ইনসাইড ওয়েদার

পাঁচ জেলায় ঝড়-বৃষ্টির আভাস, নদীবন্দরে সতর্কতা

প্রকাশ: ১০:৩১ এএম, ২৭ মে, ২০২৩


Thumbnail

দেশের পাঁচটি জেলায় ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোর জন্য ১ নম্বর সতর্ক সংকেত জারি করা হয়েছে। এছাড়া সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

আজ শনিবার (২৭ মে) দুপুর ১টা পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, রংপুর, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট ও কক্সবাজার অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম অথবা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এছাড়া আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আব্দুল হামিদ মিয়া স্বাক্ষরিত পৃথক বিজ্ঞপ্তিতে আজ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। 

এছাড়া আগামী দুই দিন দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে।



মন্তব্য করুন


ইনসাইড ওয়েদার

রেকর্ড বৃষ্টির পরও উর্ধ্বমূখী তাপমাত্রা, স্বস্তি মিলবে কবে?

প্রকাশ: ১১:০৩ এএম, ২৯ মে, ২০২৪


Thumbnail

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে সারা দেশে ব্যাপক বৃষ্টিপাত ও ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। দেশের ১৯ জেলার প্রায় ৩৭ লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ঘূর্ণিঝড় রেমালের তান্ডবে। আবহাওয়া অফিসের তথ্য মতে সোমবার (২৮ মে) ঘূর্ণিঝড় রেমাল ও রেমাল পরবর্তী সময়ে সারা দেশে প্রায় ৩ হাজার ৩৩৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

কিন্তু এতো বৃষ্টির পরও যেন থামছে না গরম। মঙ্গলবার (২৮ মে) দেশের বিভিন্ন স্থানে অস্বস্তিকর গরম অনুভূত হয়েছে। শুধু তাই নয় দেশের বেশ কিছু অঞ্চলে হিটওয়েভও ঘোষণা করেছে আবহাওয়া অফিস।

বিষয়ে আবহাওয়াবিদ মো বজলুর রশিদ গণমাধ্যমকে বলেছেন, ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে বিভিন্ন অঞ্চলে প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়েছে, আবার কিছু অঞ্চলে কম। বিশেষ করে রংপুর ডিভিশনে বৃষ্টি কম হয়েছে। রংপরে ইতোমধ্যে হিটওয়েভ চলে এসেছে এবং সেসব স্থানে হিটওয়েভ ঘোষণা করা হয়েছে।

তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এর আগে সারা দেশে তীব্র তাপপ্রবাহ চলেছে। সেসময়ে মাটিতে চুষে নেওয়া তাপমাত্রা এখন বৃষ্টির কারণে বের হয়ে আসছে প্রকৃতিতে। এতে তাপমাত্রা কম থাকলেও গরম অনুভূত হচ্ছে। এছাড়া বাতাসে অতিরিক্ত আর্দ্রতার কারণে মানুষ অস্বস্তি বোধ করে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার (২৮ মে) দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রংপুরে ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল বান্দরবান টাঙ্গাইলে ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর এদিন ঢাকার তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৪ দশমিক ডিগ্রি সেলসিয়াস

আগামী জুনের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত এ তাপমাত্রা থাকতে পারে বলেও তিনি উল্লেখ করেছেন

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, এপ্রিলে গড় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ দশমিক ডিগ্রি সেলসিয়াস। এপ্রিল ছিল ৪৩ বছরের মধ্যে সবচেয়ে শুষ্কতম এবং মাসে গড় বৃষ্টিপাত হয়েছে মাত্র মিলিমিটার।


বৃষ্টি   তাপমাত্রা   স্বস্তি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড ওয়েদার

দেশের ৬ অঞ্চলে ঝড়ো হাওয়ার পূর্বাভাস

প্রকাশ: ০৮:২৯ এএম, ২৯ মে, ২০২৪


Thumbnail

দেশের ছয়টি অঞ্চলের ওপর দিয়ে দুপুরের মধ্যে অস্থায়ীভাবে দমকা  বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

বুধবার (২৯ মে) দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে তথ্য জানানো হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ময়মনসিংহ, কুমিল্লা, নোয়াখালী, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে দক্ষিণ দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিমি বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।


ঝড়ো   হাওয়া   পূর্বাভাস  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড ওয়েদার

মঙ্গলবার যেমন থাকবে দেশের আবহাওয়া

প্রকাশ: ০৮:৩৪ এএম, ২৮ মে, ২০২৪


Thumbnail

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে আজ মঙ্গলবার (২৮ মে) দিনভর বৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এর আগে সোমবার (২৭ মে) সারাদেশে চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়া অফিস এর তথ্য অনুযায়ী, চট্টগ্রাম বিভাগের সব জেলায় ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে। এর সাথে তীব্র বজ্রপাত অব্যাহত থাকতে পারে বলেও জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এছাড়াও দেশের বাকি বিভাগগুলোতে সারাদিন ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টি হতে পারে।

রিমালপরবর্তী সময়ে দেশে তিন হাজার ৩৩৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে, যা চলতি মৌসুমে সর্বোচ্চ। সোমবার (২৭ মে) রাতে এমন তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়াবিদ মোঃ ওমর ফারুক জানিয়েছেন, ‘সন্ধ্যা ৬ থেকে আগের ২৪ ঘন্টায় দেশে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে চট্টগ্রামে ২৩৫ মিলি মিটার। ঢাকায় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ১৫১ মিলিমিটার, যা এ মৌসুমের সর্বোচ্চ বর্ষণ।’

দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে কুতুবদিয়ায়। সেখানে প্রায় ১৮৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এছাড়াও সাতক্ষীরায় ১৭২ মিলিমিটার, খুলনায় ১৬৩ মিলিমিটার, গোপালগঞ্জে ১৫১ মিলিমিটার, বরিশালে ১৪৭ মিলিমিটার, সন্দ্বীপে ১৪৬ মিলিমিটার, চাঁদপুর ফেনীতে ১৩৯ মিলিমিটার, সীতাকুণ্ডে ১১৩ মিলিমিটার, মাইজদীকোর্টে ১০৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

এসব স্থানের পাশাপাশি দেশের অন্যান্য স্থানেও ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি লক্ষ্য করা গেছে। আবহাওয়া অফিসের বিভিন্ন স্টেশনের তথ্য অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় মোট হাজার ৩৩৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।


আবহাওয়া   মঙ্গলবার  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড ওয়েদার

চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত

প্রকাশ: ০৭:৫৭ এএম, ২৮ মে, ২০২৪


Thumbnail

সারাদেশে ঘূর্ণিঝড় রেমাল ও রেমাল পরবর্তী সময়ে দেশে প্রায় ৩ হাজার ৩৩৫ মি.মি. বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। যা চলতি মৌসুমে সর্বোচ্চ।

সোমবার (২৭ মে) রাতে আবহাওয়া অফিস এই তথ্য জানায়।

আবহাওয়াবিদ মোঃ ওমর ফারুক জানিয়েছেন, ‘সন্ধ্যা ৬টা থেকে আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে চট্টগ্রামে ২৩৫ মিলি মিটার। ঢাকায় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে ১৫১ মিলিমিটার, যা মৌসুমের সর্বোচ্চ বর্ষণ।’

দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে কুতুবদিয়ায়। সেখানে প্রায় ১৮৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এছাড়াও সাতক্ষীরায় ১৭২ মিলিমিটার, খুলনায় ১৬৩ মিলিমিটার, গোপালগঞ্জে ১৫১ মিলিমিটার, বরিশালে ১৪৭ মিলিমিটার, সন্দ্বীপে ১৪৬ মিলিমিটার, চাঁদপুর ফেনীতে ১৩৯ মিলিমিটার, সীতাকুণ্ডে ১১৩ মিলিমিটার, নোয়াখালীতে ১০৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

এসব স্থানের পাশাপাশি দেশের অন্যান্য স্থানেও ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি লক্ষ্য করা গেছে। আবহাওয়া অফিসের বিভিন্ন স্টেশনের তথ্য অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় মোট ৩ হাজার ৩৩৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

আগামী তিন দিনের পূর্বাভাসে আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক জানিয়েছেন, ‘মঙ্গলবার (২৮ মে) সব বিভাগে বজ্রসহ মাঝারি থেকে ভারি এবং কোথাও কোথাও অতিভারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। তবে সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা থেকে ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়তে পারে।’

বুধবার (২৯ মে) বৃষ্টিপাত আরেকটু কমে যাবে। কোথাও কোথাও হালকা, কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের বৃষ্টিপাত হতে পারে। দিন রাতের তাপমাত্রা থেকে ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়তে পারে।

বৃহস্পতিবার (২৯ মে) রংপুর, ময়মনসিংহ সিলেট বিভাগে হালকা বৃষ্টিপাত হতে পারে। দিনের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকলেও রাতের তাপমাত্রা তিন ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়তে পারে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতির মুখে পড়েছে উপকূল আশপাশের ১৯ জেলা। এগুলো হলো- সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, বরিশাল, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, বরগুনা, ভোলা, ফেনী, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নড়াইল, গোপালগঞ্জ, শরীয়তপুর যশোর। এবং এসব জেলার প্রায়  ৩৭ লাখ ৫৮ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।


বৃষ্টিপাত   ঘূর্ণিঝড়   রেমাল  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড ওয়েদার

মঙ্গলবার আবহাওয়া কেমন থাকবে, জানাল অধিদপ্তর

প্রকাশ: ০৪:৪৮ পিএম, ২৭ মে, ২০২৪


Thumbnail

উপকূলে ঝড়, বৃষ্টি, জোয়ার আর জলোচ্ছ্বাসের তাণ্ডব চালিয়ে ঘূর্ণিঝড় রেমাল বর্তমানে যশোর পূর্ববর্তী অঞ্চলে অবস্থান করছে। এর প্রভাবে সারাদেশেই বৃষ্টি ঝরছে। আগামীকাল (মঙ্গলবার) রাজধানী ঢাকাসহ বেশ কিছু জেলায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

সোমবার (২৭ মে) দুপুর ১২টার পর্যন্ত ছয় ঘণ্টায় ঢাকায় ৭১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়াবিদ মো. বজলুর রশিদ গণমাধ্যমকে বলেন, সারাদেশেই আজ বৃষ্টি হচ্ছে। আগামীকালও কিছু কিছু জায়গায় থেমে থেমে বৃষ্টি হবে। তবে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা কমে আসবে।

এর আগে, আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আজিজুর রহমান জানান, রেমালের কেন্দ্রভাগ বিকেল ৩টা থেকে ৪টার মধ্যে ঢাকার দিকে আসবে। এটি এখন অনেকটা গভীর নিম্নচাপে পরিণত হচ্ছে। এর ফলে ঢাকায় আরও বৃষ্টি হবে। সেই সাথে ঝোড়ো বাতাস বইবে।

তিনি বলেন, ঢাকার ওপর দিয়ে এটা পর্যায়ক্রমে সিলেট হয়ে বাংলাদেশের বাইরে যাবে ৷ তবে ঘূর্ণিঝড়টি রাজধানীর ওপর দিয়ে গেলেও তেমন কোনো প্রভাব ফেলবে না।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ী, রংপুর বিভাগের কয়েকটি জায়গা ছাড়া প্রায় সারাদেশেই বৃষ্টি হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে সর্বোচ্চ ২০৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। এ ছাড়া কুতুবদিয়ায় ১২৫ মিলিমিটার, সাতক্ষীরায় ৯৩, পটুয়াখালী ৭২, মোংলায় ৬৭, খুলনায় ৬৫, খেপুপাড়ায় ৫৮, যশোরে ৫৩, বরিশালে ও ভোলায় ৪১, চুয়াডাঙ্গায় ১৮ এবং কুমারখালীতে ১৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে অধিদপ্তর।

গতকাল বিকেল ৪টার দিকে রিমালের অগ্রভাগ বাংলাদেশ উপকূলে আঘাত হানতে শুরু করে। মধ্যরাতের মধ্যে এর কেন্দ্র স্থলভাগে উঠে আসে। সে সময় আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, উপকূল অতিক্রম করতে আরও পাঁচ থেকে সাত ঘণ্টা সময় লাগবে। পশ্চিমবঙ্গের সাগর আইল্যান্ড ও মোংলার মাঝখান দিয়ে ঘূর্ণিঝড়ের গতিপথ থাকলেও মূল কেন্দ্র বাংলাদেশের ওপর দিয়ে অতিক্রম করে। আজ সকাল ৯টায় প্রবল ঘূর্ণিঝড়টি গভীর স্থল নিম্নচাপে পরিণত হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তর   তাপমাত্রা  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন