি মামলা হয়েছে।

রাজধানী   মাদকবিরোধী   অভিযান   গ্রেফতার  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড ইনভেস্টিগেশন

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৬৪

প্রকাশ: ১১:৩১ এএম, ২০ Jun, ২০২২


Thumbnail রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৬৪

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে ৬৪ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) এর বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ।

রোববার (১৯ জুন) সকাল ছয়টা থেকে সোমবার (২০ জুন) সকাল ছয়টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় এই অভিযান চালানো হয়।

গ্রেফতারের সময় তাদের কাছে থেকে ৩২ হাজার ১৭১ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ২১ কেজি ৮৭৮.২৫ গ্রাম ৪৫ পুরিয়া গাঁজা, ১৫ গ্রাম হেরোইন, ৪০টি ইনজেকশন ও ১০ লিটার দেশি মদ উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৪২টি মামলা হয়েছে।


মাদকবিরোধী অভিযান   গ্রেফতার  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড ইনভেস্টিগেশন

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৬৩

প্রকাশ: ১২:৩৪ পিএম, ১৪ Jun, ২০২২


Thumbnail রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেপ্তার ৬৩

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা ৬৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) বিভিন্ন অপরাধ ও গোয়েন্দা বিভাগ। মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। 

মঙ্গলবার (১৪ জুন) সকালে ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগ থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

সোমবার (১৩ জুন) সকাল ৬টা থেকে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারের সময় তাদের কাছ থেকে ৯ হাজার ৫১০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ২২৩ গ্রাম হেরোইন, ১৫ কেজি ৫৮১ গ্রাম গাঁজা, ১২৫ বোতল ফেনসিডিল, ৪০ ক্যান বিয়ার ও ১৫টি ইনজেকশন জব্দ করা হয়।

গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৪৭টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মাদক অভিযান   গ্রেফতার  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড ইনভেস্টিগেশন

রাজধানীতে ৪ ছিনতাইকারী গ্রেফতার

প্রকাশ: ১২:০২ এএম, ১৩ Jun, ২০২২


Thumbnail রাজধানীতে ৪ ছিনতাইকারী গ্রেফতার

রাজধানীর খিলগাঁও এলাকা থেকে চার ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) রামপুরা থানা পুলিশ। রোববার (১২ জুন) খিলগাঁও মেরাদিয়া মধ্যপাড়া ও লালমিয়ার গলি এলাকায় ধারাবাহিক অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাইকৃত মোবাইল ফোন সেট উদ্ধার করা হয়। সোমবার (১৩ জুন) এই তথ্য নিশ্চিত করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- রায়হান, হাসান, হাসিব হাসান ও জাহিদ হাসান। 

রামপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম জানান, গত ১১ জুন রাজধানীর বনশ্রী ই-ব্লকের ফরাজী হাসপাতালের সামনে একটি ছিনতাইয়ের ঘটনায় রামপুরা থানায় মামলা হয়। মামলাটির তদন্তে নেমে গোয়েন্দা তথ্য ও প্রযুক্তি সহায়তায় ছিনতাইকারীদের অবস্থান শনাক্ত করা হয়। পরে রোববার (১২ জুন) খিলগাঁও মেরাদিয়া মধ্যপাড়া ও লালমিয়ার গলি এলাকায় ধারাবাহিক অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। 

তিনি আরও জানান, মতিঝিল বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মো. আ. আহাদের সার্বিক নির্দেশনায় সহকারী পুলিশ কমিশনারের (খিলগাঁও জোন) তত্ত্বাবধানে, রামপুরা থানার অফিসার ইনচার্জের নেতৃত্বে গ্রেফতার অভিযানটি পরিচালিত হয়। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাই করা ১টি মোবাইল ফোন ও ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত ১টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারদের রিমান্ড আবেদন জানিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ছিনতাইকারী   গ্রেফতার   রাজধানী  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন