ইনসাইড গ্রাউন্ড

উইজডেনের চোখে বিশ্বকাপের সেরা যে ‘পাঁচ’ ইনিংস

প্রকাশ: ১০:১৪ পিএম, ২০ নভেম্বর, ২০২৩


Thumbnail

বিশ্বকাপ মানেই বিশেষ কিছু ঘটবে, বিশেষ কিছু ম্যাচ হবে। আর বিশেষ ম্যাচে হবে বিশেষ কোনও রেকর্ড। যা ক্রিকেট ভক্তদের মনে গেঁথে থাকে যুগের পর যুগ। ওই বিশেষ ম্যাচগুলোই দলগুলোকে নিয়ে যায় বিশ্বকাপের চূড়ান্ত সাফল্যের দিকে।

 

এবারের বিশ্বকাপের এমনই দূর্দান্ত ৫টি ইনিংসকে সেরা বলে ঘোষণা করেছে 'ক্রিকেটের বাইবেল'খ্যাত ম্যাগাজিন উইজডেন। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক উইজডেনের চোখে বিশ্বকাপের সেই সেরা ইনিংসগুলো-

 

১। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (১২৪ বলে ২০১*):

শুধু উইজডেনের নয়। পুরো ক্রিকেটবিশ্বের চোখেই এটি সেরা ইনিংস। মুম্বাইয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ২০১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

 

ম্যাচের মাঝখানে ইনজুরিতে পড়ে মাঠে শুয়ে পড়েছিলেন এই অসি ব্যাটার। সেখান থেকে উঠে একপায়ে দাঁড়িয়ে খেললেন ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসের সেরা ইনিংস। ২৯২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা অস্ট্রেলিয়া ৯১ রানে হারিয়েছিল ৭ উইকেট। সেখান থেকে দলকে একাই টেনে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে দেন ম্যাক্সওয়েল।

 

 

 

২। ট্রাভিস হেড (১২০ বলে ১৩৭):

ফাইনালের চোখ ধাঁধানো ইনিংস। দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে হেড একাই শিরোপাবঞ্চিত করে দিয়েছেন ভারতকে। আহমেদাবাদে ৪৭ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া অস্ট্রেলিয়াকে ষষ্ঠ শিরোপা তুলে দিলেন হেডই। জয়ের জন্য অসিদের প্রয়োজন ছিল ২৪১ রান। হেড একাই করলেন ১৩৭ রান।

 

৩। ডেভিড মিলার (১১৬ বলে ১০১):

দলের কঠিন সময়ে ৬ নম্বরে ব্যাট করতে নেমেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটার ডেভিড মিলার। তখন প্রোটিয়াদের ২৪ রানে ৪ উইকেট নেই। কলকাতায় প্রথম সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার এমন চাপের মুখে প্রোটিয়া ব্যাটার তুলে নিলেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ সেঞ্চুরি। দলকে এনে দিলেন ২১২ রানের সম্মানজনক পুঁজি। যদিও অসিদের কাছে শেষমেষ হেরে বিদায় নিতে হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকাকে, তবে মিলারের ইনিংসেই পাওয়া পুঁজি নিয়েই শেষ পর্যন্ত মরণপন লড়াই করে তারা।

 

৪। ফখর জামান (৮১ বলে ১২৬):

দল থেকে বাদই পড়ে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে এসে বেঙ্গালুরুর মাঠে ঝড় তুললেন পাকিস্তানের ওপেনার ফখর জামান। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে খেললেন দুর্দান্ত ১২৬ রানের ইনিংস। ওই ম্যাচে পাকিস্তানকে ৪০২ রানের লক্ষ্য দিয়েছিল কিউইরা। বৃষ্টির কারণে ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে ওই ম্যাচে ২১ রানের জয় পায় পাকিস্তান। সেই ম্যাচে জয়ের নায়ক ছিলেন ফখর।

 

 

৫। রহমানুল্লাহ গুরবাজ (৫৭ বলে ৮০):

সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গুরবাজের ম্যাচজয়ী ইনিংস এটি। গুরবাজের ৮০ রানের দুর্দান্ত ইনিংসের উপর ভর করে ২৮৪ রানের সংগ্রহ পায় আফগানিস্তান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২১৫ রানে অলআউট হয়ে যায় ইংল্যান্ড। দিল্লির ওই ম্যাচে আফগান স্পিনারদের তোপের মুখে পড়েই মূলত খেই হারিয়ে ফেলেছিল ইংলিশরা।


ইনিংস   ক্রিকেট   বিশ্বকাপ ক্রিকেট ২০২৩  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

বাংলাদেশের সামনে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য দিল শ্রীলংকা

প্রকাশ: ০৭:৪৭ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসেছে শ্রীলংকা। এর মধ্যে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের মধ্য দিয়ে আজ পর্দা উঠেছে বাংলাদেশ-শ্রীলংকার লড়াইয়ের।

সিরিজের প্রথম টি-২০ তে আজ সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শ্রীলংকার বিপক্ষে খেলতে নেমে শুরুতেই টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। যেখানে ঘটনাবহুল ইনিংসে তিন উইকেটে ২০৬ রান সংগ্রহ করেছে শ্রীলংকা।

শ্রীলংকার হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন আভিষ্কা ফার্নান্দো ও কুশল মেন্ডিস। শরিফুল ইসলামের করা প্রথম বলেই চার হাঁকান আভিষ্কা।

অবশ্য পরের বলেই উইকেটের পিছে ধরা পড়েন আভিষ্কা। শুরুর ধাক্কা সামলে পাল্টা আক্রমণ শুরু করেন কামিন্দু মেন্ডিস। ব্যক্তিগত দ্বিতীয় ওভারে তাকে সৌম্য সরকারের তালুবন্দী করেন তাসকিন আহমেদ। কামিন্দু ফেরেন ১৯ রানে।

শুরুতেই দুই উইকেট হারানোর পর দলের হাল ধরেন কুশল মেন্ডিস ও সাদিরা সামারাবিক্রমা। যেখানে প্রথম থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন মেন্ডিস। দ্বাদশ ওভারে রিশাদ হোসেনের পর পর দুই বলে ছয় হাঁকিয়ে ফিফটি পূরণ করেন এ ব্যাটার।

দারুণ খেলতে থাকা মেন্ডিসকে ফেরান সেই রিশাদই। এর আগে ৫৯ রান করেন লংকান ওপেনার। একইসঙ্গে ভাঙ্গে সামারাবিক্রমার সঙ্গে তার ৯৬ রানের জুটি। ইনিংসের পরের গল্প সামারাবিক্রমা আর চারিথ আসালঙ্কার।

শেষদিকে  রানের জুটি গড়েন সামারাবিক্রমা ও আসালঙ্কা। যেখানে দারুণ এক অর্ধশতকের দেখা পান সামারাবিক্রমা। তিনি ৬১ ও আসালঙ্কা ৪৪ রানে অপরাজিত থাকেন। তাসকিন, শরিফুল ও রিশাদ একটি করে উইকেট নেন।


বাংলাদেশ   শ্রীলংকা   ক্রিকেট   টি-২০  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই উইকেটের দেখা পেল বাংলাদেশ

প্রকাশ: ০৬:১৮ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসেছে শ্রীলংকা। এর মধ্যে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের মধ্য দিয়ে আজ পর্দা উঠেছে বাংলাদেশ-শ্রীলংকার লড়াইয়ের।

সিরিজের প্রথম টি-২০ তে আজ সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শ্রীলংকার বিপক্ষে খেলতে নেমে শুরুতেই টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। যেখানে প্রথম ইনিংস শুরুর দ্বিতীয় বলেই উইকেটের দেখা পেয়েছে স্বাগতিক দল।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৩ ওভারে এক উইকেটে ২১ রান সংগ্রহ করেছে শ্রীলংকা।

সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে জয় দিয়ে শুরু করতে চায় টাইগাররা। এ দিন শ্রীলংকার হয়ে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন আভিষ্কা ফার্নান্দো ও কুশল মেন্ডিস। শরিফুল ইসলামের করা প্রথম বলেই চার হাঁকান আভিষ্কা। তবে পরের বলেই উইকেটের পিছে ধরা পড়েন তিনি।

প্রথম টি-২০তে বাংলাদেশের একাদশ: লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, তাওহীদ হৃদয়, জাকের আলী, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, শেখ মাহেদী, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান, রিশাদ হোসেন ও শরিফুল ইসলাম।


বাংলাদেশ   শ্রীলংকা   ক্রিকেট   টি-২০  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে শ্রীলংকাকে ব্যাটিংয়ে পাঠাল বাংলাদেশ

প্রকাশ: ০৫:৪৩ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসেছে শ্রীলংকা। এর মধ্যে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের মধ্য দিয়ে আজ পর্দা উঠছে বাংলাদেশ-শ্রীলংকার লড়াইয়ের।

সিরিজের প্রথম টি-২০ তে আজ সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শ্রীলংকার বিপক্ষে খেলতে নামছে শান্তর দল। লংকানদের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজটি এ বছর বাংলাদেশের জন্য প্রথম আন্তর্জাতিক অ্যাসাইনমেন্ট। ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টায়।

সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে জয় দিয়ে শুরু করতে চায় টাইগাররা। সে লক্ষ্যে শুরুতেই টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত।

শেষ কয়েকটি সিরিজে এই ফরম্যাটে সাফল্য পাওয়ায় এখন আর সহজ প্রতিপক্ষ নয় বলে নিজেদের প্রমাণ করেছে বাংলাদেশ। ২০২২ সাল থেকে এই ফরম্যাটে কোন দ্বিপাক্ষিক সিরিজে হারেনি তারা।

এ সময় সংযুক্ত আরব আমিরাত, ইংল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড এবং আফগানিস্তানের বিপক্ষে চারটি সিরিজ জিতেছে টাইগাররা। গত বছরের শেষ দিকে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠে সিরিজ ড্র করায় এই ফরম্যাটে বাংলাদেশের উন্নতি এখন স্পষ্ট।

যদিও এই সময়ে বহুজাতিক টুর্নামেন্টে প্রত্যাশিত সাফল্য পায়নি টাইগাররা। এখন পর্যন্ত ১৫৮টি টি-২০ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে ৫৯টিতে জয়, ৯৫টিতে হার এবং ৪টিতে ড্র করেছে টাইগাররা।

শ্রীলংকার বিপক্ষে এ পর্যন্ত ১৩বারের মোকাবেলায় ৪টিতে জয় এবং ৯টিতে হেরেছে বাংলাদেশ। এই সিরিজ দিয়ে লঙ্কানদের বিপক্ষে টি-২০র রেকর্ডে উন্নতি করার সুযোগ পাচ্ছে টাইগাররা।


বাংলাদেশ   শ্রীলংকা   ক্রিকেট   টি-২০  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

আর্জেন্টিনার ক্লাবের বিরুদ্ধে বেতন না পাওয়ার অভিযোগ জামালের

প্রকাশ: ০৫:৩৪ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

বিশ্ব ফুটবলে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার খেলা মাঠে গড়ালেও উচ্ছ্বাস-উন্মাদনায় লড়াই চলে এই দুই দলের দর্শকদের মাঝে। সারা বিশ্বের পাশাপাশি বাংলাদেশেও এই ফুটবল উন্মাদনা কম নয়।

গেল কাতার বিশ্বকাপে দারুণ নৈপূণ্যের সাথে খেলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল আর্জেন্টিনা। আর সেসময় বাংলাদেশে মেসি-ডিমারিয়াদের উচ্ছ্বাস-উন্মাদনা কাজে লাগিয়ে আর্জেন্টিনার ক্লাব সোল দ্য মায়ো বাংলাদেশের জামাল ভূঁইয়াকে খেলার প্রস্তাব পাঠায়, যা লুফে নিয়ে বাংলাদেশ অধিনায়কও যোগ দেন মেসি-ম্যারাডোনার দেশের ক্লাবে। কিন্তু ছয় মাস যেতে না যেতেই সেই উচ্ছ্বাস হারিয়ে গেছে। ক্লাবটির কাছ থেকে চুক্তি অনুযায়ী অর্থ না পাওয়ায় ফিফার কাছে চিঠি দিয়েছেন।

জানা গেছে, সোল দে মায়োর সঙ্গে মাসিক সাড়ে ১২ হাজার ডলার বেতনে চুক্তি করেছিলেন জামাল। তার অভিযোগ এক মাসেরও বেতন পাননি তিনি। শুধুমাত্র আর্জেন্টিনায় থাকা এবং খাবারের অর্থ যোগান দিয়েছে ক্লাবটি। যে কারণে ফিফায় অভিযোগ করেন জামাল। এরই প্রেক্ষিতে সোল দে মায়োকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছে ফিফা।

ক্লাবটি থেকে বেতন না পাওয়ায় ফিফায় অভিযোগ করার ব্যাপার জামাল বলেছেন, ‘হ্যাঁ, বেতন না পেয়ে আমি অভিযোগ করেছি।’

সোল দে মায়োর সঙ্গে দেড় বছরের চুক্তি ছিল বাংলাদেশ অধিনায়কের। কিন্তু ছয় মাস না পেরোতেই চুক্তি ভঙ্গ করে বাংলাদেশের ক্লাব আবাহনীতে নাম লিখিয়েছেন এই মিডফিল্ডার। যদিও এখনও আর্জেন্টিনার ক্লাব থেকে ছাড়পত্র পাননি জামাল।


জামাল ভুঁইয়া   বাংলাদেশ   আর্জেন্টিনা  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

আইপিএল শুরুর আগেই দুঃসংবাদ পেল ধোনির দল

প্রকাশ: ০৩:৪৯ পিএম, ০৪ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

চলতি মাসের ২২ তারিখ থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ঘরোয়া ক্রিকেট লিগের সবচেয়ে বড় আসর আইপিএল। ভারতের এই ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক লিগে সর্বদা শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে স্থানীয় এবং বিদেশি ক্রিকেটারদের সমন্বয়ে শক্তিশালী দল গঠন করে চেন্নাই সুপার কিংস (সিএসকে)।

এবারও তার ব্যতিক্রম কিছু ঘটেনি। ব্যাটার, বোলার ও অলরাউন্ডার কম্বিনেশনে এক পরিপূর্ণ দল সাজিয়েছে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল।

কিন্তু এবার আসর শুরুর আগে বড় এক ধাক্কা খেয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। দলটি আসরের শুরুতে বিদেশি এক তারকা ক্রিকেটারকে পাচ্ছে না।

জানা গেছে, আঙুলের চোটের কারণে আট সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে ছিটকে গেছেন চেন্নাইয়ের কিউই ওপেনার ডেভন কনওয়ে। এর ফলে মে মাসের শুরু পর্যন্ত তাকে পাবে না মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। যিনি চেন্নাইয়ের ব্যাটিং অর্ডারের অন্যতম স্তম্ভ, ভরসার নাম।

গত দুই মৌসুম চেন্নাইয়ের জার্সিতে দুর্দান্ত সময় পার করেছেন কনওয়ে। গতবার শিরোপা জয়েও বড় ভূমিকা ছিল এই কিউই ব্যাটারের। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছে, কনওয়ের বাঁ হাতের বুড়ো আঙুলে স্ক্যান করা হয়েছে। সেখানে অস্ত্রোপচার করানো হবে।

এর ফলে কনওয়েকে অন্তত আট সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে। তিনি না থাকায় গায়কোয়াড়ের সঙ্গে ওপেনিংয়ে দেখা যেতে পারে রাচিন রবীন্দ্রকে। একই দলের হয়ে এবারের আইপিএল খেলবেন বাংলাদেশের মুস্তাফিজুর রহমান। আগামী ২২ মার্চ থেকে শুরু এবারের আইপিএল।


আইপিএল   চেন্নাই সুপার কিংস   ডেভন কনওয়ে  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন