ইনসাইড গ্রাউন্ড

ত্রিদেশীয় সিরিজে ভারতকে হারাল বাংলাদেশ যুবারা

প্রকাশ: ০৮:২৩ পিএম, ২৯ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail ত্রিদেশীয় সিরিজে ভারতকে হারাল বাংলাদেশ যুবারা

ভারতের মাটিতে চলমান ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। রোববার ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ ‘এ’ দলকে ২ উইকেটে হারিয়েছে রাকিবুল হাসানের নেতৃত্বাধীন যুবারা।

কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে হওয়া ম্যাচটিতে আগে ব্যাট করে ভারতের দলটি ৪৮.১ ওভারে অলআউট হওয়ার আগে করে ২৪৫ রান। জবাবে ৮ উইকেট হারালেও দশ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে গেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন রাকিবুল। ভারত যুব দলকে আগে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর পর প্রথম ব্রে-থ্রু আসে দলীয় ৪৭ রানে। ওপেনার হারনুরের সঙ্গে ছোট জুটি গড়তে থাকেন ভারতীয় যুব দলের ব্যাটসম্যানরা। রাকিবুল, প্রান্তিকের বোলিংয়ে সেসব জুটি বড় না হলেও ব্যক্তিগত স্কোর বড় করেন হারনুর।

ব্যাট হাতে সেঞ্চুরি হাঁকানোর পর ১১১ রানে থামে হারনুরের ইনিংস। তাঁর ব্যাটে ভর করে ২৪৫ রান সংগ্রহ করে ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ ‘এ’ দল। বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট নেন সাকিব এবং দুটি করে উইকেট লাভ করেন আশিকুর জামান, মুশফিক হাসান ও রাকিবুল হাসান।

ভারত যুবাদের দেওয়া লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশকে দারুণ শুরু এনে দেন দুই ওপেনার মাহফিজুল ও ইফতেখার। উদ্বোধনী জুটিতে যোগ করেন ৮৫ রান। প্রান্তিকের সঙ্গেও বড় জুটি গড়েন মাহফিজুল। দলীয় ১৬৪ রানে আউট হন সাজঘরে ফিরেন প্রান্তিক।

প্রান্তিকের পর সাজঘরে ফিরেন আইচ মোল্লাও। তবে লড়াই করেও সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হয়েছেন ওপেনার মাহফিজুল। ৯১ রানে আউট হন তিনি। মাহফিজুল আউট হলে ম্যাচ থেকে অনেকটাই ছিটকে যায় বাংলাদেশ।

এক পর্যায়ে ২৩২ রানে ৮ উইকেট পড়লে ম্যাচ অনেকটাই চলে যায় ভারত যুবাদের দখলে। তবে মেহরবের সঙ্গে সাহসীকতার পরিচয় দেন অধিনায়ক রাকিবুল। মেহরবের অপরাজিত ৩৩ বলে ৩৮ এবং রাকিবুলের যোগ্য সঙ্গ-এ ভারত যুবাদের ২ উইকেটে হারায় বাংলাদেশ। ত্রিদেশীয় সিরিজের নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচটি খেলবে আগামী ১ ডিসেম্বর, প্রতিপক্ষ ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ ‘বি’ দল।


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

বাংলাদেশের সাথে প্রস্তুতি ম্যাচে নাও খেলতে পারেন কোহলি

প্রকাশ: ০৪:৫০ পিএম, ২৬ মে, ২০২৪


Thumbnail

আর মাত্র এক সপ্তাহ। এরপরই যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে গড়াবে টি-২০ বিশ্বকাপের নবম আসর। আগামী ১ জুন থেকে শুরু হবে খেলা। যার জন্য ইতোমধ্যেই নিজেদের প্রস্তুতি সেরেছে অংশগ্রহণকারী প্রায় প্রতিটি দলই। ঘোষণা করেছে নিজেদের স্কোয়াডও।

তবে আইপিএল ব্যস্ততার কারণে বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে অফিসিয়ালি কোন প্রস্তুতি ম্যাচ এখনও খেলেনি ভারত। আর এজন্যই বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচের দিনেই নিউইয়র্কের সদ্য প্রস্তুত স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে ভারত। তবে সেই ম্যাচে নাও খেলতে পারেন বিরাট কোহলি।

বিশ্বকাপ খেলতে ভারতের প্রথম বহর গতকাল (শনিবার) রওনা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে। অধিনায়ক রোহিত শর্মা, ঋষভ পন্থ, হেড কোচ রাহুল দ্রাবিড় থাকলেও সেই বহরে ছিলেন না কোহলি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, আইপিএলের প্লে-অফ থেকে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর বিদায়ের পর বিসিসিআইয়ের কাছ থেকে ছুটি চেয়েছেন ডানহাতি এই ব্যাটার। সব ঠিক থাকলে ৩০ মে'র পর দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে তার।

বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, 'কোহলি আমাদের আগেই জানিয়েছিল যে সে দেরিতে দলের সঙ্গে যোগ দেবে এবং সে কারণে বিসিসিআই তার ভিসা অ্যাপয়েন্টমেন্ট দেরিতে ঠিক করেছে। ৩০মে ভোরে নিউইয়র্কের উদ্দেশে সে উড়াল দেবে বলে আশা করা হচ্ছে। বিসিসিআই তার অনুরোধ মেনে নিয়েছে।'

দীর্ঘ ভ্রমণের পর কোহলির জন্য প্রস্তুতি ম্যাচ খেলা কঠিনই হয়ে পড়বে অনেকটা। তাই ধারণা করা হচ্ছে সে ম্যাচে খেলবেন না তিনি। আগামী ৮ জুন আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করবে ভারত। এর আগে ৭ জুন প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে ইতোমধ্যেই সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। যার মধ্যে প্রথম দুটিতে হেরে সিরিজ খুইয়েছে টাইগাররা। তবে গতকাল মান বাঁচানোর ম্যাচে মুস্তাফিজের রেকর্ড ৬ উইকেটের দিনে দাপুটে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ।


বাংলাদেশ   ভারত   টি-২০ বিশ্বকাপ   ভিরাট কোহলি  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

এবারই প্রথম কোন বাংলাদেশিকে ছাড়া কলকাতা ও হায়দরাবাদ ফাইনালে

প্রকাশ: ০৪:১৮ পিএম, ২৬ মে, ২০২৪


Thumbnail

প্রস্তুত ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৭তম আসরের শিরোপার মঞ্চ। প্রায় দুই মাসব্যাপী ১০ দলের টুর্নামেন্টের শেষের দিকে এসে এখন একটাই প্রশ্ন ক্রিকেটপ্রেমীদের মুখে। কলকাতা নাইট রাইডার্সের তৃতীয় নাকি সানরাইজার্স হায়দরাবাদের দ্বিতীয়? আইপিএলের ফাইনালে শেষ হাসি হাসবে কারা? সেই প্রশ্নের উত্তরই মিলবে আজ চেন্নাইয়ের চিপকে।

আজ (রোববার) শিরোপার লড়াইয়ে মাঠে নামছে এই দুই দল। আইপিএল ইতিহাসে কলকাতা নাইট রাইডার্স (৩) ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (২) মিলে মোট ৫ বার ফাইনাল খেলেছে। প্রতিবারই এই দুই দলে ছিলেন একজন করে বাংলাদেশি। এবারই প্রথম কলকাতা ও হায়দরাবাদ ফাইনাল খেলতে নামছে কোনো বাংলাদেশি ক্রিকেটার ছাড়া।

এর আগে ২০১২ ও ২০১৪ সালে আইপিএলের শিরোপা উঁচিয়ে ধরেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। দুবারই দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন সাকিব আল হাসান। যদিও ২০১২ থেকে ২০১৪ সালে বেশি সফল ছিলেন সাকিব। ২০১২ সালে ৮ ম্যাচে ১২ উইকেট শিকারের পাশাপাশি ব্যাট হাতে ৯১ রান করেন টাইগার অলরাউন্ডার। অন্যদিকে ২০১৪ সালে উইকেট একটি কম পেলেও ব্যাট হাতে ২২৭ রান করেন সাকিব।

টানা সাত মৌসুম কলকাতায় কাটিয়ে ২০১৮ সালে সাকিব পাড়ি জমান সানরাইজার্স হায়দরাবাদে। সেখানে প্রথম মৌসুমেই দলকে ফাইনালে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। যদিও চেন্নাইয়ের বাধা টপকে শিরোপা জেতা হয়নি সাকিবদের। পরবর্তীতে আরও একবার আইপিএলের ফাইনাল খেলেন সাকিব। এবার পুরোনো দল কলকাতার হয়ে। ২০২১ এর সেই ফাইনালেও বাধা হয়ে দাঁড়ায় ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস। এরপরে সাকিবকে আর আইপিএলে দেখা যায়নি।

সাকিব ব্যতীত আইপিএলে সফল বাংলাদেশি আরেক ক্রিকেটার পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো আইপিএল খেলতে গিয়েই শিরোপাজয়ী দলের সদস্য হয়ে যান তিনি। শুধু তাই নয় সেবার ১৬ ম্যাচে ১৭ উইকেট নিয়ে প্রথম ও একমাত্র বিদেশি হিসেবে আইপিএলের সেরা উদীয়মাণ খেলোয়াড়ের পুরষ্কারটিও নিজের ঝুলিতে নেন। যদিও এরপর আর আইপিএলের ফাইনাল খেলা হয়নি মুস্তাফিজের।


আইপিএল   সানরাইজার্স হায়দরাবাদ   কলকাতা নাইট রাইডার্স   সাকিব   মুস্তাফিজ  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

‘বাংলাদেশ অনেক ভালো দল, আপনারা টাইগারদের চাপে রাখেন’

প্রকাশ: ০৩:৫৫ পিএম, ২৬ মে, ২০২৪


Thumbnail

আসন্ন টি-২০ বিশ্বকাপের শেষ প্রস্তুতি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের ঘরের মাঠে তিন ম্যাচের সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। যেখানে প্রথম দুই ম্যাচ হেরে সিরিজ আগেই হাতছাড়া করেছেন শান্ত বাহিনী। যদিও সিরিজের শেষ ম্যাচে দাপুটে জয় তুলে নিয়ে মান বাঁচিয়েছে টিম টাইগার্স।

তবে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ জিতলেও সফরকারীদের প্রশংসা করেছেন যুক্তরাষ্ট্র কোচ স্টুয়ার্ট ল। অবশ্য তিনিও একটা সময় বাংলাদেশের কোচিং প্যানেলের সদস্য ছিলেন। এজন্য সাকিব-রিয়াদদের খুব কাছ থেকেই দেখেছেন তিনি।

সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-২০ ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে হাজির হয়েছিলেন ল। এসময় তিনি বলেন, ‘আসলে বাংলাদেশ এখানে একটা জায়গায় বেশ ভালো করেছে। তারা প্রতি ম্যাচেই শিখেছে। প্রতি ম্যাচেই তারা ভিন্ন ভিন্ন পরিকল্পনা নিয়ে এসেছে।’

আসন্ন টি-২০ বিশ্বকাপে কেমন করবে বাংলাদেশ? এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ অনেক ভালো দল। আপনারা তাদের অনেক চাপে রাখেন। এই বিষয়টা আমি ভালোই জানি (হাসি)। তাদের দলে ভালো ক্রিকেট শট খেলার মত ক্রিকেটার আছে।’

টাইগার বোলারদের প্রশংসা করে যুক্তরাষ্ট্রের এই কোচ বলেন, ‘সাকিব আল হাসান এখনও বিশ্বের অন্যতম সেরা বোলার। সে দারুণ বল করেছে। লেগ স্পিনার যে (রিশাদ হোসেন) সে দারুণ বল করেছে। আমাদেরও ভালো করার সুযোগ ছিল। কিন্তু আমরা সে সুযোগ কাজে লাগাতে পারিনি। সেখানে দর্শকদের চাপ থাকে, বোলাররা থাকে।’


স্টুয়ার্ট ল   ক্রিকেট   বাংলাদেশ   যুক্তরাষ্ট্র  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

রেমালের তাণ্ডব: আইপিএলের ফাইনাল ম্যাচ না হলে চ্যাম্পিয়ন হবে যারা

প্রকাশ: ০৩:৩৮ পিএম, ২৬ মে, ২০২৪


Thumbnail

প্রস্তুত ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ১৭তম আসরের শিরোপার মঞ্চ। প্রায় দুই মাসব্যাপী ১০ দলের টুর্নামেন্টের শেষের দিকে এসে এখন একটাই প্রশ্ন ক্রিকেটপ্রেমীদের মুখে। কলকাতা নাইট রাইডার্সের তৃতীয় নাকি সানরাইজার্স হায়দরাবাদের দ্বিতীয়? আইপিএলের ফাইনালে শেষ হাসি হাসবে কারা? সেই প্রশ্নের উত্তরই মিলবে আজ চেন্নাইয়ের চিপকে।

আইপিএলের জমজমাট ফাইনালে বড় বাধা হতে পারে ঘূর্ণিঝড় রেমাল। গভীর নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়া রেমালের প্রভাব পড়েছে ভারতের কিছু অঞ্চলেও। এমন অবস্থায় ক্রিকেট ভক্তদের মনে এ নিয়ে শঙ্কা জেগেছে। কারণ আজ রাতে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে হায়দরাবদ ও কলকাতা।

রোববার চেন্নাইয়ের চিপকে আইপিএলের ফাইনালে মুখোমুখি হবে কলকাতা নাইট রাইডার্স ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ম্যাচটি শুরু হবে  বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায়।

একদিকে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা কলকাতা তৃতীয় শিরোপার অপেক্ষায়, অন্যদিকে আসরজুড়ে রানবন্যা বইয়ে দেওয়া হায়দরাবাদের সামনে দ্বিতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার হাতছানি। তবে ম্যাচটি ঠিকঠাক মাঠে গড়াবে তো? যদিও ফাইনাল ম্যাচটির জন্য রিজার্ভ ডে বরাদ্দ রয়েছে।

চেন্নাইয়ের আবহাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শনিবার বৃষ্টি হলেও আজ চেন্নাইয়ে সেই সম্ভাবনা খুবই কম। আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ২৯ ডিগ্রি।

অ্যাকুওয়েদারের পূর্বাভাস অনুযায়ী, সকালের দিকে বৃষ্টির সম্ভাবনা মাত্র দুই শতাংশ। সন্ধ্যার দিকে বৃষ্টির কোনো সম্ভাবনা নেই। সবমিলিয়ে সারাদিনে বৃষ্টির সম্ভাবনা পাঁচ শতাংশেরও কম। তবে ম্যাচের শেষদিকে শিশির থাকতে পারে।

এদিকে বৃষ্টি কিংবা কোনো কারণে আজকের খেলা ভেস্তে গেলে ম্যাচ গড়াবে সোমবার রিজার্ভ ডে’তে। অর্থাৎ যেখানে খেলা শেষ হবে, সেখান থেকেই পরদিন খেলা শুরু হবে। অর্থাৎ কোনো দল যদি ১২.৪ ওভার খেলার পর বৃষ্টিতে আর ম্যাচ না গড়ায়, তাহলে সোমবার ১২.৪ ওভারের পর থেকেই খেলা শুরু হবে। তারপর নিয়ম মেনে খেলা শেষ করার চেষ্টা করবে বিসিসিআই।

একইভাবে বৃষ্টির জন্য রিজার্ভ ডে’র খেলা ভেস্তে গেলে রয়েছে ভিন্ন নিয়ম। রিজার্ভ ডে-তেও খেলা শেষ না করা গেলে তাহলে কলকাতা চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে।

নিয়ম অনুযায়ী, যে দল লিগপর্বের পয়েন্ট তালিকায় ওপরে থেকে শেষ করবে, সেই দলের হাতে আইপিএল ট্রফি উঠবে। আর এবার লিগপর্বে সানরাইজার্স ছিল দ্বিতীয় স্থানে, শীর্ষে থেকে কেকেআর লিগ শেষ করেছে, তাই কলকাতা চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে।


আইপিএল   ঘূর্ণিঝড়   রেমাল  


মন্তব্য করুন


ইনসাইড গ্রাউন্ড

বার্নাব্যু প্রকম্পিত ক্রুস–ক্রুস ধ্বনিতে, কিংবদন্তির বিদায়

প্রকাশ: ০১:৩৯ পিএম, ২৬ মে, ২০২৪


Thumbnail

সতীর্থদের গার্ড অব অনার আর শূন্যে ছোড়া অভিবাদনের মধ্য দিয়ে অবশেষে দীর্ঘদিনের স্থায়ী ক্লাবের ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রিয়ালের জার্সিতে শেষ খেলা খেললেন ‘দ্য লিজেন্ড অব রিয়াল মাদ্রিদ’—খ্যাত টনি ক্রুস। গত ২১ মে আসন্ন ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ খেলেই সব ধরনের ফুটবলকে বিদায় জানানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন এই জার্মান মিডফিল্ডার। কার্যত আর অল্প সময়ই মাঠে দেখা যাবে ৩৪ বছর বয়সী ক্রুসকে।

গতকাল ‘রেফারি, শেষ বাঁশি বাজাবেন না, নয়তো টনি ক্রুস আমাদের ছেড়ে যাবেন’— এক ক্ষুদে ভক্ত নিজের আকুতিমাখা প্ল্যাকার্ড নিয়ে হাজির হয়েছিল সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর গ্যালারিতে। পুরো রিয়াল মাদ্রিদ শিবির প্রস্তুত ছিল তাদের একজন কিংবদন্তিকে বিদায় জানাতে। দর্শকরাও নিজেদের মতো করে প্রস্তুতি নিয়ে এসেছিলেন। এরপর ক্রুসের বিদায়বেলা সতীর্থরা রাঙিয়েছেন গার্ড অব অনার আর শূন্যে ছুড়ে অভিবাদন জানানোর মধ্য দিয়ে।

যদিও এখানেই শেষ নয়, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে (১ জুন) খেলবেন স্প্যানিশ ক্লাবটির হয়ে শেষ ম্যাচ। কিন্তু ঘরের মাঠেই যেন বিদায়ী আয়োজনের অধিকাংশটা হয়ে গেল। পুরো বার্নাব্যু প্রকম্পিত হচ্ছিল ক্রুস–ক্রুস ধ্বনিতে। এমন ভালোবাসা দেখে মাঝমাঠের স্নাইপারখ্যাত এই তারকাও অশ্রুসিক্ত হয়েছেন।

রিয়াল বেটিসের বিপক্ষে গতকাল চলতি মৌসুমে লিগের শেষ ম্যাচ খেলতে নেমেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। আগেই লা লিগার শিরোপা ঘরে তোলা দলটি এদিন মাঠ ছাড়ে গোলশূন্য ড্র–তে। তবে তাদের পুরো আকর্ষণ ছিল ক্রুসের বিদায়ী সংবর্ধনায়। বার্নাব্যুর গ্যালারিতে ২২টি শিরোপা জেতা ক্রুসের ছবি সম্বলিত বিশাল ব্যানার নিয়ে হাজির হন দর্শকরা। যেখানে লেখা ছিল– ‘‘ধন্যবাদ কিংবদন্তি।’’ রিয়ালের ফুটবলাররা ক্রুসের সম্মানে সবাই ‘৮’ নম্বর জার্সি পরেন, গার্ড অব অনারে অংশ নেন প্রতিপক্ষ বেটিস ফুটবলাররাও। এরপর ম্যাচের ৮৬তম মিনিটে যখন বদলি খেলোয়াড় হিসেবে জার্মান তারকা মাঠ ছাড়ছেন, সবাই দাঁড়িয়ে তাকে করতালিতে অভিবাদন জানান। একে একে কোচ কার্লো আনচেলত্তি থেকে শুরু করে বাকি কোচিং স্টাফও তখন আলিঙ্গন করেন ক্রুসকে।

এমন আয়োজনে চোখের পানি আটকাতে পারেননি রিয়ালকে ১০ বছর মাঝমাঠে ভরসা দেওয়া এই তারকা। পাশে দাঁড়িয়েই অঝোরে কাঁদতে থাকা মেয়েকে জড়িয়ে ধরে বলেন, ‘বিদায় বলাটা সহজ নয়। আমি রিয়াল মাদ্রিদকে ধন্যবাদ দিতে চাই। আমি এখানে আমার ১০ বছর উপভোগ করেছি। রিয়াল মাদ্রিদ আমার ঘর। আমার সন্তানদের প্রতিক্রিয়া আমাকে ভেঙেচুরে দিয়েছে। আমি শুধু বলতে পারি, রিয়াল মাদ্রিদ।’

এমন সম্মানই ক্রুস প্রাপ্য বলে ম্যাচ শেষে জানিয়েছেন রিয়াল বস আনচেলত্তি, ‘বার্নাব্যু টনি ক্রুসকে সেভাবে বিদায় দিয়েছে, যা তার প্রাপ্য।’ এ সময় তার কাছে জানতে চাওয়া হয় ক্রুসের বিদায়ে মাঝমাঠে তার জায়গা জ্যুড বেলিংহ্যামকে দেওয়া হবে কি না। জবাবে আনচেলত্তি বলেন, ‘বেলিংহ্যাম ক্রুসের জায়গায়? না, আমি সেটি মনে করি না। পেনাল্টি এরিয়ার কাছেই বেলিংহ্যামের থাকাটা আমাদের জন্য বেশি ভালো। আমাদের অন্য মিডফিল্ডার রয়েছে।’

লস ব্লাঙ্কোসদের পুরো মনোযোগ এখন ইউসিএল ফাইনালের দিকে। ১ জুন জার্মান ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে ১৫তম শিরোপা নিশ্চিতের লক্ষ্যে নামবে সর্বোচ্চবারের চ্যাম্পিয়নরা। ওই ক্লাবের হয়ে এক সময় খেলেছেন ক্রুস, তাদের বিপক্ষেই তিনি এবার রিয়ালের জার্সিতে ক্লাব ফুটবলে নিজের শেষটা রাঙানোর লক্ষ্যে নামবেন।


টনি ক্রুস   বার্নাব্যু   রিয়াল মাদ্রিদ  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন