ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টে ‘ওমিক্রনে’ উপসর্গ অতি মৃদু

প্রকাশ: ১০:০১ এএম, ২৯ নভেম্বর, ২০২১


Thumbnail করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টে ‘ওমিক্রনে’ উপসর্গ অতি মৃদু

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মতে ‘উদ্বেগজনক’ ভ্যারিয়েন্ট বলে স্বীকৃতি পাওয়া করোনার নতুন দক্ষিণ আফ্রিকান ধরনটি নিয়ে বিশ্বজুড়ে শুরু হয়েছে চরম উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা। মারাত্মক এই সংস্করণটি যাতে দ্রুত ছড়িয়ে না পড়ে সে জন্য বিশ্বের অনেক দেশের মত আমাদের দেশেও নেওয়া হয়েছে নানা সতর্কতামূলক ব্যবস্থা। তবে সবচেয়ে চিন্তার বিষয় হল ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমিত রোগীদের শরীরে তেমন উপসর্গ দেখা যায় না। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনার ধরনগুলোর মধ্যে ওমিক্রন সবচেয়ে বেশি মিউটেট (রূপান্তর) হয়েছে।

করোনার নতুন এই সংস্করণটি মূলত ছড়িয়ে পড়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা হতে। রোগীর দেহে নতুন এই সংস্করণটি সবার প্রথম সন্দেহ করেন এবং পরীক্ষার মাধ্যমে তা নিশ্চিত হন দক্ষিণ আফ্রিকার মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান ডা. অ্যাঞ্জেলিক কোয়েটজি।

ডা. অ্যাঞ্জেলিক কোয়েটজি রয়টার্সকে বলেন, ‘আমার কাছে চিকিৎসা নেওয়া বেশকিছু ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টে সংক্রমিত রোগীর শরীরে মৃদু উপসর্গ দেখেছি। হাসপাতালে ভর্তি ছাড়াই তারা বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠছেন।’

তিনি বলেন, ‘গত ১৮ নভেম্বর আমার ক্লিনিকের সাতজন রোগীর মধ্যে অপরিচিত উপসর্গ ছিল। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ধরনের থেকে যার পার্থক্য খুবই কম। ওইদিন একজন রোগী আমাকে অত্যন্ত ক্লান্তি অনুভব করার কথা জানান। তার শরীরে ও মাথায় হালকা ব্যথা অনুভব করছেন বলেও উল্লেখ করেন।’

ডা. কোয়েটজি বলেন, ‘রোগীদের মধ্যে যে উপসর্গ ছিল, তা সাধারণ ভাইরাল সংক্রমণের সঙ্গে সম্পর্কিত। তবে যেহেতু আমরা বিগত ৮-১০ সপ্তাহ করোনার সংক্রমণ সেভাবে পরীক্ষা করে দেখিনি, তাই তাৎক্ষণিক আমরা তাদের নমুনা পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। তাতে ওই রোগী এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের পজিটিভ রিপোর্ট আসে।’

তিনি আরও বলেন, ‘একই দিনে আমরা একই উপসর্গের আরও কিছু রোগী পেয়েছিলাম। তখনি আমরা ভেবেছিলাম, ভিন্ন কোনও কিছু দেখতে যাচ্ছি আমরা। সেদিন আমি নতুন এ ধরনে সংক্রমিত দুই থেকে তিনজন রোগী দেখেছিলাম।’

অ্যাঞ্জেলিক কোয়েটজি বলেন, ‘ওমিক্রনে আক্রান্ত রোগীদের বেশিরভাগই পুরুষ, যাদের বয়স ৪০ বছরের নিচে। আক্রান্ত পুরুষদের মধ্যে অর্ধেকই করোনা টিকার পূর্ণ ডোজ নিয়েছেন। তরুণ রোগীদের ক্ষেত্রে ওমিক্রন খুবই অস্বাভাবিক হয়ে উঠতে পারে। তাদের সতর্ক হওয়া জরুরি।’

তিনি বলেন, ‘করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের সময়ে আমরা অসংখ্য ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমিত রোগী দেখেছিলাম। তবে নতুন এ ধরনটি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ক্লিনিক্যাল যে চিত্র, তার সঙ্গে তেমন মিল নেই। ওমিক্রন আক্রান্তদের অধিকাংশই অতি মৃদু উপসর্গে ভুগছেন। আক্রান্তদের পেশীতে মৃদু ব্যথা, গলায় খুসখুস ভাব এবং শুকনো কাশি হচ্ছে। অল্প কয়েকজনের শরীরের তাপমাত্রা সামান্য বেশি পাওয়া গেছে।’

দক্ষিণ আফ্রিকার ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব কমিউনিক্যাবল ডিজিজ (এনআইসিডি) জানিয়েছে, দেশটির কয়েকটি ল্যাবরেটরিতে গত ১৪ নভেম্বর থেকে ১৬ নভেম্বর সময়ের মধ্যে সংগ্রহ করা নমুনায় ওমিক্রন ধরনটি শনাক্ত হয়। যাচাই শেষে ২৫ নভেম্বর নতুন ধরন হিসেবে নিশ্চিত হওয়া যায়।



মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

সন্দেহজনক পারমাণবিক সরঞ্জামসহ পাকিস্তানগামী জাহাজ জব্দ করেছে ভারত

প্রকাশ: ০৮:৪৯ এএম, ০৩ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

সন্দেহজনক পারমাণবিক সরঞ্জাম পরিবহনের অভিযোগে চীন থেকে পাকিস্তানগামী একটি জাহাজ আটক করেছে ভারত।

গত ২৩ জানুয়ারি ভারতের নিরাপত্তা সংস্থা মুম্বাইয়ের নেভা সেবা বন্দর থেকে জাহাজটিকে আটক করে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, করাচিগামী জাহাজটিতে দ্বৈত-ব্যবহারের একটি চালান রয়েছে যা পাকিস্তানের পারমাণবিক এবং ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির জন্য ব্যবহার করা হতে পারে এমন সন্দেহে করা হচ্ছে।ভারতের গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, জাহাজে করে পারমাণবিক পণ্য পাচার করা হচ্ছিল। তদন্তের পর তারা এমন দাবি করেছেন।

শনিবার শুল্ক বিভাগের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, জাহাজটি থেকে যে পণ্য উদ্ধার করা হয়েছে তা পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র প্রকল্পে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, গত ১৭ জানুয়ারি জাহাজটি চীন থেকে করাচির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। পরে গোপন সূত্রের ভিত্তিতে গোয়েন্দা কমকর্তারা জাহাজে সন্দেহজনক কিছু পাচারের খবর পান। সেই খবরের ভিত্তিতে নেভা সেবা বন্দর থেকে আটক করা হয়। আটক জাহাজটির নাম সিএমএ সিজিএম অ্যাটিলা। এটি মাল্টার পতাকাবাহী জাহাজ।

শুল্ক বিভাগ ও ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের (ডিআরডিও) জানিয়েছে, জাহাজে কম্পিউটার নিউমেরিক্যাল কন্ট্রোল মেশিন (সিএনসি) নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। এটি কোনো পারমাণবিক প্রকল্পের জন্য ব্যবহৃত হতে পারে বলে সন্দেহ করেছেন কর্মকর্তারা।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, পাকিস্তানে নিয়ে এগুলো ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির কাজে ব্যবহারের পরিকল্পনা ছিল তাদের। এ ধরনের যন্ত্র উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক প্রকল্পের জন্য ব্যবহার করেছিল।

সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এর আগেও চীন থেকে পাকিস্তানে পাঠানো সেনাসামগ্রী বাজেয়াপ্ত করেছিল ভারত। ওই সময় থেকে কসমস ইঞ্জিনিয়ারিং নামের প্রতিষ্ঠানটির ওপর ভারতীয় গোয়েন্দারা নজর রাখছিলেন। প্রতিষ্ঠানটি পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা সংক্রান্ত পণ্য সরবরাহ করে থাকে।

২০২২ সালে ১২ মার্চ ইতালির তৈরি থার্মোইলেক্ট্রিক সরঞ্জাম পাকিস্তানে নেয়ার সময় একটি চালান বাজেয়াপ্ত করে ভারত। ওই সময়ে গোপনে এসব পণ্য দেশটিতে নেওয়া হচ্ছিল। তখনও নেভা সেবা বন্দর থেকেই চালানটি জব্দ করে ভারত।



মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

পাকিস্তানে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন আজ, লড়বেন শাহবাজ-ওমর

প্রকাশ: ০৮:৩৯ এএম, ০৩ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের ভোট আজ রোববার (৩ মার্চ) অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) প্রার্থী শাহবাজ শরিফের বিরুদ্ধে লড়াই করবেন পিটিআইয়ের ওমর আইয়ুব। ইতিমধ্যে তাদের মনোনয়নপত্র অনুমোদন করেছে দেশটির নির্বাচন কমিশন ইসিপি।

এবারের নির্বাচনে সরাসরি অংশগ্রহণ করতে পারেনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পিটিআই। তাই নির্বাচনে জয়ী পিটিআই-সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা সুন্নি ইত্তেহাদ কাউন্সিলে (এসআইসি) যোগ দিয়ে ওই দল থেকেই প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের জন্য প্রার্থী দিয়েছেন। তাদের প্রার্থী পিটিআই নেতা ওমর আইয়ুব। শনিবার (২ মার্চ) শাহবাজ ও আইয়ুবের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দেয় দল দুটি।

এবারের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে পিএমএল-এনের সভাপতি শাহবাজের পেছনে মুতাহিদা কওমি মুভমেন্ট-পাকিস্তান (এমকিউএম-পি), ইস্তেহকাম-ই-পাকিস্তান পার্টি এবং পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) সমর্থন রয়েছে। তাদের সমর্থনে ভর করে তিনি খুব সহজে আবারও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হতে চলেছেন। অন্যদিকে এই নির্বাচনী বৈতরণি পার হওয়া মোটেও সহজ হবে না ইমরান খানের দল পিটিআইয়ের প্রার্থী ওমর আইয়ুবের জন্য। কেননা প্রধানমন্ত্রী হওয়র মতো এমপির ভোট জোগাড় করতে পারবেন না তিনি।

পিএমএল-এন নেতা ইসহাক দার, হানিফ আব্বাসি ও পিপিপি নেতা খুরশিদ শাহ শাহবাজের পক্ষে নথি জমা দিয়েছেন। এ ছাড়া শাহবাজের মনোনয়নপত্রের পক্ষে সাতজন এমপি প্রস্তাবক এবং অন্য সাতজন তা সমর্থন করেছেন।

এর আগে গত ২৯ ফেব্রুয়ারি জাতীয় পরিষদ সচিবালয় প্রধানমন্ত্রী পদে নির্বাচনের তপশিল ঘোষণা করে। এই তপশিল অনুযায়ী, আজ বেলা ১১টায় এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় পরিষদের এমপিরা ভোট দিয়ে দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী বেছে নেবেন।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনের ২১ দিন পর জাতীয় পরষদের প্রথম অধিবেশন বসে। এর দু-একদিন পর স্পিকার ও ডেপুটি স্পিকার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আজ প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের পর আগামী ৯ মার্চ দেশের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

পাকিস্তানের এবারের জাতীয় নির্বাচনে কোনো দল একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। ফলে পিপিপি ও অন্যান্য সমমনা দলের সঙ্গে জোট গঠন করে কেন্দ্র ও প্রাদেশিক সরকার গঠন করছে পিএমএল-এন। তবে জোট গঠনের দৌড়ে তেমন সুবিধা করতে পারেনি পিটিআই।


পাকিস্তান   নির্বাচন   শাহবাজ-ওমর  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

পশ্চিমবঙ্গ থেকে ৪২ আসনে জিততে চান মোদি

প্রকাশ: ০৮:৫০ পিএম, ০২ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, আবারও ক্ষমতায় আসতে হলে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ৪২ আসনের সব কটিতে জয় তাদের লক্ষ্য। নির্বাচনী প্রচারে দুই দিনের সফরে পশ্চিমবঙ্গে যান তিনি। 

শুক্রবার (০১ মার্চ) হুগলি জেলার আরামবাগের পর শনিবার (০২ মার্চ)পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নদীয়ার কৃষ্ণনগরের সভায় এ কথা বলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

এদিন কৃষ্ণনগর থেকে বসিরহাটের সন্দেশখালিতে নারীদের ওপর অত্যাচারসহ সে অঞ্চলের ‘ত্রাস’-এর গ্রেপ্তার ও নারীদের জোট বাধার প্রসঙ্গ তুলে মোদি বলেছেন, সন্দেশখালিতে বাংলার নারীশক্তি দুর্গা হয়ে রুখে দাড়িয়েছিল, তাই অপরাধী ধরা পড়েছে।

বক্তৃতার শেষ পর্বে ভারতের সংসদ নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের ৪২টি আসনেই জয়ের প্রতিশ্রুতি চাইলেন নরেন্দ্র মোদি। এর আগে পশ্চিমবঙ্গে এসে বাংলায় ৪২ আসনে বিজেপির জন্য ৩৫ আসনে জয়ের লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। কিন্তু মোদি তা ছাপিয়ে গেলেন। বাংলার মানুষের কাছে প্রতিশ্রুতি চাইলেন ৪২টি আসনের জন্যই।


ভারত   নরেন্দ্র মোদি   পশ্চিমবঙ্গ   বিজেপি  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

পাকিস্তানগামী চীনা জাহাজ ভারতে আটক

প্রকাশ: ০৮:২৩ পিএম, ০২ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

পারমাণবিক ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচিতে ব্যবহারের জন্য সরঞ্জাম পরিবহন করছে সন্দেহে মুম্বাইয়ের নাভা শেভা বন্দরে পাকিস্তানগামী একটি জাহাজ আটক করেছে ভারত। 

চীন থেকে পণ্য নিয়ে ছেড়ে আসা পাকিস্তানগামী । গত ১৭ জানুয়ারি চীন থেকে পাকিস্তানের করাচির উদ্দেশ্যে রওনা দেয় জাহাজটি। পরবর্তীতে মুম্বাইয়ের নব সেভা সমুদ্রবন্দরে জাহাজটি আটক করে ভারতীয় কর্মকর্তারা।  

শনিবার (২ মার্চ) ভারতের শুল্ক দপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, জাহাজে যে পণ্য উদ্ধার হয়েছে তা পারমাণবিক এবং ক্ষেপণাস্ত্র প্রকল্পে ব্যবহার হয়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, গোপন সূত্রে শুল্ক দপ্তরের কর্মকর্তারা খবর পান মাল্টার পতাকা লাগানো ‘সিএমএ সিজিএম অ্যাটিলা’ নামে একটি জাহাজে সন্দেহজনক কিছু নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সেই খবর পেয়েই নব সেবা বন্দরে জাহাজটিকে আটক করা হয়।

শুল্ক দপ্তর এবং ডিআরডিও-র একটি দল জাহাজের ওই পণ্য খতিয়ে দেখে। শুল্ক দপ্তর জানিয়েছে, জাহাজে কম্পিউটার নিউমেরিক্যাল কন্ট্রোল মেশিন (সিএনসি) নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। কোনো পারমাণবিক প্রকল্পের জন্য এই ধরনের যন্ত্রকে ব্যবহার করার উদ্দেশ্য ছিল বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, যে যন্ত্রগুলো পাকিস্তানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল, সেগুলো ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির কাজে ব্যবহার করার পরিকল্পনা ছিল পাকিস্তানের।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাহাজ এবং পণ্যের নথি খতিয়ে দেখার পর জানা গেছে, জাহাজটি সাংহাই জেএক্সই গ্লোবাল লজিস্টিক্স নামে একটি সংস্থার। পণ্য পাঠানো হচ্ছিল পাকিস্তান উইংস প্রাইভেট লিমিটেড নামে সিয়ালকোটের একটি সংস্থায়। তবে আরও তদন্ত করে গোয়েন্দারা জানতে পেরেছে, জাহাজটি তাইউয়ান মাইনিং ইমপোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট নামে একটি সংস্থার। পাকিস্তানের কসমস ইঞ্জিনিয়ারিং নামে একটি সংস্থায় ওই পণ্য পাঠানো হচ্ছিল।

এই প্রথম নয়, এর আগেও চীন থেকে পাকিস্তানে পাঠানো সেনাসামগ্রী বাজেয়াপ্ত হয়েছিল ভারতের জলসীমায়। 


পাকিস্তান   চীন   জাহাজ   ভারত  


মন্তব্য করুন


ওয়ার্ল্ড ইনসাইড

গ্রেপ্তারের আগেই চার মামলায় ইমরান খানের জামিন

প্রকাশ: ০৮:৪০ পিএম, ০২ মার্চ, ২০২৪


Thumbnail

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহেরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) প্রতিষ্ঠাতা ইমরান খানকে গ্রেপ্তারের আগেই লাহোরের সন্ত্রাস বিরোধী আদালত চার মামলায় জামিন দিয়েছেন। 

শুক্রবার (০১ মার্চ) তাকে জামিন দেয়া হয়। খবর ডনের 

যে চার মামলায় ইমরান খানকে জামিন দেওয়া হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে- জিলে শাহাকে হত্যা, জামান পার্কের বাইরে পুলিশের ওপর হামলা, পিএমএল-এন’র অফিস এবং একটি কন্টেনারে অগ্নিসংযোগ।

ইমরান খানের জামিন আবেদনের বিরুদ্ধে যুক্ততর্ক উপস্থাপনকারী বিশেষ আইনজীবী রানা শাকিল বলেন, গত বছরের ৯ মে’র হামলায় অন্যতম মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন ইমরান খান। এছাড়া তার নির্দেশেই সেনাবাহিনীর স্থাপনায় হামলা করা হয়। 

এ সময় বিচারক আশাদ জাভেদ ওই আইনজীবীর উদ্দেশ্যে বলেন, তার কর্মীদের হামলা চালানোর জন্য ইমরান খান কী তার এক্স হ্যান্ডেলে কোনো পোস্ট দিয়েছিলেন কিনা?

এ প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিতে পারেননি আইনজীবী রানা শাকিল। তবে তিনি বলেন, ইমরান খান গ্রেপ্তারের আগে হামলা চালানোর মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি করেন। 

এদিকে ইমরানের খানের আইনজীবী সালমান সাফদার বলেন, যে মামলায় ইমরান খানতে অভিযুক্ত করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। ইমরান খান পুলিশ স্টেশনে হামলা এবং জিলে শাহাকে হত্যার জড়িত নয়। 

বিচারক চারটি মামলায় ইমরান খানকে গ্রেপ্তার পূর্বেই জামিন নিশ্চিত করেছেন এবং একই সঙ্গে আবেদনকারীকে প্রতিটি মামলায় ৫ লাখ রুপির বন্ড প্রদানের নির্দেশ দিয়েছেন।


গ্রেপ্তার   ইমরান খান   জামিন   পিটিআই  


মন্তব্য করুন


বিজ্ঞাপন