ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

চার উগ্র ইসরায়েলির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিল ব্রিটেন

প্রকাশ: ০৯:১৮ এএম, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪


Thumbnail

ফিলিস্তিনিদের পশ্চিম তীরবর্তী বাসিন্দাদের ওপর সহিংস হামলার জেরে চার উগ্র ইসরায়েলি বসতি স্থাপনকারীর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ব্রিটেন। নিষেধাজ্ঞার আওতায় তাদের ওপর আর্থিক কড়াকড়ি এবং ভ্রমণে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। গণমাধ্যমের প্রতিবেদনসূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন এক বিবৃতিতে বলেছেন, আজকের নিষেধাজ্ঞা মানবাধিকারের সবচেয়ে ভয়াবহ লঙ্ঘনের সঙ্গে জড়িতদের ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। এখানে কী ঘটছে সে সম্পর্কে আমাদের পরিষ্কার হওয়া উচিত।

তিনি বলেন, ইসরায়েলি বসতির চরমপন্থী ওই ইসরায়েলিরা ফিলিস্তিনিদের হুমকি দিচ্ছে। প্রায়ই মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে এই হুমকি দেওয়া হচ্ছে এবং তাদেরকে তাদের ভূমি থেকে সরানো হচ্ছে, যে ভূমি অধিকারবলে ওই ফিলিস্তিনিদের।

ক্যামেরন বলেন, এই ধরনের আচরণ অবৈধ। এটা মেনে নেওয়া যায় না। ইসরায়েলকে শক্ত ব্যবস্থা নিতে হবে এবং বসতিস্থাপনকারীদের সহিংসতা বন্ধ করতে হবে। আমরা প্রায়ই দেখছি, প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়, মুচলেকা দেওয়া হয়। কিন্তু তা মেনে চলা হয় না।

এর আগে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ মাসের শুরুর দিকে পশ্চিম তীরে সহিংসতায় জড়িত থাকার অভিযোগে চার ইসরায়েলির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। সেসময় তিনি বলেন, পশ্চিম তীরে সহিংসতা ‘অসহনীয় পর্যায়ে’ পৌঁছেছে।

গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাসের সদস্যরা ইসরায়েলের অভ্যন্তরে নজিরবিহীন হামলা চালানোর পর থেকে পশ্চিম তীরে ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলার ঘটনা বেড়েছে।


ফিলিস্তিন   ইসরায়েল   হামলা   ব্রিটেন  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

রাশিয়ার ফাঁস করা রেকর্ডিং নিয়ে জার্মানিতে আলোড়ন

প্রকাশ: ০৭:৩৪ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

ইউক্রেনকে শক্তিশালী টাউরুস ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহের বিষয়ে জার্মান বিমানবাহিনীর কর্মকর্তাদের গোপন আলোচনার রেকর্ডিং ফাঁস করে জার্মানিতে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে রাশিয়া ৷ এই ঘটনার পরিণতি নিয়ে বেশ বিতর্ক চলছে। 

রাশিয়ার সংবাদমাধ্যমে শুক্রবার সেই গোপন কথোপকথন ফাঁস হয়ে যাওয়ায় জার্মানিতে প্রবল তর্ক-বিতর্ক চলছে। জার্মানির স্থিতিশীলতা বিঘ্নের অভিযোগও উঠছে।

জোট সরকারের নিরাপত্তা বিষয়ক বিশেষজ্ঞরা স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে যোগাযোগের ক্ষেত্রে নিরাপত্তা আরো বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছেন। এভাবে আরো জোরালোভাবে গুপ্তচরবৃত্তি মোকাবিলার ডাক দিচ্ছেন সরকার ও বিরোধী পক্ষের নেতারা। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জার্মানির জেনারেল গেরহার্টজ ভিডিও কলে বলেছেন, ‘ব্রিটিশ সেনারা (ইউক্রেনের) রণভূমিতে ছিল’। রাশিয়া অনেক দিন থেকেই এই অভিযোগ করে আসছে যে, ইউক্রেনে ব্রিটিশ সেনারাও লড়ছে কিয়েভের পক্ষ হয়ে। বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে ন্যাটো মিত্র দেশগুলো মধ্যে বিভাজন ও অন্তর্দ্বন্দ্ব প্রকট হয়েছে। সম্প্রতি রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় একটি সম্প্রচার মাধ্যমে এই কলের একটি রেকর্ডিং প্রচারিত হয়। 

এই ঘটনা প্রকাশিত হওয়ার পর জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রী বরিস পিস্টোরিয়াস গতকাল রোববার বলেছেন, ভ্লাদিমির পুতিন এই রেকর্ডিং ব্যবহার করে জার্মানিকে ‘অস্থিতিশীল’ করার অপচেষ্টা করছেন এবং ‘তথ্য যুদ্ধ’ দিয়ে পশ্চিমাদের মধ্যে বিভাজনের বীজ বোপনের ফন্দি করছেন। 

এদিকে, জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস এই রেকর্ডিং ফাঁস হওয়ার ঘটনাকে ‘খুবই গুরুতর’ বলে আখ্যা দিয়েছেন এবং এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।


রাশিয়া   জার্মানি   ইউক্রেন   জার্মান বিমানবাহিনী  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ইসরায়েলের প্রতি কড়া বার্তা কমলা হ্যারিসের

প্রকাশ: ০৭:১০ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় প্রস্তাবিত ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি চুক্তি গ্রহণের জন্য ইসরায়েলের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিয়েছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। 

তিনি বলেছেন, ইসরায়েল গাজায় মানবিক বিপর্যয় রোধে যথেষ্ট উদ্যোগ নিচ্ছে না। একই সঙ্গে তিনি হামাসকেও যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। 

রোববার যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামা অঙ্গরাজ্যে দেওয়া এক বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। গাজায় চরম দুর্ভোগের পরিপ্রেক্ষিতে উপত্যকায় অন্তত ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি অবিলম্বে দরকার- বলে উল্লেখ করেন তিনি। খবর এএফপির। 

কমলা হ্যারিস তার বক্তব্যে গাজায় অপর্যাপ্ত ত্রাণসহায়তা নিয়ে ইসরাইলের সমালোচনা করেছেন। গাজায় ত্রাণ সরবরাহ বাড়াতে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু সরকারের প্রতি কড়া ভাষায় আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। বলেছেন, ‘ত্রাণসহায়তার প্রবাহ উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়াতে ইসরাইল সরকারকে অবশ্যই আরও কিছু করতে হবে। এক্ষেত্রে কোনো অজুহাত চলবে না। '

ইসরাইলকে নিয়ে এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের কোনো কর্মকর্তার সবচেয়ে কড়া মন্তব্য এটি। 


ইসরায়েল   গাজা উপত্যকা   যুদ্ধবিরতি   কমলা হ্যারিস  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

১,০০০ প্রবাসী কর্মী নেবে সৌদি আরব

প্রকাশ: ০৫:৩২ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

মধ্যপ্রাচ্যের ধনী দেশ সৌদি আরবে ধারাবাহিকভাবে প্রবাসী কর্মী নিয়োগের ঘোষণা দিয়েছে। স্বাস্থ্যসেবা খাতে ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে বিদেশ থেকে নার্স নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি। ধাপে ধাপে বিভিন্ন দেশ থেকে নার্স নেয়া হবে। তবে এবার প্রথমধাপে এক হাজার কর্মী নেবে দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা থেকে। খবর গালফ নিউজ।  

শ্রীলঙ্কার শ্রম মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আগামী ১২ মাসে সৌদি আরবে কর্মসংস্থানের সুযোগ পাবেন এক হাজার নার্স। এরই মধ্যে গত সপ্তাহে কলম্বোয় প্রথম দফার নিয়োগ সম্পন্ন হয়েছে।

দেশটির শ্রম ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মিডিয়া সেক্রেটারি সঞ্জয় নাল্লাপেরুমা জানিয়েছেন, চিকিৎসা খাতে ক্রমবর্ধমান চাহিদা মেটাতে শ্রীলঙ্কাসহ অন্যান্য দেশ থেকে মেডিকেল ও প্যারামেডিকেল কর্মী নিয়োগ করতে চাইছে রিয়াদ।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রাথমিকভাবে বিদেশ থেকে এক হাজার নার্স নিয়োগের লক্ষ্য নিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। প্রথম পর্যায়ে শ্রীলঙ্কায় ৪০০ জন আবেদনকারীর মধ্য থেকে বিজ্ঞানে স্নাতক ডিগ্রিধারী ৯৫ জন নার্সকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

এসব নার্স সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে দেশটির বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে কাজ করবেন। নিয়োগের পরবর্তী ধাপ শুরু হবে আগামী আগস্ট মাসে।


মধ্যপ্রাচ্য   শ্রীলঙ্কা   সৌদি আরব   প্রবাসী কর্মী  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

নির্বাচনের আগে মন্ত্রিসভার সদস্যদের উদ্দেশ্যে নরেন্দ্র মোদির বার্তা

প্রকাশ: ০৫:১৮ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

ভারতে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে মন্ত্রিসভার সদস্যদের উদ্দেশ্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, আপনারা নির্বাচনী প্রচারণায় বেরিয়ে পড়ুন, মানুষের সাথে দেখা করুন, তাদেরকে সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের কথা জানান। তবে কোন বিতর্কিত মন্তব্য করবেন না। জিতে আসুন, জয়ের পর খুব শিগগিরই আপনাদের সঙ্গে দেখা হবে।

রবিবার দিল্লিতে মন্ত্রী পরিষদের শেষ বৈঠকে নিজের সহকর্মীদের উদ্দেশ্যে এসব বার্তা  দেন মোদি। 

 বৈঠকের বিষয়বস্তু ছিল 'উন্নত ভারত ২০৪৭' সম্পর্কিত বিষয় নিয়ে আলোচনা করা। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে টানা প্রায় ১০ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে চলে ওই বৈঠক।

বৈঠকে লোকসভার নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া মন্ত্রীদের উদ্দেশ্যে তার পরামর্শ জনসমক্ষে কথা বলার সময় তারা যেন সংযমী হন এবং অতি সাবধানতার সাথে শব্দ চয়ন করেন।

এছাড়াও, তিনি পরামর্শ দেন যে, মানুষের সাথে আলাপচারিতাকালে টিকিট পাওয়া মন্ত্রীরা যেন সরকারের নীতিগুলি অর্থাৎ উন্নয়নকে তরান্বিত করতে এবং সমাজের সকল শ্রেণির মানুষের কল্যাণ নিশ্চিত করতে সরকারের নেওয়া একাধিক পদক্ষেপ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন এবং কোন রকম বিতর্কিত মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকেন। 

ভোটের সময় জনগণের সমর্থন পেতে মন্ত্রীদের অলআউট ঝাঁপিয়ে পড়ার নির্দেশ দিয়ে নরেন্দ্র মোদি বলেন, 'আপনারা যান, জিতে আসুন, জয়ের পরে আবার দেখা হবে'। 


ভারত   বৈঠক   লোকসভা   নরেন্দ্র মোদি   নির্বাচন  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

‘ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক’ নিয়ে পিনাক রঞ্জনের বই

প্রকাশ: ০৪:৫২ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

 ‘ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক’ নিয়ে বাংলাদেশে ভারতের সাবেক হাইকমিশনার পিনাক রঞ্জন চক্রবর্তী বই লিখেছেন। বইটির নাম- Transformation Emergence of Bangladesh and Evolution of India-Bangladesh Ties, যার বাংলা অর্থ দাঁড়ায় ‘বাংলাদেশের রূপান্তর উত্থান এবং ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কের বিবর্তন’।

স্বাধীনতা পরবর্তী প্রতিবেশী দেশগুলো- বিশেষ করে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্র নীতির বিভিন্ন দিক তুলে ধরা হয়েছে বইটিতে। 

এতে বলা হয়েছে, জনসংখ্যার দিক থেকে তৃতীয় বৃহত্তম প্রতিবেশী বাংলাদেশের জন্মলগ্ন থেকেই ভারত দেশটির সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। 

বইটিতে বিগত অর্ধ শতাব্দীতে ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিভিন্ন দিক উল্লেখ করা ছাড়াও উপমহাদেশে একটি নতুন জাতি হিসেবে বাংলার ইতিহাস, দেশভাগ এবং বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের কীভাবে জন্ম হল তা তুলে ধরা হয়েছে।

দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ছাড়াও বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ উন্নয়ন, চ্যালেঞ্জ যেমন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর রাজনৈতিক অস্থিরতা, সামরিক বাহিনীর রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ, ধর্মনিরপেক্ষতা ও ধর্মতন্ত্রের মধ্যে সংঘাত, চাকমা বিদ্রোহসহ বিভিন্ন বিদ্রোহ, সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা, গণতন্ত্রকে টিকিয়ে রাখা ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হয়েছে বইটিতে।

সেই সঙ্গে বাংলাদেশের বিস্ময়কর অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের মৌলিক রূপান্তরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসামান্য অবদানের বিষয়টিও আলোকপাত করা হয়েছে।

পিনাক রঞ্জন চক্রবর্তী ১৯৭৭ সালে ভারতীয় ফরেন সার্ভিসে যোগ দেন। তার কূটনৈতিক কর্মজীবনে তিনি মিশর, সৌদি আরব, যুক্তরাজ্য, পাকিস্তান, ইসরায়েল, বাংলাদেশ এবং থাইল্যান্ডে কাজ করেছেন। নয়াদিল্লিতে তিনি প্রটোকল এবং আমেরিকাস ডিভিশনে, ডেপুটি কো-অর্ডিনেটর, সার্ক সামিট ১৯৯৫ এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিফ অব প্রটোকলের দায়িত্ব পালন করেন।

অ্যামাজন ও রকমারিতে বইটি পাওয়া যাচ্ছে।


ভারত   বাংলাদেশ   বই   পিনাক রঞ্জন  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন