ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

পাকিস্তানের ভবিষ্যৎ রাজনীতিতে যে ৪ সম্ভাবনা

প্রকাশ: ০৮:৪১ এএম, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪


Thumbnail

গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নানা দমন–পীড়নের মধ্যে থেকেও এ নির্বাচনে চমক দেখিয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পিটিআই–সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। ভোটের ফল ঘোষিত হওয়া জাতীয় পরিষদের ২৬৪ আসনের মধ্যে তারা পেয়েছেন সর্বোচ্চ ৯৩টি আসন। কোনো দলই এককভাবে সরকারের গঠনের জন্য সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। যে কারণে এখনো কেউ জানে না কোন দল সরকারে আসছে, কে প্রধানমন্ত্রী হবেন? এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তানে সামনে কী ঘটতে পারে তা নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি। বিবিসি পাকিস্তানের নির্বাচন নিয়ে ৪টি সম্ভাবনার কথাও বলছে।

গত বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) পাকিস্তানে জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনে ভোটগ্রহণের তিন দিন পর ২৬৫ আসনের মধ্যে অবশেষে ২৬৪ আসনের ফল ঘোষণা করা হয়েছে। গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি ৯৭ আসনে জয় পেয়েছেন ইমরান খানের দল পিটিআই সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। এরপর পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ বা পিএমএল-এন ৭৬ আসনে, পাকিস্তান পিপলস পার্টি ৫৪ আসনে জয়ী হয়েছে। এ ছাড়া অন্যান্য ছোট দল পেয়েছে ৩৭টি আসন।

পাকিস্তানের সংবিধান অনুযায়ী, রাজনৈতিক দলগুলোকে আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারির মধ্যে সরকার গঠন করতে হবে। ইসলামাবাদ থেকে বিবিসি উর্দুকে রাজনৈতিক বিশ্লেষক রফিউল্লাহ কাকার বলেছেন, এটি একটি খণ্ডিত ম্যান্ডেট- যেখানে কোনো দলই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। তবুও তাদের অস্তিত্ব রক্ষায় একটি সাধারণ ভিত্তি খুঁজে বের করতে হবে বা একটি জোট সরকার গঠন করতে হবে।

নির্বাচনে কোনো দল একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় জোট সরকার গঠন করতে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছে বড় দলগুলো। তবে এখানো কোনো সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি রাজনৈতিক নেতারা। এখন মিলিয়ন ডলারের প্রশ্ন হলো পাকিস্তানে সামনে কী হবে? নিচে এই ধরনের চারটি সম্ভাবনা তুলে ধরা হলো :

বিলাওয়ালের সঙ্গে হাত মেলাতে পারেন নওয়াজ: ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সামিনা ইয়াসমিন বিবিসিকে বলেছেন, একটি বিষয় হতে পারে- পিএমএল-এন ও পিপিপির কয়েকটি ছোট দল নিয়ে জোট সরকার গঠন করতে পারে। দল দুটি ২০২২ সালে ইমরান খানকে ক্ষমতাচ্যুত করতে জোট গড়েছিল এবং গত আগস্ট পর্যন্ত দেশ শাসন করেছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী কে হবেন, প্রেসিডেন্ট কে হবেন এবং অন্যান্য প্রদেশে ক্ষমতার ভাগাভাগি কেমন হবে সেসব বিষষের মধ্যে তাদের আলোচনা আটকে আছে।

গত রোববার নওয়াজ শরিফের ছোট ভাই শাহবাজ শরিফের নেতৃত্বে পিএমএল-এনের একটি প্রতিনিধি দল পিপিপির সঙ্গে বৈঠক করেছে। অবশ্য সে বৈঠকে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি পিপিপি। বর্তমান পরিস্থিতিতে কিছুটা সময় নিয়ে আগানোর নীতি নিয়েছেন বিলাওয়াল। এ ছাড়া এমকিউএম ও অন্যান্য স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সঙ্গেও আলোচনা অব্যাহত রেখেছে পিএমএল-এন। এবারের নির্বাচনে ১৭টি আসন পেয়েছে দলটি।

পিটিআইয়ের সঙ্গে জোট করতে পারে পিপিপি: পিটিআইয়ের সঙ্গে জোট গঠন করবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে পিপিপির সিনিয়র নেতা শেরি রেহমান বলেছেন, তাদের দরজা সবার জন্য খোলা। তবে ইমরান খানের মিডিয়া উপদেষ্টা জুলফি বুখারি বিবিসিকে বলেছেন, পিটিআই যদি সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পায় তখন জোট গঠন না করে বিরোধীদলের আসনে বসবে। এর আগেও একই ধরনের কথা বলেছিলেন ইমরান খান। ২০১৮ সালে তিনি বলেছিলেন, জোট সরকার দুর্বল। পাকিস্তান যে সংকটের মুখোমুখি রয়েছে তা কাটিয়ে উঠতে একটি শক্তিশালী সরকারের প্রয়োজন। অবশ্য এমন কথা বলার পরও তিনি এমকিউএম-এর মতো ছোট দলের সঙ্গে জোট গঠন করে সরকারে এসেছিলেন।

পিটিআইয়ের সঙ্গে জোট গড়তে পারে পিএমএল-এন: পাকিস্তানের বর্তমান জটিল পরিস্থিতিতে কোনো কিছুই একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না। পিটিআই যদি পিএমএল-এনের সঙ্গে জোট সরকার গঠন করে তাহলে নির্বাচনী নাটকে নতুন বড় মোড় আসবে। পিএমএল-এনের সিনিয়র নেতা আজম নাজির তারারের বক্তব্যে এমন বিয়ষটি উঠে এসেছে। তিনি বলেন, তারা এমন একটি অংশগ্রহণমূলক জোট সরকার গড়তে চান যেখানে সবার হাত মেলানো উচিত। বর্তমান পরিস্থিতিতে যে পিটিআইকে কোনোভাবে এড়ানো যাবে না তার কথায় এমনটা উঠে এসেছে।

ছোট দলের সঙ্গে জোটবদ্ধ হতে পারে পিটিআই: আরেকটি সম্ভাবনা হলো পিটিআই-সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জোট সরকার গঠনের জন্য একটি ছোট দলে যোগ দিতে পারেন। মূলত সংরক্ষিত ৬০টি আসন পেতে এমন কাজ করতে পারে তারা।

নিয়ম অনুযায়ী, সংসদে প্রতি ৩ দশমিক ৫ আসনের জন্য একটি সংরক্ষিত নারী আসন পাবে কোনো রাজনৈতিক দল। তবে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা কোনো দলের না হওয়ায় তারা এসব আসনের ভাগ পাবে না। এ জন্য নির্বাচনের ফলাফল চূড়ান্ত হওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে স্বতন্ত্রদের অবশ্যই একটি দলে যোগদান করতে হবে কিংবা স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

লাহোর ইউনিভার্সিটি অব ম্যানেজমেন্ট সায়েন্সেসের আসমা ফয়েজ বিবিসিকে বলেছেন, পিটিআই জোট সরকার গঠন করতে পারবে এমন সম্ভাবনা খুব কম। কারণ ছোট ছোট দলের সঙ্গে জোট করলেও সরকার গঠনের মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা তারা পাবে না।


পাকিস্তান   নির্বাচন   ভবিষ্যৎ  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

পাকিস্তানে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের ভোট রোববার

প্রকাশ: ০৮:৫৫ এএম, ০১ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

পাকিস্তানের ১৬তম ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি তথা জাতীয় পরিষদের উদ্বোধনী অধিবেশন শুরু হয়ে গেছে। অধিবেশনের শুরুতেই শপথ নিয়েছেন পার্লামেন্টের নতুন সদস্যরা। এবার হবে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন ও মন্ত্রিসভার গঠন।

পাকিস্তানে প্রধানমন্ত্রী কে হবেন তার নির্বাচন আগামী রোববার (৩ মার্চ) অনুষ্ঠিত হবে। দেশটির জাতীয় পরিষদ সচিবালয় এ তথ্য জানিয়েছে। খবর ডনের

জাতীয় পরিষদ সচিবালয় (এনএ) কর্তৃক জারি করা তফসিল অনুযায়ী, প্রার্থীরা শনিবার (২ মার্চ) দুপুর ২টা পর্যন্ত তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারবেন। ওই দিনই মনোনয়ন যাচাই-বাছাইয়ের কাজ শেষ হবে।

পাকিস্তানে বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় পরিষদের উদ্বোধনী অধিবেশন শুরু হয়। এ অধিবেশনে গত ৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত নির্বাচনে নির্বাচিত প্রার্থীরা শপথ গ্রহণ করেন। এরপরই প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের এমন সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এদিকে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-এন (পিএমএল) এর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী পদে শাহবাজ শরীফকে মনোনীত করা হয়েছে। অন্যদিকে ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহেরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) থেকে ওমর আইয়ুবকে মনোনীত করা হয়েছে। 

পাকিস্তানের ১৬তম জাতীয় পরিষদের উদ্বোধনী অধিবেশন শপথ নিয়েছেন নওয়াজ শরিফের পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন), বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি), ইমরান খানের পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই), জামিয়াত উলেমা-ই-ইসলাম-ফজলুল (জেইউআই-এফ) এবং অন্যান্য রাজনৈতিক দল থেকে নির্বাচিত পার্লামেন্ট সদস্যরা।


পাকিস্তান   প্রধানমন্ত্রী   নির্বাচন   উদ্বোধন   শপথ   পিটিআই  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

সেনেগালে অভিবাসীবাহী নৌকাডুবি, মৃত ২০

প্রকাশ: ০৮:৪৪ এএম, ০১ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ সেনেগালে অভিবাসীবাহী একটি নৌকা ডুবিতে প্রায় ২০ জন অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে। নৌকাটিতে প্রায় ৩০০ জন আরোহী ছিলেন এবং নৌকাডুবির ঘটনায় এখনও অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন। 

শুক্রবার (১ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তর সেনেগালের উপকূলে নৌকা ডুবে প্রায় ২০ জন অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে বলে দেশটির প্রধানমন্ত্রী আমাদু বা বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন। গত বুধবার সেন্ট-লুইস শহরের কাছে অভিবাসীবাহী এই নৌকাটি ডুবে যায়। 

অ্যালার্ম ফোন নামে অভিবাসীদের সহায়তাকারী একটি পরিষেবা সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্সে দেওয়া এক বার্তায় বলেছে, বুধবার সেন্ট-লুইস শহরের কাছে ডুবে যাওয়ার আগে নৌকাটি প্রায় ৩০০ জন লোককে বহন করছিল এবং কেউ কেউ তীরে পৌঁছাতে পারলেও অন্যরা এখনও নিখোঁজ রয়েছে।

রয়টার্স বলছে, হাজার হাজার মানুষ প্রতি বছর পশ্চিম আফ্রিকার উপকূল ছেড়ে ইউরোপে পৌঁছানোর জন্য সমুদ্রপথে বিপজ্জনক যাত্রায় নামে এবং সমুদ্রে কত মানুষের মৃত্যু হয়েছে তার সম্পূর্ণ সংখ্যা এখনও অজানা।


পশ্চিম আফ্রিকা   নৌকাডুবি   মৃত্যু  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

মারা গেছেন কানাডার সাবেক প্রধানমন্ত্রী ব্রায়ান

প্রকাশ: ০৮:৩০ এএম, ০১ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

কানাডার সাবেক প্রধানমন্ত্রী ব্রায়ান মাররুনে পরলোক গমন করেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। ১৯৮৪ সাল থেকে ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত কানাডার ১৮তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন ব্রায়ান।

ব্রায়ানের মেয়ে ক্যারোলিন মাররুনে বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) মাইক্রো ব্লগিং সাইট এক্স এক পোস্টে জানিয়েছেন, পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে শান্তিপূর্ণ মৃত্যু হয়েছে তার। ওই সময় পরিবারের সদস্যদের দ্বারা বেষ্টিত ছিলেন তিনি। 

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির জন্য বিখ্যাত হয়েছিলেন ব্রায়ান মাররুনে। তবে একজন অস্ত্র ব্যবসায়ীর সঙ্গে ‘অবৈধ’ ব্যবসার জন্য নিজের অর্জিত খ্যাতির ক্ষতি করেছিলেন তিনি।

কর্পোরেট আইনজীবী থেকে ব্যবসায়ী হিসেবে সুনাম অর্জন করা ব্রায়ানের নেতৃত্বে ১৯৮৪ সালে মধ্যডানপন্থি দল প্রোগ্রেসিভ কনজারভেটিভকে এক ঐতিহাসিক জয় পায়। ওই বছর উদারপন্থী পিয়া ট্রুডোর দল তার দলের কাছে হেরে যায়।


কানাডা   সাবেক প্রধানমন্ত্রী   ব্রায়ান মাররুন  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে টেক্সাস

প্রকাশ: ০৮:৫৩ পিএম, ২৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪


Thumbnail

ইতিহাসের দ্বিতীয় বৃহত্তম দাবানলে পুড়ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গরাজ্য টেক্সাস। গরম আবহাওয়া ও জোরালো শুষ্ক বাতাসের কারণে দ্রুতই এটি ছড়িয়ে পড়েছে প্রায় ১০ লাখ একর এলাকায়। তাছাড়া এই দাবানল টেক্সাসের সীমানা পেরিয়ে পাশের অঙ্গরাজ্য ওকলাহোমাতেও ছড়িয়ে পড়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি।

২৬ ফেব্রুয়ারি বিকেল থেকে টেক্সাসের হাচিনসন কাউন্টি শুরু হয় এই দাবানল। পরে এর আগুন দ্রুতই আশেপাশের বিস্তীর্ণ এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এরই মধ্যে ৮ লাখ ৫০ হাজার একর জমিতে ছড়িয়ে পড়েছে এই দাবানল এবং এটির তীব্রতা ক্রমেই নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের।

টেক্সাসের হাচিনসন কাউন্টির এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, দাবানলের কারণে জয়েস ব্ল্যাঙ্কেনশিপ নামে ৮৩ বছর বয়সী এক বৃদ্ধার প্রাণহানিও ঘটেছে। তাছাড়া এর কারণে অভাবনীয় ক্ষতির আশঙ্কা করছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ কয়েকদিন সময় লেগে যাবে বলে জানিয়েছে তারা।

টেক্সাস ফরেস্ট্রি সার্ভিস জানিয়েছে, দাবানলে হাচিনসন কাউন্টির শতাধিক বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে প্যান্ডেলহাম শহরের পারমাণবিক অস্ত্র তৈরির কারখানা। বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন হাজার হাজার বাসিন্দা।

এদিকে, ৬০টি কাউন্টিতে দুর্যোগ ঘোষণা করেছেন টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট। তিনি বলেন, উচ্চ তাপমাত্রা ও শুষ্ক বাতাস দাবানলের ভয়াবহতা আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে। এজন্য স্ফুলিঙ্গ সৃষ্টি করতে পারে এমন কাজ থেকে টেক্সাসবাসীদের বিরত থাকতে হবে। নিজেকে ও প্রিয়জনদের নিরাপদে রাখতে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হবে।

এদিকে, দাবানল টেক্সাসের সীমানা পেরিয়ে ওকলাহোমা অঙ্গরাজ্যেও ছড়িয়ে পড়েছে। কলাহোমা ফরেস্ট্রি সার্ভিসেস জানিয়েছে, এরইমধ্যে এই অঙ্গরাজ্যের অন্তত ৩০ হাজার একর এলাকা ও ১৩টি বাড়ি পুড়ে গেছে। এতে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে গভীর আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে।

এর আগে, ২০০৬ সালে টেক্সাসে সর্বকালের সবচেয়ে বড় দাবানলের ঘটনা ঘটেছিল। স্ট অ্যামারিলো কমপ্লেক্স নামে পরিচিত ওই দাবানলে ৯ লাখ ৭ হাজারেরও বেশি একর জায়গা পুড়ে গিয়েছিল। তার আগে ১৯৮৮ সালে ভয়াবহ দাবানলে টেক্সাসের ৩ লাখ ৬৬ হাজার একর এলাকা পুড়ি গিয়েছিল।


মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র   টেক্সাস   দাবানল  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

সমালোচনার মুখে মরিয়াম নওয়াজ

প্রকাশ: ০৮:৪২ পিএম, ২৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪


Thumbnail

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের সদ্য নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী মারিয়াম নওয়াজ প্রদেশটির নিরাপত্তা বিষয়ক কার্যালয় পরিদর্শনে গিয়ে এক নারী পুলিশ কর্মকর্তার মাথার ওড়না ঠিক করে দেয়ার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এরপরই শুরু হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা।

পাকিস্তানের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের মেয়ে মারিয়ম নওয়াজ পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন নির্বাচিত হয়ে তিনি পাকিস্তানের সাত দশকের মধ্যে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন। তবে ইতিহাস গড়লেও এরইমধ্যে সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ডনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা গেছে,পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী মরিয়ম নওয়াজ পুলিশের এক কর্মকর্তার মাথা থেকে ওড়না সরে যাওয়ায় তা নিজের হাতে ঠিক করে দেন। আর এ ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। প্রদেশের নিরাপত্তাবিষয়ক কার্যালয় পরিদর্শনে যান। সেখানে এক নারী কর্মকর্তা কম্পিউটারে কাজ করছিলেন। আর পাশে দাঁড়িয়ে দেখছিলেন নওয়াজ। একপর্যায়ে পুলিশ কর্মকর্তার মাথা থেকে ওড়না সরে গেলে নিজ হাতে তিনি সেটি তুলে ঠিক করে দেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মুখ্যমন্ত্রীর জনসংযোগ বিভাগ এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করেন। ক্যাপশনে কর্মকর্তারা বিষয়টিকে ‘সহানুভূতি ও বোঝাপড়ার মুহূর্ত’ উল্লেখ করলেও এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বিষয়টি দ্রুতই ছড়িয়ে পড়ে এবং নেটিজেনরা এ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানান।

নেটিজেনদের একটি অংশ বিষয়টি নিয়ে মরিয়মকে বাহবা দিয়েছেন। অন্যদিকে আরেকটি অংশ সমালোচনা করেছেন। তাদের দাবি, পুলিশ কর্মকর্তার ব্যক্তিগত বিষয়ে তিনি হস্তক্ষেপ করেছেন। তিনি তাকে অস্বস্তিতে পড়েন।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিষয়টি নিয়ে জরিপ চালিয়েছেন তারা। এতে ৩৩ শতাংশ কাজটি ঠিক বলে মতো দিয়েছেন। অন্যরা বিষয়টির সমালোচনা করেছেন। তাদের দাবি, মিরয়ম কাজটি ঠিক করেননি। তিনি বাস্তব আলোচনার চেয়ে ব্যক্তির পোশাককে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন।

কেউ কেউ বলেছেন, মরিয়ম ধর্মীয় উগ্রবাদিতা ও গোঁড়ামি থেকে এটি করেছেন তিনি। এতে করে আরও অনেকে নারীদের ওপর এমনভাবে নিজেদের ধর্মীয় গোঁড়ামি প্রয়োগে উৎসাহিত হবেন। আরেকজন বলেন, মরিয়মের কিছু করার দরকার ছিল না। ওড়না যেমন ছিল তেমন থাকুক। এটি ঠিক করে দেওয়া মুখ্যমন্ত্রীর কাজ নয়।

বুধবার মরিয়মের দল পিএমএলএনের নেতা আজমা বোখারি এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, পুলিশ কর্মকর্তার কাজের সময় মাথার ওড়না পড়ে গিয়েছিল। মরিয়ম তাৎক্ষণিক মা বোনের মতো মমতার সাথে সেটি ঠিক করে দিয়েছেন। মনে হচ্ছে সন্তানতুল্য একজনের সঙ্গে তিনি এমনটি করছেন।


পাকিস্তান   মরিয়াম নওয়াজ   মুখ্যমন্ত্রী  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন