ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ব্রুনাইয়ে ইফতারের পুণ্যময় ঐতিহ্যের চিত্র

প্রকাশ: ০৬:০০ পিএম, ০২ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

রমজান মাসকে স্বাগত জানাতে ব্রুনাইয়ের অমুসলিমরাও মেতে ওঠে নানা ধরণের উৎসবে। প্রথম রমজানে মুসলিমদের সম্মানে তারাও রোজা রাখে। 

বাংলা ইনসাইডার আয়োজিত 'ইনসাইড রমজান' ধারাবাহিক এর আজকের পর্বে আমরা জানবো ব্রুনাইয়ে মুসলিমদের রমজান ও ইফতার সংস্কৃতি- 

দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার একটি রাষ্ট্র ব্রুনাই দারুসসালাম। দেশটিতে প্রথম রমজানে থাকে সরকারি ছুটি। রমজানে সুলতান হাসান বলখিয়া নিজে জাতীয় মসজিদে উপস্থিত হন এবং মুসল্লিদের জন্য সাহরি প্রস্তুতির কাজে অংশ নেন। তার আগমন উপলক্ষে মসজিদে দ্বিনি আলোচনার আয়োজন করা হয়। 

রমজানে ইফতার এক আনন্দময় মুহূর্ত। সারা দিনের ক্লান্তি নিমেষেই দূর হয়ে যায় এ সময়। প্রফুল্লতায় ভরে ওঠে দেহমন। ইফতারের বহু ফজিলত রয়েছে। আমরা নিজেরা ইফতার করে যেমন পুন্য অর্জন করতে পারি। তেমনি অন্যকে ইফতার করানোর মাধ্যমেও পেতে পারি। একজন রোজাদার দিনভর রোজা রেখে যে নেকি অর্জন করবেন, সমপরিমাণ নেকি আমাদেরও অর্জিত হবে, যদি সেই রোজাদারকে ইফতার করানো হয়। তাই তো ইফতার করানোর পুণ্যময় সংস্কৃতি এখনো বিদ্যমান ব্রুনাইয়ে।

এখানকার স্থানীয় ভাষায় ইফতারকে সোংকাই বলা হয়। ঐতিহ্যগতভাবেই আঞ্চলিক বা গ্রামীণ মসজিদগুলোতে এর আয়োজন করা হয়। সাধারণত সরকার ও স্থানীয় বাসিন্দারা এই সোংকাইয়ের আয়োজন করে থাকে। এখানে ইফতারের আগে বেদুক নামে এক ধরনের ড্রাম বাজানো হয়, যার মানে হচ্ছে, ইফতারের সময় হয়ে গেছে। এছাড়া রাজধানী বন্দর সেরি বেগাওয়ানে সোংকাইয়ের সংকেত হিসেবে কামান থেকে গুলি ছোড়া হয়। 

তাদের ইফতারে থাকে কোনাফা, ত্রোম্বা, বিরিয়ানি, চিকেন রোল ও নানা রকম হালুয়া। এছাড়াও থাকে সালাদ, স্যুপ, দুধ, দই ও বড় বড় রুটি।


ব্রুনাই   ইফতার   রমজান   সংস্কৃতি  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

মালদ্বীপে পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু

প্রকাশ: ০৬:৫২ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

মালদ্বীপে পার্লামেন্ট নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। এ ভোটের মাধ্যমে জানা যাবে মালদ্বীপের পার্লামেন্ট পিপলস মজলিসের নিয়ন্ত্রণ কার হাতে থাকবে। দেশটির ৯৩টি সংসদীয় আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করতে ২ লাখ ৮৪ হাজার ৬৬৩ জন ভোটার এ নির্বাচনে ভোট দিচ্ছেন। দেশটির ৬০২টি কেন্দ্র ও দেশের বাইরেরদুটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ চলছে।

এ নির্বাচনকে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুইজ্জুর জন্যও বড় পরীক্ষা বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ, মুইজ্জু ভারতের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি করে আরও বেশি করে চীনের দিকে ঝুঁকে পড়ার মতো যথেষ্ট সমর্থন পার্লামেন্টে নিশ্চিত করতে পারবেন কি না, তা এ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বোঝা যাবে।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে চীনপন্থী সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লাহ ইয়ামিনের প্রতিনিধি হিসেবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন মুইজ্জু। দুর্নীতির অভিযোগে ইয়ামিনের ১১ বছরের কারাদণ্ড হয়েছিল। তবে গত সপ্তাহে আদালত এ সাজা বাতিল করলে তিনি মুক্তি পান।

ভোট গ্রহণ শেষ হওয়ার পরপরই গণনা শুরু হবে। আজ রাতের মধ্যেই নির্বাচনের ফল পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।


মালদ্বীপ   পার্লামেন্ট নির্বাচন   ভোট  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

পশ্চিমবঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনী বাড়ানোর সিদ্ধান্ত

প্রকাশ: ০৫:৫৪ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

ভারতের ১৮তম লোকসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ সাত দফায় অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম দফা ভোট শেষ হয়েছে ১৯ এপ্রিল। জলপাইগুড়ি, কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ার এই তিন কেন্দ্রে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সহিংসতা ছাড়াই লোকসভা নির্বাচনের প্রথম দফার ভোট গ্রহণ মোটামুটি শান্তিপূর্ণ হয়েছে। তবে অনেক জায়গাতেই কেন্দ্রীয় বাহিনী না থাকার অভিযোগ উঠেছে। 

আগামী ২৬ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় দার্জিলিং, রায়গঞ্জ ও বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রে নির্বাচন। দ্বিতীয় দফা ভোটে জাতীয় নির্বাচন কমিশন কোনো রকম ঝুঁকি না নিয়ে আরও অতিরিক্ত ৩০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় সুরক্ষা বাহিনী পশ্চিমবঙ্গে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

অতিরিক্ত যে ৩০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় সুরক্ষা বাহিনী রাজ্যে আসবে তাদের সংরক্ষিত রাখা হবে, দরকার পড়লে তাদের নির্বাচন কেন্দ্রের বিভিন্ন জায়গায় ব্যবহার করা হবে।

দ্বিতীয় দফা নির্বাচনের পরিস্থিতি দেখে তৃতীয় দফায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে কেন্দ্রীয় সুরক্ষা বাহিনী বাড়ানোর বিষয়ে।

মোট সাত দফায় লোকসভার নির্বাচন হবে। দ্বিতীয় দফায় ২৬ এপ্রিল, তৃতীয় দফায় ৭ মে, চতুর্থ দফায় ১৩ মে, পঞ্চম দফায় ২০ মে, ষষ্ঠ দফায় ২৬ মে ও সপ্তম দফার ভোট ১ জুন। ভোট গণনা আগামী ৪ জুন।


পশ্চিমবঙ্গ   লোকসভার নির্বাচন   ভারত   ভোট  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ইসরায়েলের ড্রোনগুলো 'বাচ্চাদের খেলনার মতো': ইরান

প্রকাশ: ০৩:৩১ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

চলমান গাজা যুদ্ধের মধ্যেই ইরানে সরাসরি হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। দিন দুয়েক আগে চলানো এই হামলাকে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দুই দেশের মধ্যে চলমান অস্থিরতায় একটা প্রতিশোধমূলক হামলা হিসেবে দেখা হচ্ছে।

রোববার (২১ এপ্রিল) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট জানিয়েছে ইসরায়েলের ড্রোনগুলো ‘বাচ্চাদের খেলনার মতো’ বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। 

মার্কিন সংবাদমাধ্যম এনবিসি নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে শুক্রবার ভোরের হামলার পেছনে ইসরায়েলের জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেন ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি জানান, এ হামলায় যেসব অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে তা অনেকটা বাচ্চাদের খেলনার মতো।

ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভাষ্য-গেল রাতে যা ঘটেছে তা কোনো হামলা নয়। এগুলো অনেকটা ইরানি বাচ্চাদের খেলনার মতো, কোনো ড্রোন নয়। এ সময় ইসরায়েল বড় ধরনের হামলা না করলে ইরানও কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাবে না বলে জানান আমির আব্দুল্লাহিয়ান। এ সময় হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে ইরানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ইসরায়েল যদি ইরানে হামলা করে, তাহলে তার জবাব হবে দ্রুত এবং কঠোর।

গত ১ এপ্রিল দামেস্কের ইরানি দূতাবাসে বিমান হামলা চালিয়ে ইরানের বিপ্লবী রক্ষীবাহিনীর তিন শীর্ষ জেনারেলসহ অন্তত ৮ সামরিক কর্মকর্তাতে হত্যা করে ইসরায়েল। এরপর হামলার জবাবে ১৩ এপ্রিল দিবাগত রাতে ইসরায়েলি ভূখণ্ড লক্ষ্য করে তিন শতাধিক ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে ইরান। পাল্টা জবাবে ইরানে ড্রোন হামলা চালায় তেল আবিব। যদিও দুটি হামলার কোনোটিরই দায় স্বীকার করেনি ইসরায়েলি বাহিনী।


ইসরায়েল   ড্রোন   ইরান  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

ঢাকা আসবেন কাতারের আমির, সই হবে ৬ চুক্তি ও ৫ স্মারক

প্রকাশ: ০২:৪৬ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

রাষ্ট্রীয় সফরে সোমবার (২২ এপ্রিল) বাংলাদেশ সফরে আসছেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন-হামাদ আল থানি। সোমবার বিকেলে দু’দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে একটি বিশেষ ফ্লাইটে তার ঢাকায় পৌঁছানোর কথা রয়েছে। ঢাকায় একটি সড়ক এবং একটি পার্কের নামকরণ কাতারের আমিরের নামে করা হবে। সফরকালে দুই দেশের মধ্যে ছয়টি চুক্তি এবং পাঁচটি সমঝোতা স্মারক সই হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আনুষ্ঠানিকভাবে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন রাষ্ট্রীয় অতিথি কাতারের আমির শেখ তামিমকে অভ্যর্থনা জানাবেন। পরদিন মঙ্গলবার ( ২৩ এপ্রিল ) সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাতারের আমিরকে তার কার্যালয়ে অভ্যর্থনা জানাবেন। এদিন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে দুই নেতার বৈঠক হবে এবং এরপর আরও একটি দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

পরে দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতার চুক্তি সই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন এবং যৌথ সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও কাতারের আমির। সেখানে পরিদর্শন বইয়ে স্বাক্ষর শেষে আমির মঙ্গলবার বিকেলে বঙ্গভবনের উদ্দেশে যাত্রা করবেন এবং রাষ্ট্রপতি তাকে অভ্যর্থনা জানাবেন।

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন বঙ্গভবনের দরবার হলে কাতারের আমিরের সম্মানে মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করবেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদও কাতারের আমিরের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন।

এছাড়া মঙ্গলবার বিকেলে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির নামে রাজধানীর একটি সড়ক ও একটি পার্কের নামকরণ করা হবে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) আওতাধীন মিরপুরের কালশী এলাকায় পার্ক এবং মিরপুর ইসিবি চত্বর থেকে কালশী ফ্লাইওভার পর্যন্ত সড়কের নামফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন কাতারের আমির।

নির্বাচিত ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের সদস্যদের সঙ্গে একান্ত একটি বৈঠকও করবেন দেশটির আমির। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় একটি বিশেষ ফ্লাইটে তার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করার কথা রয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বিমানবন্দরে তাকে বিদায় জানাবেন।


ঢাকা   কাতার   আমির   চুক্তি   স্মারক  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

পশ্চিম তীরে ইসরায়েলের হামলায় ১৪ ফিলিস্তিনি নিহত

প্রকাশ: ০১:৫৮ পিএম, ২১ এপ্রিল, ২০২৪


Thumbnail

ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় ১৪ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। একই সময় ইহুদি বসতিস্থাপনকারীদের পৃথক হামলায় এক ফিলিস্তিনি অ্যাম্বুলেন্স চালকও নিহত হয়।

শনিবার (২০ এপ্রিল) অধিকৃত এই অঞ্চলের তুলকারম শহরের নুর শামস এলাকায় এই অভিযান পরিচালনা করেছে ইসরায়েলি বাহিনী।

রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী, শনিবার ভোরে নুর শামস এলাকায় অভিযানে নামে ইসরায়েলি বাহিনী। একের পর এক ইসরায়েলি সামরিক যান সেখানে জড়ো হতে থাকে। গোলাগুলির শব্দও শোনা যায়। এ ছাড়া এই সময় ওই এলাকার আকাশে অন্তত তিনটি ড্রোন উড়তে দেখা গেছে।

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এ ঘটনায় অন্তত ১৪ জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে ১৬ বছর বয়সী এক ছেলেও রয়েছে। কয়েক মাসে আগেও পশ্চিম তীরে একদিনে এত মানুষ মারা যায়নি। 

ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীও ফিলিস্তিনিদের হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। তারা জানিয়েছে, অভিযানের সময় বেশ কয়েকজন ফিলিস্তিনি যোদ্ধা নিহত ও গ্রেপ্তার হয়েছে। এছাড়া গোলাগুলিতে অন্তত চারজন ইসরায়েলি সেনা আহত হয়েছে।

উল্লেখ্য, পশ্চিম তীরে বহুদিন ধরে ইসরায়েলি বাহিনী এবং অবৈধ বসতি স্থাপনকারীদের হামলার শিকার হয়ে আসছেন ফিলস্তিনিরা। বিশেষ করে গত ৭ অক্টোবর গাজা যুদ্ধ শুরু হলে এই সহিংতার মাত্রা আরও বেড়ে যায়। এই সময় ইসরায়েলি সেনাবাহিনী ও পুলিশের নিয়মিত অভিযানে হাজার হাজার ফিলিস্তিনি গ্রেপ্তার এবং শত শত মানুষ মারা গেছেন।


পশ্চিম তীর   ইসরায়েল   হামলা   ফিলিস্তিন   নিহত  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন