ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

বান্ধবীর সঙ্গে বাগদান সারলেন অ্যামাজনের জেফ বেজোস

প্রকাশ: ১০:০২ এএম, ২৩ মে, ২০২৩


Thumbnail

বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী জেফ বেজোস তার দীর্ঘদিনের বান্ধবী লরেন সানতেজের সঙ্গে বাগদান সেরেছেন। আগে থেকেই গুঞ্জন ছিল সাবেক ব্রডকাস্ট সাংবাদিক লরেনের সঙ্গে ২০১৮ সাল থেকে প্রেম করছেন জেফ বেজোস। খবর সিএনএনের।

জানা গেছে, কান চলচিত্র উৎসবে অংশ নিতে বর্তমানে ফ্রান্সে রয়েছেন এ যুগল। সেখানে বিশ্বের বড় বড় তারকাদের সঙ্গে আনন্দঘন সময় কাটাচ্ছেন তারা। কত কয়েকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে, বেজোস এবং লরেন খুব দ্রুতই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন। বিশেষত লরনের হাতে হৃদয় আকৃতির একটি আংটি দেখতে পাওয়ার পরই এ গুঞ্জন আরও বেড়ে যায়।

এর আগে, ২০১৯ সালে বেজোসের প্রথম স্ত্রী ম্যাকেঞ্জি স্কটের সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়। ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে দীর্ঘ ২৫ বছর সংসার করেছেন বেজোস। কিন্তু পারিবারিক কারণে তাদের মধ্যে বিচ্ছেদ ঘটে। ম্যাকেঞ্জি-বেজোস দম্পতির ঘরে চার সন্তান রয়েছে।

এদিকে, জেফ বেজোসের নতুন বাগদত্তা লরেনের এর আগে দুইবার বিয়ে হয়েছিল। দ্বিতীয় স্বামী প্যাট্রিক হোয়াইটসেলের সঙ্গে দুই সন্তান রয়েছে তার। অপরদিকে সাবেক আমেরিকান ফুটবল খেলোয়াড় টনি গঞ্জালেজের সঙ্গে তার ২২ বছর বয়সী একটি ছেলে রয়েছে।



মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

দিল্লিতে তীব্র গরম, হিটস্ট্রোকে ৫ জনের মৃত্যু

প্রকাশ: ০৯:০৩ পিএম, ১৯ জুন, ২০২৪


Thumbnail

তীব্র গরম ভারতে। শুধু গরম বললে ভুল বলা হবে, গোটা উত্তর ভারত যেন উনুনে বসানো তপ্ত কড়াই! তীব্র গরমে গত দুই দিনে ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিতে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। তাছাড়া কমপক্ষে ১২ জন দিল্লির রাম মনোহর লোহিয়া হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে রয়েছেন। সেই সঙ্গে দিল্লির অন্যান্য হাসপাতালেও হিটস্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছেন অনেকে।

ভারতের রাষ্ট্র-পরিচালিত হাসপাতালের মেডিকেল সুপারিনটেনডেন্ট ডা. অজয় ​​শুক্লা বলেছেন, সোমবার ও মঙ্গলবার হিটস্ট্রোক করার পরে ২২ জনকে ভর্তি করা হয়েছিল। তাদের মধ্যে পাঁচজন রোগী মারা গেছেন ও ১২-১৩ জন রোগী ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রয়েছেন।

ডা. শুক্লা বলেন, হিটস্ট্রোক সম্পর্কে ব্যাপক সচেতনতা ছড়ানো দরকার। হাসপাতালে ছুটে যাওয়ার পরিবর্তে, তাৎক্ষণিক কীভাবে হিটস্ট্রোক করা কোনো ব্যক্তির শরীর ঠাণ্ডা করানো যায়, তা শেখাতে হবে। রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় পানি ও বরফ ব্যবহার করতে হবে। এ ছাড়া রোগীকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে আনা হলেও বাঁচানো যেতে পারে।

প্রায় এক মাস ধরে অবিরাম তাপপ্রবাহে ভুগছেন দিল্লির বাসিন্দারা। শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে দাঁড়িয়েছে, যা স্বাভাবিকের ‍তুলনায় কয়েক ডিগ্রি বেশি। অন্যদিকে, সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। এমন পরিস্থিতিতে গভীর নলকূপের পানিও দিনভর গরম থাকছে। এমনকি, শীতাতপ নিয়ন্ত্রক (এসি) ব্যবহার করেও ঘর শীতল করা যাচ্ছে না।

আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তর ভারতের বেশির ভাগ অংশে তাপপ্রবাহের অবস্থা একই রকম থাকতে পারে। এই সময়ের পরে তাপমাত্রা হ্রাস পেতে পারে।

‘এর আগে দিনের তাপমাত্রা বাড়লেও রাতে কিছুটা স্বস্তি পাওয়া যেত; কিন্তু আজকাল নির্মাণকাজ বাড়তে থাকা ও সবুজ এলাকা হ্রাস পাওয়ায় সেই স্বস্তিটুকুও মিলছে না। এমনকি, এসিও বিস্ফোরিত হচ্ছে। মনে রাখতে হবে, উঁচু ভবন নির্মাণও বায়ুর চলাচলে প্রভাব ফেলে। এমন পরিস্থিতিতে আমাদের উচিত, কংক্রিটের ব্যবহার হ্রাস করা।’ 

দিল্লি   তীব্র গরম   হিটস্ট্রোক  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

জমকালো আয়োজন পুতিনকে স্বাগত জানালেন কিম

প্রকাশ: ০৬:২০ পিএম, ১৯ জুন, ২০২৪


Thumbnail

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন স্থানীয় সময় বুধবার ভোরে উত্তর কোরিয়ায় গিয়ে পৌঁছেছেন। অনুমান করা হচ্ছে সেখানে তিনি পিয়ংইয়ং ‘এর সঙ্গে মস্কোর বিস্তৃত সহযোগিতার রূপরেখা সম্বলিত একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করবেন।

এদিকে জমকালো আয়োজনে পুতিনকে স্বাগত জানিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং–উন। দুই দেশের পতাকা, লাল গোলাপ, বেলুন এবং পুতিন ও কিমের বিশাল বিশাল ছবি দিয়ে পুরো রাজধানী সাজিয়ে ফেলা হয়েছে। স্থানীয় সময় আজ সকালে কিম ইল সাং স্কয়ারে পুতিনকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়। রাশিয়ার সংবাদ মাধ্যমে এ অনুষ্ঠানের ভিডিও সম্প্রচার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

রাশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ সংস্থা আরআইএ পুতিনের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ‘রাশিয়া নীতিতে আপনার ধারাবাহিক ও অটল সমর্থনের আমরা উচ্চ প্রশংসা করছি, যার মধ্যে ইউক্রেন নীতিও রয়েছে।’

মস্কো মার্কিন ও দেশটির মিত্রদের আধিপত্য ও সাম্রাজ্যবাদী নীতির বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছে বলেও জানান পুতিন।

জবাবে কিম বলেন, উত্তর কোরিয়া ও রাশিয়ার সম্পর্ক ‘সমৃদ্ধির নতুন উচ্চতায়’ প্রবেশ করেছে।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম আরও বলেন, ‘বর্তমানে বিশ্ব পরিস্থিতি অনেক জটিল হয়ে গেছে ও দ্রুত পরিবর্তিত হচ্ছে। এমতাবস্থায় আমরা রাশিয়া ও রাশিয়ার নেতৃত্বের সঙ্গে কৌশলগত যোগাযোগ আরও শক্তিশালী করতে আগ্রহী। উত্তর কোরিয়া রুশ সরকার, দেশটির সশস্ত্র বাহিনী এবং ওই সব লোকজন, যারা সার্বভৌমত্বের রক্ষায়, নিরাপত্তার স্বার্থে ও আঞ্চলিক অখণ্ডতার জন্য ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান পরিচালনা করছেন, তাদের প্রতি পূর্ণ সমর্থন ও একাত্মতা প্রকাশ করছে।’

সর্বশেষ ২৪ বছর আগে ২০০০ সালের জুলাই মাসে উত্তর কোরিয়া সফর করেন পুতিন। গত বছরের সেপ্টেম্বর রাশিয়া সফরে গিয়ে তাকে আবার পিয়ংইয়ং সফরের দাওয়াত দেন উত্তরের নেতা কিম। সেই নিমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে আজ উত্তরের মাটিতে পা রাখলেন পুতিন। 

কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা বলছে, পুতিনের সঙ্গে সফরে দেশটির বিভিন্ন বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের একটি প্রতিনিধিদল রয়েছে। এসব ব্যক্তির মধ্যে রয়েছেন রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী আন্দ্রেই বেলোসভ, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ ও পুতিনের জ্বালানিবিষয়ক প্রধান উপপ্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার নোভাক।

সফরে রাশিয়া ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে একটি অংশীদারি চুক্তি স্বাক্ষরিত হবে বলে জানিয়েছেন পুতিনের পররাষ্ট্রনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা ইউরি উশাকভ। তিনি বলেন, চুক্তিটি দেশ দুটির মধ্যে সহযোগিতা আরও বাড়াবে। গত কয়েক বছরে আন্তর্জাতিক রাজনীতি, অর্থনীতি ও নিরাপত্তাসহ  বিভিন্ন ইস্যুতে দেশ দুটির মধ্যে যা হয়েছে, সেগুলো বিবেচনায় রেখেই এই চুক্তি সই করা হবে। তবে এ চুক্তি সরাসরি কোনো দেশকে লক্ষ্য করে করা হচ্ছে না।

তবে পুতিনের উত্তর কোরিয়া সফরকে ভালোভাবে দেখছে না পশ্চিমারা, বিশেষ করে দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র। তাদের শঙ্কা, পুতিনের সফরের ফলে মস্কো ও পিয়ংইয়ংয়ের মধ্যে সামরিক সহযোগিতা বাড়বে, যা জাতিসংঘের প্রস্তাবের লঙ্ঘন।


রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট   ভ্লাদিমির পুতিন  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

সিকিমে আটকে পড়া পর্যটকদের উদ্ধার

প্রকাশ: ০৩:৩৫ পিএম, ১৯ জুন, ২০২৪


Thumbnail

আবহাওয়ার কিছুটা উন্নতি হওয়ায় উত্তর সিকিমে আটকে থাকা বেশিরভাগ পর্যটককে উদ্ধার করতে পেরেছে প্রশাসন। সিকিম প্রশাসন বলছে, লাচুংয়ে আটকে থাকা ১১৭৮ জন পর্যটককে মঙ্গলবার উদ্ধার করা হয়েছে। অবশ্য আরও ৯১ জন পর্যটক আটকে আছেন। বুধবারের (১৯ জুন) মধ্যে তাদের সবাইকে উদ্ধার করা যাবে বলে মনে করছে প্রশাসন।

আবহাওয়া উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে সোমবার উত্তর সিকিমে উদ্ধারকাজ শুরু হয়। সোমবার মোট নয়জনকে উদ্ধার করা হয় টুং থেকে। টানা বৃষ্টি এবং বার বার ধসের কারণে টানা উদ্ধারকাজ না চালিয়ে দফায় দফায় কাজ করছিলেন কর্মীরা।

গত ১১ জুন থেকে সিকিমে ব্যাপক বৃষ্টি শুরু হয়। তাতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় একাধিক সড়ক। ডিকচু-সংকলন-টুং, মংগন-সংকলন, সিংথাম-রাংরাং এবং রাংরাং-টুং সহ উত্তর সিকিমের দিকে যাওয়ার একাধিক রাস্তা ভারী বৃষ্টির জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উত্তর সিকিম এবং জংগু অঞ্চলে প্রাথমিক সংযোগ ব্যবস্থার অন্যতম মাধ্যম সংকলন সেতু। সেই সেতুই ভেঙে পড়ায় পরিস্থিতি শোচনীয় হয়ে ওঠে। তার উপর খারাপ আবহাওয়ার কারণে আটকে থাকা পর্যটকদের উদ্ধার করতে সমস্যা তৈরি হয়।


সিকিম   পর্যটক  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

৪ দশমিক ৭ মাত্রার ভূমিকম্পে কাঁপল পাকিস্তান

প্রকাশ: ০৩:১৩ পিএম, ১৯ জুন, ২০২৪


Thumbnail

পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদ ও উত্তর-পশ্চিম খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের কিছু অংশে ৪ দশমিক ৭ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। বুধবার (১৯ জুন) দেশটির স্থানীয় সময় ভোর ৪টা ১৭ মিনিটে এ কম্পন অনুভূত হয়। তবে এতে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো হতাহত বা ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। খবর আরব নিউজের।

পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, পেশাওয়ার, সোয়াত, মালাকান্দ, উত্তর ওয়াজিরিস্তান, পারাচিনার, লোয়ার দির, হাঙ্গু, চরসাদ্দা এবং সোয়াবিসহ বিভিন্ন এলাকায় এ কম্পন অনুভূত হয়।

ইসলামাবাদের ন্যাশনাল সাইজমিক মনিটরিং সেন্টারের বরাত দিয়ে রেডিও পাকিস্তান সম্প্রচারকারী জানায়, ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল আফগানিস্তানের  দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল এবং এর গভীরতা ছিল ৯৮ কিলোমিটার।


ভূমিকম্প   পাকিস্তান  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

কোন দেশের কত পারমাণবিক অস্ত্র, কে এগিয়ে?

প্রকাশ: ১১:২০ এএম, ১৯ জুন, ২০২৪


Thumbnail

সবচেয়ে বেশি পারমাণবিক অস্ত্র আছে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে। পর্যায়ক্রমে এর চেয়ে কম অস্ত্র আছে রাশিয়া, বৃটেন, ফ্রান্স, চীন ভারত, পাকিস্তান, উত্তর কোরিয়া ও ইসরাইলের হাতে। এই হিসাবে পাকিস্তানের চেয়ে বেশি পারমাণবিক অস্ত্র আছে ভারতের কাছে। 

সুইডেনের চিন্তক প্রতিষ্ঠান স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্স ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই) বার্ষিক মূল্যায়নে এ কথা বলা হয়েছে। গতকাল সোমবার প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। 

স্টকহোমভিত্তিক এই পর্যবেক্ষক সংস্থা দেশগুলোর অস্ত্রশস্ত্র, নিরস্ত্রীকরণ এবং আন্তর্জাতিক নিরাপত্তাকে মূল্যায়ন করে এই প্রতিবেদন দিয়েছে।

এসআইপিআরআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমানে ৯টি দেশের কাছে পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে। এসব দেশের মধ্যে চলতি বছরের জানুয়ারিতে সবচেয়ে বেশি ৫ হাজার ৪৪টি পারমাণবিক অস্ত্রের মজুত রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে। দেশটির পারমাণবিক অস্ত্রের মজুত গত বছরের তুলনায় কমে এসেছে। ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে ৫ হাজার ২৪৪টি পারমাণবিক অস্ত্র ছিল।

একই চিত্র দেখা গেছে রাশিয়ার ক্ষেত্রেও। ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে দেশটির কাছে ৫ হাজারের বেশি পারমাণবিক অস্ত্র ছিল। বছরের ব্যবধানে কিছুটা কমলেও সেই সংখ্যা এখনো ৫ হাজারের বেশি।

এসআইপিআরআই বলছে, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্সের অস্ত্রের সংখ্যায় কোনো পরিবর্তন হয়নি। যুক্তরাজ্যের কাছে ২২৫টি ও ফ্রান্সের কাছে ২৯০টি পারমাণবিক অস্ত্র আছে।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৫০০টি পারমাণবিক অস্ত্র আছে চীনের সংগ্রহে। ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে দেশটির কাছে ৪১০টি পারমাণবিক অস্ত্র ছিল। অর্থাৎ বছরের ব্যবধানে চীনের হাতে এই অস্ত্রের সংখ্যা ৯০টি বেড়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ভবিষ্যতে এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পারমাণবিক অস্ত্রের সংখ্যা বাড়িয়েছে ভারত। ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে দেশটির কাছে ১৬৪টি পারমাণবিক অস্ত্র ছিল। গত জানুয়ারিতে এ সংখ্যা বেড়ে ১৭২ হয়েছে। অন্যদিকে পাকিস্তানের সংগ্রহে পারমাণবিক অস্ত্রের সংখ্যা ১৭০টিতে অপরিবর্তিত আছে।

এসআইপিআরআই বলছে, উত্তর কোরিয়ার কাছে ৫০টি ও ইসরায়েলের কাছে ৯০টি পারমাণবিক অস্ত্র আছে। আর এ ৯টি দেশের হাতে সব মিলিয়ে পারমাণবিক অস্ত্র আছে ১২ হাজার ১২১টি।


পারমাণবিক অস্ত্র   চীন ভারত   পাকিস্তান   রাশিয়া   যুক্তরাষ্ট্র  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন