ইনসাইড হেলথ

‘ওমিক্রন’ প্রতিরোধে যেসব পদক্ষেপ বাস্তবায়নের কথা জানাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

প্রকাশ: ০৮:৩৬ এএম, ২৯ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail

করোনার ভাইরাসের ভয়ংকর সংক্রামক সংস্করণ ‘ডেল্টা’ ভ্যারিয়েন্টের চেয়েও অধিক ক্ষতিকর দক্ষিণ আফ্রিকান ধরন ‘ওমিক্রনের’ সংক্রমণ রোধে ১৫ দফা পদক্ষেপ কঠোরভাবে বাস্তবায়নের কথা বলেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

যুক্তরাজ্যসহ অনেক দেশ দক্ষিণ আফ্রিকা, নামিবিয়া, জিম্বাবুয়ে, বতসোয়ানা, এসওয়াতিনি ও লেসোথোর সঙ্গে আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ করেছে। নতুন এ ভ্যারিয়েন্ট ডেল্টা থেকেও অধিক সংক্রামক বলে বিশেষজ্ঞরা মত দিয়েছেন। তাই এটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

রোববার (২৮ নভেম্বর) অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলামের সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব পদক্ষেপ সম্পর্কে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দক্ষিণ আফ্রিকা ও অন্যান্য দেশে করোনাভাইরাসের দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট (ধরন) ‘ওমিক্রন’-এর সংক্রমণ দেখা দেওয়ায় অধিকতর সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সব দেশকে এ সম্পর্কে সতর্ক করেছে।

এ পরিস্থিতিতে দেশব্যাপী ১৫টি পদক্ষেপ কঠোরভাবে বাস্তবায়নের জন্য অনুরোধ জানিয়েছে অধিদফতর।

১. দক্ষিণ আফ্রিকা, নামিবিয়া, জিম্বাবুয়ে, বতসোয়ানা, এসওয়াতিনি, লেসোথো ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক সময় সময় ঘোষিত অন্যান্য আক্রান্ত দেশ থেকে আসা যাত্রীদের বন্দরসমূহে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও স্ক্রিনিং জোরদার করতে হবে।

২. সব ধরনের (সামাজিক/রাজনৈতিক/ধর্মীয়/অন্যান্য) জনসমাগম নিরুৎসাহিত করতে হবে।

৩. প্রয়োজনে বাড়ির বাইরে গেলে প্রত্যেক ব্যক্তিকে সর্বদা সঠিকভাবে নাক-মুখ ঢেকে মাস্ক পরাসহ সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে হবে।

৪. রেস্তোরাঁতে বসে খাওয়ার ব্যবস্থা ধারণক্ষমতার অর্ধেক বা তার কম করতে হবে।

৫. সব জনসমাবেশ, পর্যটন স্থান, বিনোদন কেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার, সিনেমা হল/থিয়েটার হল ও সামাজিক অনুষ্ঠানে (বিয়ে, বৌভাত, জন্মদিন, পিকনিক, পার্টি ইত্যাদি) ধারণক্ষমতার অর্ধেক বা তার কমসংখ্যক লোক অংশগ্রহণ করতে পারবে।

৬. মসজিদসহ সব উপাসনালয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে হবে।

৭. গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে হবে।

৮. আক্রান্ত দেশসমূহ থেকে আসা যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে হবে।

৯. সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (মাদরাসা, প্রাক-প্রাথমিক, প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক, বিশ্ববিদ্যালয়) ও কোচিং সেন্টারে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে হবে।

১০. সব স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে সেবা গ্রহীতা, সেবা প্রদানকারী ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সর্বদা সঠিকভাবে নাক-মুখ ঢেকে মাস্ক পরাসহ সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা নিশ্চিত করতে হবে।

১১. স্বাস্থ্যবিধি মেনে ভ্যাকসিন কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

১২. করোনা উপসর্গ/লক্ষণযুক্ত সন্দেহজনক ও নিশ্চিত করোনা রোগীর আইসোলেশন ও করোনা পজিটিভ রোগীর ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে আসা অন্যান্যদের কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।

১৩. কোডিড-১৯ এর লক্ষণযুক্ত ব্যক্তিকে আইসোলেশনে রাখা এবং তার নমুনা পরীক্ষার জন্য স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে সহায়তা করা যেতে পারে।

১৪. অফিসে প্রবেশ এবং অবস্থানকালে বাধ্যতামূলকভাবে নাক-মুখ ঢেকে মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা দাফতরিকভাবে নিশ্চিত করতে হবে।

১৫. কোডিড-১৯ রোগ নিয়ন্ত্রণ ও হ্রাস করার নিমিত্তে কমিউনিটি পর্যায়ে মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার সচেতনতা তৈরির জন্য মাইকিং ও প্রচারণা চালানো যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে মসজিদ/মন্দির/গির্জা/প্যাগোডার মাইক ব্যবহার করা যেতে পারে এবং ওয়ার্ড কাউন্সিলর/ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যসহ নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করা যেতে পারে।

এদিকে জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি ৪৮তম সভা শেষে চারটি সুপারিশ করেছে। যার মধ্যে রয়েছে, ওমিক্রন সংক্রমিত দেশ থেকে বাংলাদেশে যাত্রী আসা বন্ধ রাখা, এসব দেশ থেকে এলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণ, বন্দরে কোভিড পরীক্ষা জোরদার ইত্যাদি।



মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

করোনায় শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৯৮ শতাংশ

প্রকাশ: ০৫:১৩ পিএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

সারাদেশে বেড়েই চলেছে করোনার সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাড়ালো ২৮ হাজার ২৮৮ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ১৫ হাজার ৮০৭ জন। শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৯৮ শতাংশ। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৭ লাখ ৪৭ হাজার ৩৩১ জনে।

আজ বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

করোনাভাইরাস   ওমিক্রন  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

আবারো করোনায় আক্রান্ত হলেন পরিবেশমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৪:৫৩ পিএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

ফের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এ তথ্য নিশ্চিত করেন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ তথ্য অফিসার দীপংকর বর।

করোনা উপসর্গ থাকায় বুধবার রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) নমুনা দেন মন্ত্রী। তিনি এখন সরকারি বাসায় আইসোলেশনে রয়েছেন। করোনা মুক্তির জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

এর আগে প্রথম দফায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২০২০ সালের ১২ আগস্ট থেকে ২০ আগস্ট পর্যন্ত সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন পরিবেশমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

পরিবেশমন্ত্রী   ওমিক্রন   করোনাভাইরাস  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

করোনার টিকা কর্মসূচির এক বছর আজ

প্রকাশ: ০৮:০৫ এএম, ২৭ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

দেশে করোনার টিকা কর্মসূচির এক বছর পূর্ণ হলো আজ। গত বছর এই দিনে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তাকে টিকা দেওয়ার মাধ্যমে দেশে এই কর্মসূচি শুরু হয়।

আইইডিসিআরের তথ্য অনুসারে, গত এক বছরে দেশে প্রথম ডোজের টিকা পেয়েছে ৯ কোটি ৫৪ লাখ ৪০ হাজার ৩২১ জন; যা দেশের মোট জনসংখ্যার ৫৬.০৪ শতাংশ। দেশে মোট জনসংখ্যা ১৭ কোটি ধরে ১১ কোটি ৯২ লাখ ২১ হাজার ৯৫৩ জন ধরে ৭০ শতাংশ মানুষকে টিকার আওতায় আনার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে সরকার।

প্রথম ডোজের ক্ষেত্রে লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হয়েছে ৮০.০৫ শতাংশ। দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে পাঁচ কোটি ৯৭ লাখ ১১ হাজার ৫৩৮ বা মোট জনসংখ্যার ৩৫.০৬ শতাংশ মানুষকে। বুস্টার বা তৃতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে ১২ লাখ ৬৪ হাজার ৭৪৫ বা মোট জনসংখ্যার ০.৭৪ শতাংশ মানুষকে।

সরকারি তথ্য মতে, গত সোমবার পর্যন্ত ছয় ধরনের করোনা টিকা পাওয়া গেছে ২৪ কোটি ৯ লাখ ৪৬ হাজার ৯৪০ ডোজ। গতকাল পর্যন্ত টিকা দেওয়া হয়েছে ১৫ কোটি ৬৪ লাখ ১৬ হাজার ৬০৪ ডোজ। শিক্ষার্থীদের মধ্যে গত সোমবার পর্যন্ত প্রথম ডোজ নিয়েছে এক কোটি ৩৫ লাখ ৫৫ হাজার ৬৬৬ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছে ১৬ লাখ ৬১ হাজার ৮২৬ জন। নিবন্ধন করেছে আট কোটি ৬২ লাখ ৪৯ হাজার ৩৪৩ জন। নিবন্ধন ছাড়াই টিকা নিয়েছে ৯১ লাখ ৯০ হাজার ৯৭৮ জন।

তবে অর্ধেকের বেশি জনগোষ্ঠীকে টিকার আওতায় আনা গেলেও করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। দেশে এক সপ্তাহে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৮৯ হাজার ২৩০ জনের। প্রতিদিন গড়ে শনাক্ত ১২ হাজার ৭৪৭ জন। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ১৫ হাজার ৫২৭ জন। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ৩১.৬৪ শতাংশ। ওই ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এই পরিস্থিতি দেশে করোনার অতিসংক্রমণশীল ধরন ওমিক্রনের ব্যাপকতাকেই স্পষ্ট করে তুলেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ওমিক্রন নিয়ন্ত্রণে গাইডলাইন প্রস্তুত করা হয়েছে। দেশের ৭০ শতাংশ জনসাধারণকে করোনা টিকার আওতায় আনতে শুরু হয়েছে নিবন্ধন ছাড়াই গণটিকা কার্যক্রম।

গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর আয়োজিত ভার্চুয়াল বুলেটিনে অধিদপ্তরের মুখপাত্র নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের কারণেই সংক্রমণ বাড়ছে। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ক্লিনিক্যাল গাইডলাইন তৈরি হয়ে গেছে। স্বাস্থ্যসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে এরই মধ্যে আমরা তা পাঠিয়ে দিয়েছি। ওমিক্রনের যে উপসর্গ আছে, সেগুলো এতে যোগ করা হয়েছে। রোগ নিয়ন্ত্রণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। ’
গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন শনাক্তসহ দেশে মোট শনাক্ত ১৭ লাখ ৩১ হাজার ৫২৪ জন। একই সময়ে ১৭ মৃত্যুসহ দেশে মোট মৃত্যু ২৮ হাজার ২৭৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছে এক হাজার ৫২ জন। এ নিয়ে গতকাল পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১৫ লাখ ৬০ হাজার ছয়জন।

করোনাভাইরাস   করোনা   করোনার টিকা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

দেশে করোনায় আরো ১৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশ: ০৬:৩০ পিএম, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

সারাদেশে বেড়েই চলেছে করোনার সংক্রমণ। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাড়ালো ২৮ হাজার ২৭৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ১৫ হাজার ৫২৭ জন। শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৬৪ শতাংশ। এ নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৭ লাখ ৩১ হাজার ৫৩৪ জনে।

আজ বুধবার (২৬ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

করোনা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড হেলথ

‘টিকা কেনাকাটায় খরচের তথ্য জানানো সমীচীন হবে না’

প্রকাশ: ০৪:৫৭ পিএম, ২৬ জানুয়ারী, ২০২২


Thumbnail

করোনাভাইরাসের টিকা কেনায় স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা হয়েছে। টিকা কেনার খরচের কোনো তথ্য সংসদে জানানো সমীচীন হবে না বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।  

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদের মন্ত্রীদের জন্য প্রশ্নোত্তর পর্বে লিখিত উত্তরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন এ মন্তব্য করেন। এ দিন প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এ পর্যন্ত (১৮ জানুয়ারি, ২০২২) ২১ কোটি ১৭ লাখ ৩০ হাজার টিকা সংগ্রহ করেছে। এর মধ্যে কোভ্যাক্সের আওতায় ২ কোটি ৯৭ লাখ ২০ হাজার সিনোফার্ম, চীন থেকে ৭ কোটি ৭০ লাখ সিনোফার্ম ও ৭ কোটি ৫০ লাখ ১০ হাজার সিনোভ্যাকসহ মোট ১৫ কোটি ২০ লাখ ১০ হাজার এবং ভারত থেকে অ্যাস্ট্রাজেনেকার ৩ কোটি টিকা সংগ্রহ করা হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, চীন, ভারত ও কোভ্যাক্স থেকে সর্বোচ্চ প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মতামত এবং অর্থ বিভাগ, সিসিজিপি ও প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনে সর্বোচ্চ সততা ও স্বচ্ছতা নিশ্চিত করে ভ্যাকসিন কেনা হয়েছে। নন-ক্লজার অ্যাগ্রিমেন্টের মাধ্যমে ভ্যাকসিন কেনার কারণে সংসদে অর্থ খরচের হিসাব প্রকাশ করা সমীচীন হবে না। 

জাহিদ মালেক বলেন, দেশে এ পর্যন্ত (১৮ জানুয়ারি) আট কোটি ৩৮ লাখ ১৩ হাজার ৬৮৬ জন করোনা টিকা নিতে রেজিস্ট্রেশন করেছেন। এ সময়ে ৯ কোটি ৩ লাখ ৯১ হাজার ৮৩৮ জনকে প্রথম ডোজ এবং ৫ কোটি ৭৩ লাখ ৬৩ হাজার ৩৮ জনকে দ্বিতীয় ডোজ এবং ৭ লাখ ৯৭ হাজার ৯০০ জনকে বুস্টার ডোজসহ সর্বমোট ১৪ কোটি ৮৫ লাখ ৫২ হাজার ৭৭৬ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীদের রেজিস্ট্রেশন বাধ্যতামূলক না থাকায় রেজিস্ট্রেশনেরে চয়ে টিকাদান বেশি হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী   সংসদ   করোনা   টিকা  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন